১০০ টাকা লাভ করতে গিয়ে জরিমানা গুনলেন ২০ হাজার টাকা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঠাকুরগাঁও
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের অভিযান

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের অভিযান

  • Font increase
  • Font Decrease

১১০০ টাকার টিএসপি ১২০০ টাকায় বিক্রি করার দায়ে ঠাকুরগাঁওয়ের আরাফাত ট্রেডার্সকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জেলা সহকারী পরিচালক শেখ সাদী।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) বিকালে ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার বেগুনবাড়ি ইউনিয়নের বেগুনবাড়ি বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ভোক্তা অধিকারের দেওয়া তথ্য মতে, নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অধিক দামে কীটনাশক সার ও মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রি করার অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর অধীনে রাফি ট্রেডার্সকে ১৫০০০ হাজার টাকা, আরাফাত ট্রেডার্সকে ২০০০০ টাকা ও রণি ফার্মেসিকে ১০০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ঠাকুরগাঁওয়ের সহকারী পরিচালক শেখ সাদী বলেন, নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অধিক দামে সার, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রি ও মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করার কারণে তিনটি প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন ধারায় জরিমানা করা হয়েছে। সেই সাথে পরবর্তীতে এমন কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। ভোক্তাদের স্বার্থে আমাদের অভিযান পরিচালনা অব্যহত থাকবে।

সাতজনের মধ্যে বেঁচে রইলেন শুধু নবদম্পতি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের এক্সপ্রেসওয়ের গার্ডার চাপায় প্রাইভেটকারে নবদম্পতিসহ ৭ জন ছিলেন। এ দুর্ঘটনায় পাঁচজন মারা গেছেন। বেঁচে রয়েছেন শুধু নবদম্পতি হৃদয় (২৬) ও রিয়া মনি (২১) ।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় বাস র‍্যাপিড ট্রানজিটের (বিআরটি) উড়াল সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বর হৃদয়ের বাবা রুবেল (৬০), কনে মা ফাহিমা (৪০), খালা ঝরনা (২৮), ঝরনার দুই সন্তান জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)। শুধু বেঁচে গেছেন হৃদয় ও রিয়া। তাদের গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত নিহতের স্বজনরা জানান, শনিবার হৃদয় ও রিয়ার বিয়ে হয়। তারা সোমবার ছেলের বাড়ি থেকে মেয়ের বাড়ি যাচ্ছিলেন। হৃদয়ের পরিবার
উত্তরার দক্ষিণখান থানার কাওলা আফিল মেম্বারের বাড়ির ভাড়াটিয়া। আর কনে রিয়া মনির বাড়ি আশুলিয়ার খেজুরবাগানে আসরাফউদ্দিন চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নিহতরা তিন নম্বর সেক্টরের বিআরটি প্রকল্প এলাকায় সিয়াম টাওয়ারের সামনে প্রাইভেটকারে ছিলেন। নির্মাণ কাজের ক্রেনের তার ছিঁড়ে গার্ডার পড়ে যায়। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

বিআরটি প্রকল্পের প্রকৌশলী কায়সার হামিদ বলেন, এখনও গাড়িটি চাপা পড়ে আছে। ক্রেন দিয়ে গার্ডার ওঠানোর সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলেই তিনজনের মৃত্যু হয়। পরে মারা যায় আরও একজন। গার্ডারের নিচে গাড়ির ভেতরে চাপা রয়েছেন, এর মালিক রুবেল, একজন নারী ও দুই শিশু।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, নিহত পাঁচজনের লাশ গাড়ির ভেতরেই চাপা পড়ে রয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

;

‘সোনার বাংলা গড়ে তুলে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধ নেয়া হবে’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলে নির্মম হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধ নেওয়া হবে।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রংপুরের পীরগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

টিপু মুন্সী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তিই বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে। আজ থেকে ৪৭ বছর আগে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলেও তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর পুরো জীবনটাই সংগ্রামের। ভারত-পাকিস্তান যেদিন ভাগ হয়েছিল, সেদিনই বঙ্গবন্ধু বুঝতে পেরেছিলেন, পাকিস্তান বাঙালিদের জন্য নয়। বঙ্গবন্ধু জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়গুলো জেলে কাটিয়েছেন, দেশ স্বাধীন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশের মানুষদের অর্থনৈতিক মুক্তি। সে কাজটি করতে পারেননি তিনি।

তিনি বলেন, আজ তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। দেশ আজ শক্তিশালী অর্থনীতির ওপর দাঁড়িয়ে আছে।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন এখন দৃশ্যমান। বিশ্ববাসী বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করছে।

তিনি আরও বলেন, সারাবিশ্বে এখন অর্থনৈতিক অস্থিরতা চলছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পণ্যের দাম বেড়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেল, গ্যাস, চাল, ইত্যাদির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পরিস্থতির সুযোগ নিয়ে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। সাশ্রয়ী হয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।

তিনি বলেন, আশা করা যায় আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শামসুল আরেফীনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু নাছের শাহ মো. মাহবুবুর রহমান।

;

বঙ্গবন্ধু নিপীড়িত মানুষের আশার আলো: প্রতিমন্ত্রী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের মুক্তির অগ্রদূত। নিপীড়িত মানুষের আশার আলো। সংগ্রামী জনতার প্রেরণার মিনার।

সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে চিলমারী মহিলা ডিগ্রি কলেজ মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী সরকারের বীর বিক্রমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুই প্রথম নিপীড়িত বাঙালিকে ‌উপহার দিয়েছেন একটি ভূখন্ড, জাতীয় সঙ্গীত, জাতীয় পতাকা। আমরা প্রত্যেকেই যদি নিজ নিজ দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করি এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করি, তবেই তার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। তাই সবাইকে অঙ্গীকার করতে হবে সোনার বাংলা গড়তে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের চিরন্তন প্রেরণার উৎস। তার নীতি ও আদর্শ ধারণ করে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ছড়িয়ে দিতে হবে। আর তা করতে পারলেই বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত স্বপ্ন পূরণ করা সম্ভব হবে।

প্রতিমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নপূরণে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।

;

‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২০৪১ সালের মধ্যে মাথাপিছু আয় সাড়ে ১২ হাজার মার্কিন ডলারে দাঁড়াবে বলে আশাবাদ করেছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাজধানীর এনইসি মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সঠিক পরিকল্পনার ফলে ১৯৭২-৭৩ সালের সাড়ে ৬ বিলিয়ন ডলারের অর্থনীতির দেশ এখন বেড়ে ৪৬৫ বিলিয়ন ডলারে রূপ নিয়েছে। একইভাবে ২০৩১ সালের পরিকল্পনায় বলা আছে- আমরা সর্বোচ্চ মধ্যম আয়ের দেশ হবো। ২০৪১ সালের মধ্যে আমাদের মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে ১২ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার। চমৎকার পরিকল্পনা মাফিক কাঠামোর মধ্য দিয়ে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ পরিকল্পিত অর্থনীতির ধারায় ফিরে আসে। পরিকল্পনার ভিত্তিতেই জাতীয় পরিকল্পনা শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের চিন্তা-চেতনার ওপর ভর করেই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। ভবিষ্যৎ কাঠামোর আওতায় দেশকে কোথায় নিয়ে যাবো, সেটা নির্ধারণ করা হয়। সবকিছু এই পরিকল্পনায় বর্ণনা করা হয়েছে। দেশ পরিকল্পিতভাবেই এগোচ্ছো।

পরিকল্পনা বিভাগর সচিব মামুন আল রশীদের সভাপতিত্বে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন, বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

;