আনারকলির লিভ ইন পার্টনার কে এই নাইজেরিয়ান?



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাসায় নিষিদ্ধ মাদক মারিজুয়ানা রাখার অভিযোগে ইন্দোনেশিয়া থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে কূটনীতিক কাজী আনারকলিকে। ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত আচরণের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ওই কমিটি প্রাথমিক তদন্ত করবে এবং প্রমাণ সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে ডিপার্টমেন্টাল প্রসিডিং শুরু হতে পারে।

সূত্র জানিয়েছে, সরকার আনারকলির বয়ফ্রেন্ড নাইজেরিয়ান ব্যবসায়ী উইলিয়াম ইরোমিসেলি বেনেডিক্ট ওসিগবেমের প্রতি সন্দেহের অঙ্গুলি রেখেই তদন্ত নেমেছে । পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং আনারকলির ঘনিষ্ঠ সূত্রের দাবি উইলিয়ামের সঙ্গে সম্পর্কের পর থেকেই পাল্টাতে থাকেন ওই মেধাবী কূটনীতিক। সংসারে ‘ভাঙা-গড়ার খেলা’ আর বিশ্বস্ত বন্ধুদের ‘ছলনা’য় ব্যক্তিজীবনে চরম হতাশার মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। এমন সময় ‘নির্ভরতার প্রতীক’- হিসেবে তার জীবনে আসেন উইলিয়াম ওসিগবেমে। ঘনিষ্ঠরা বলছেন, ৫ বছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের পরিচয়, সে থেকে ঘনিষ্ঠতা। আনারকলি তখন যুক্তরাষ্ট্রের লসএঞ্জেলসে কর্মরত। সেখানে তার অন্য রিলেশন ছিল, এর মাঝেই ঢুকে পড়েন উইলিয়াম। ঘনিষ্ঠ হয়ে যান অল্পদিনে। উইলিয়ামের সঙ্গে সম্পর্কের কারণেই আনারকলির কথিত গৃহকর্মী সাব্বির (৪০) পালিয়ে যান! আগে থেকেই তাদের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। প্রায় ৬ মাস রহস্যজনক নিখোঁজ থাকার পর সাব্বির নিজের স্টে পারমিট পেতে আনারকলির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন।

কিন্তু সে সময় এ নিয়ে কোনও তদন্ত হয়নি। বরং তাকে দ্রুত ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় জরুরি পদায়ন করে সরকার। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে আসার কারণে তখন ইন্দোনেশিয়ার ভিসা পেতেও জটিলতায় পড়েন ওই কূটনীতিক। অবশ্য বিলম্বে হলেও তিনি ভিসা পান এবং যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগে বাধ্য হন। কিন্তু সেই ঘটনাটি আরও দু’টি ঘটনার সঙ্গে মিলেমিশে একাকার হয়ে যাওয়ায় তদন্ত এবং জবাবদিহিতা থেকে রেহাই পেয়ে যান আনারকলি।

এই ঘটনার পর এখন অনেকেই সে সময় তদন্ত না হওয়া এবং আনারকলিকে ঢাকায় ফিরিয়ে না এনে জাকার্তা পাঠিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত যারা নিয়েছিলেন তাদের সমালোচনা করছেন। তবে, আনারকলির মতো চৌকস অফিসারের আজকের এ অবস্থার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এমনকি গণমাধ্যমেও অনেক গুণীজন হতাশা ব্যক্ত করছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনও এ নিয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি তার বিষয়ে দ্রুত তদন্তের কড়া নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে এক কর্মকর্তা বলেন, একজন বিদেশি কূটনীতিকের বাসায় প্রবেশের আগে পুলিশকে অবশ্যই বিদেশি কূটনীতিকের দূতাবাসের অনুমতি নিতে হবে। এক্ষেত্রে কোনও অনুমতি নেওয়া হয়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে বলে তিনি জানান।

আনারকলির লিভ ইন পার্টনার নাইজেরিয়ান নাগরিক উইলিয়াম ইরোমিসেলি বেনেডিক্ট ওসিগবেমে একজন ব্যবসায়ী। নাইজেরিয়ার লাগোসে তার আদি নিবাস। তবে জাকার্তায়ও তার কিছু বিষয় সম্পত্তি রয়েছে বলে জানা গেছে। উইলিয়াম নাইজেরিয়ার লাগোসের একটি রেজিস্টার্ড কোম্পানির পরিচালক। ইকোই লাগোসের ঠিকানায় নাইজেরিয়া সরকারের নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ করপোরেট এফেয়ার্স কমিশনে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে ৭ মে ২০১৮ সালে। আনারকলির সঙ্গে পরিচয় এবং ঘনিষ্ঠতার সুবাদে উইলিয়াম চলে আসেন ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানে তিনি তার কোম্পানির শাখা খোলেন। পিটি বেনোস ইন্ডাস্ট্র্রিয়াল রিসোর্সেস নামের ওই কোম্পানির ব্যবসা এবং বিনিয়োগ দেখিয়ে তিনি ২০১৮ সালে জাকার্তায় স্টে পারমিট জোগাড় করেন। বর্তমানে তিনি এ-০৮৫৫৬৫১৭ নম্বরের পাসপোর্ট বহন করছেন। যার মেয়াদ আগামী ১১ সেপ্টেম্বর শেষ হবে।

তিনি প্রায়ই ব্যবসায়িক প্রয়োজন দেখিয়ে থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, কম্বোডিয়া, লাওসসহ বিভিন্ন দেশে যাতায়াত করতেন। ঢাকার এক অবসরপ্রাপ্ত গোয়েন্দা কর্মকর্তার ধারণা, ট্যুরিস্ট ভিসায় তার এসব যাত্রা ব্যবসার আড়ালে অন্য কারবার হতে পারে। যা ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম নিয়ে কাজ করা কোনো এজেন্সি তদন্ত করলে হয়তো সামনে আসবে। সূত্র মানবজমিন।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি

  • Font increase
  • Font Decrease

আগের মতোই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি। এ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বুধবার (১৭ আগস্ট) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি থাকবে না এবং জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব পাচ্ছে মর্মে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। যা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের নজরে এসেছে। এই নিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য নিম্নরূপ

১। ম্যানেজিং কমিটি থাকবে না মর্মে প্রচারিত তথ্যটি সঠিক নয়।

২। আগের মতোই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি ।

৩। জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে এই সংক্রান্ত কোন নির্দেশনা শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া হয়নি।

৪। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম মনিটর করার কথা বলা হয়েছে, পূর্বেও জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাদের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই দায়িত্ব পালন করতেন। 

;

রাঙামাটির সাজেকে চাঁদের গাড়ি উল্টে নিহত ২



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাঙামাটি
রাঙামাটির সাজেকে গাড়ি উল্টে নিহত ২

রাঙামাটির সাজেকে গাড়ি উল্টে নিহত ২

  • Font increase
  • Font Decrease

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি সাজেকের নাঙ্গলমারা এলাকায় চাঁদের গাড়ি (জীপ) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ইলিয়াছ হোসেন (৪৫) নামে এক কাচাঁমাল ব্যবসায়ী ও অনন্ত ত্রিপুরা (৪০) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সকালে বাঘাইহাট-সাজেক সড়কের নাঙ্গলমারা (২ নং কালবার্ট) এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ইলিয়াছ হোসেনের বাড়ী উপজেলার বঙ্গতলী ইউনিয়নের করেঙ্গাতলী এলাকায় ও অনন্ত ত্রিপুরার বাড়ি সাজেক মাচালং এলাকায় বলে জানা যায়।

বুধবার সকালে মাচালং বাজার থেকে একটি জীপ গাড়ি কলা বোঝাই করে বাঘইহাট বাজারে আসার পথে নাঙ্গলমারা (২ নং কালবার্ট) এলাকায় জীপ গাড়ি ব্রেকফেল করে নিয়ন্ত্রণ হারালে খাদে পরে জীপ গাড়ি উল্টে গেলে ঘটনাস্থলেই ২ জন নিহত হন।

সাজেক থানার ওসি নুরুল হক (নুর) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, দুর্ঘটনার পর জীপ গাড়ি চালক পালিয়ে যায়, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

;

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই মালাই গাঁথা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রত্যয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক একাডেমির উদ্যোগে 'রং তুলিতে বঙ্গবন্ধু' শিরোনামে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। ১৫ আগস্ট বিকেল ৪টায় পটিয়া ক্লাব প্রাঙ্গণে এই আয়োজনে পটিয়ার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১৪৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন।

প্রত্যয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক একাডেমির সদস্য অগ্নিলা শর্মা দিয়ার সঞ্চালনায় ও নির্বাহী পরিচালক আবদুল্লাহ ফারুক রবির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটিয়া উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, রাজনীতিবিদ রাশেদ মনোয়ার, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং বাংলার মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন। এর ফলে একেবারেই সাধারণত মানুষ থেকে শুরু করে সব শ্রেণির মানুষ যুদ্ধ করে এই দেশকে স্বাধীন করেছে। তাই তিনি ছাত্রজনতার বঙ্গবন্ধু থেকে গণমানুষের মুক্তির মহা নায়ক।

রাশেদ মনোয়ার বলেন, বীরত্ব, ত্যাগ, দৃঢ়প্রত্যয়, নেতৃত্বগুণ—একজন রাজনীতিক হিসেবে এর সব কটির সম্মিলন জাতি দেখেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মধ্যে, যা সহজেই তাঁকে স্বাধীনতার স্থপতি ও জাতির পিতার মর্যাদায় আসীন করেছে। ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তিনি স্থান নিয়েছেন বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে। বাঙালি জাতি তাদের মহান নেতাকে সব সময় শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে।

নুরুল আজিম রনি বলেন, ১৯৭১ সমগ্র জাতি বাংলাদেশ স্বাধীন করার জন্য বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এক হয়েছিল। ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা যে দেশ পেয়েছিলাম তার নাম বাংলাদেশ। ১৯৭৫ সালের আজকের এই দিনে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার স্থপতি ও তার পরিবারকে নির্মম  ভাবে হত্যা করে স্বাধীনতা বিরোধীরা।

একাডেমির নির্বাহী পরিচালক আবদুল্লাহ ফারুক রবি বলেন, বিংশ শতাব্দীর এক মহান নেতা বঙ্গবন্ধু। তাঁর স্বপ্ন, দর্শন, আদর্শ ও প্রাপ্তি ছড়িয়ে রয়েছে বাংলার আকাশে-বাতাসে, মানুষের মননে। বঙ্গবন্ধু শুধু একটি নাম নয়, তিনি এক জাগ্রত ইতিহাস। একটি স্বাধীন জাতিসত্তার অপরিমেয় অহংকার, বর্ণিল ঐশ্বর্য। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই মালায় গাঁথা। তাই বঙ্গবন্ধু সবার, বঙ্গবন্ধু সব মানুষের। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করা সবার নৈতিক দায়িত্ব।

আরো বক্তব্য রাখেন চিত্রশিল্পী হামেদ হাসান, ছাত্রনেতা মোহাম্মদ সোহেল উদ্দিন,সাইদুল আলম তানিম, একাডেমির সমন্বয়ক এমরান হোসেন রাসেল, আবদুল আল মোমেন, জয় শীল, স্বাগত বড়ুয়া, সংগীত শিক্ষক শিবু মল্লিক।

আলোচনা শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ক্রেস্ট, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। সেই সাথে ৪০ জন দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে এক বছরের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হয়।

;

রংপুরে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার, প্রেমিক আটক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
রংপুরে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার, প্রেমিক আটক

রংপুরে স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার, প্রেমিক আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরের কাউনিয়ায় সানজিদা আক্তার ইভা(১৬) নামে এক স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সানি নামে তার প্রেমিককে আটক করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল-সি) আশরাফুল আলম পলাশ। এর আগে মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাত ৯টার দিকে কুটিরপাড় -মধুপুর সড়কের উপজেলার হরিচরণ লস্কর গ্রামে সড়কের পাশ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত সানজিদা আক্তার ইভা কাউনিয়া উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের গোড়াই গ্রামের ইব্রাহীম মিয়ার মেয়ে এবং পার্শ্ববর্তী পীরগাছা উপজেলার বড়দরগাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে সড়কের ধারে একটি মেয়েটিকে ছটপট করতে দেখে স্থানীয় লোকজন। তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। মেয়েটির গলায় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে ১৮টি জখমের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।
পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বড়দরগাহ উচ্চ বিদ্যালয়ে যায় ইভা। এরপর আর বাড়ি ফেরেনি। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে কাউনিয়া থানা পুলিশের মাধ্যমে খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে তার মরদেহ শনাক্ত করা হয়।

কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মীর হোসেন জানান, ইভা নামে মেয়েটিকে হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়।

কাউনিয়া থানার ওসি (তদন্ত) সেলিমুর রহমান জানান, এ ঘটনায় সানি নামে তার প্রেমিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হচ্ছে।ময়নাতদন্তের জন্য ইভার মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

;