রং তুলির কাজে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
Idol artists are busy painting

Idol artists are busy painting

  • Font increase
  • Font Decrease

শিল্পীর নিপুণ হাতে তৈরি করেন দেবী দুর্গাকে। এ যেন প্রতিমা শিল্পীদের মায়ার বাধন। নরম কাদা-মাটি দিয়ে শৈল্পিক ছোঁয়ায় তিল তিল করে গড়ে তোলা দশভুজা দেবী দুর্গার প্রতিমায় ভরে উঠেছে প্রতিটি মণ্ডপে মণ্ডপে। নানান রঙ আর তুলির আঁচরে ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে দেবীর প্রতিচ্ছবি। তাই যেনো ঘুম নেই প্রতিমা শিল্পীদের। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গা পুজা। রঙের আঁচড় আর সাজসজ্জায় দুর্গাদেবীকে সাজাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন টাঙ্গাইলের প্রতিমা শিল্পীরা।

আগামী ১ অক্টোবর থেকে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

টাঙ্গাইল জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ সূত্রে জানা যায়, এ বছর টাঙ্গাইলের ১২টি উপজেলায় এক হাজার ২৮৪টি পূজামণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। জেলার সদর উপজেলার পূজামণ্ডপে ২০৭টি, বাসাইলে ৬৫টি, সখিপুরে ৫৩টি, মির্জাপুরে ২৫৬টি, নাগরপুরে ১৩২টি, দেলদুয়ারে ১২৭টি, গোপালপুরে ৫০টি, ভূঞাপুরে ৪০টি, কালিহাতীতে ১৯০টি, ঘাটাইলে ৮১টি, মধুপুরে ৫০টি ও ধনবাড়ীতে ৩৩টি পূজামণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর পূজা মণ্ডপের সংখ্যা ছিল ১২৪৩টি ও চলতি বছর ১২৮৪টি। গত বছরের তুলনায় ৪১টি পূজামণ্ডপের সংখ্যা বেড়েছে।

জেলার বিভিন্ন মণ্ডপে ঘুরে দেখা গেছে,কেউ মাটির কাজ শেষ করে দেবীর গায়ে দিচ্ছেন তুলির আঁচড় আবার কেউ ব্যস্ত প্রতিমার গায়ে কাঁদা মাটির প্রলেপ লাগাতে।তাদের যেনো ধম ফেলার ফুসরত নেই।রাত দিন কাজ করে যাচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বিসিক এলাকার প্রতিমা শিল্পী অজিত পাল বলেন, বাবা দাদার পেশা আমার প্রাণের স্পন্দন। ৩০ বছর ধরে প্রতিমা তৈরি করি।এবছর ১০টি প্রতিমা তৈরি করেছি।টাঙ্গাইল সদরে ৭ টি,নাগরপুর ১টি,বাসাইল ১ টি ও গাইবান্ধাই ১টি।প্রতিমার মুজুরি ৫০-১ লাখ টাকা।মাটির কাজ শেষ করেছি এখন রঙ তুলির কাজ করছি।

তারটিয়া এলাকার প্রতিমা তৈরির কারিগর সন্তোষ পাল বলেন, আমি প্রায় ২০ বছর ধরে প্রতিমা তৈরির কাজ করছি। এবার আমি ১০টি প্রতিমা তৈরি করেছি। আমার কারখানায় দুই-তিনজন কর্মচারীসহ পরিবারের লোকজন নিয়ে প্রতিমা বানাচ্ছি। বর্তমানে খড়, বাঁশ, মাটি, লোহাসহ সব কিছুর দাম আগের তুলানায় অনেক বেশি। সব কিছুর দাম বাড়ার কারণে আমাদের এখন পোষে না। জাতিগত কাজ এজন্য করতে হয়।
তারটিয়া এলাকার সন্ধ্যা পাল বলেন, আমি পরিবারের কাজ কর্ম করে যে সময় টুকু থাকে আমার স্বামীর সাথে প্রতিমা তৈরি কাজে সাহায্য করি। সামনে ৩০ সেপ্টেম্বর পঞ্চমী। পঞ্চমীর রাতের আগেই আমাদের প্রতিমার সব কাজ শেষ করতে হবে। এজন্য আমরা এখন খুব ব্যস্ত সময় পার করছি।

নিখিল পাল বলেন, এ বছর ১০টি প্রতিমা তৈরি করেছি। এখন রঙ তুলির কাজ চলছে। মাটির কাজ সব শেষ করছি। এ পর্যন্ত চারটি রঙ করছি। ছয়টি প্রতিমা বাকি আছে রঙ করার জন্য। আমরা রাত দিন জেগে কাজ করছি। কাজ করতে গিয়ে আমাদের অন্য কোনো দিকে নজর দেওয়ার সুযোগ নেই। খাওয়া দাওয়ারও কোনো ঠিক নাই।

প্রতিমা শিল্পীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, একটি প্রতিমা তৈরি করতে শিল্পীদের সর্বনিম্ন ২৫-৩০ হাজার টাকা খরচ হয়। সর্বোচ্চ তিন-চার লাখ টাকা খরচ হচ্ছে এ বছর। প্রতিমা তৈরির জন্য তাদের ৩ থেকে ৪ ভ্যান মাটি লাগে। খড়ের আউর লাগে ৫ থেকে ৬ পৌন। এছাড়াও কাঠ, বাঁশ, দড়ি, পেরেক, সুতা ও ধানের গুড়াসহ বিভিন্ন জিনিসের প্রয়োজন হয়। এর মধ্যে প্রতি ভ্যান মাটিতে তাদের খরচ হয় ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা, প্রতি পৌন আউরে খরচ হয় পাঁচশ’ টাকা থেকে ছয়শ’ টাকা। আর বাকি জিনিসগুলোর জন্য খরচ হয় ৪ থেক ৫ হাজার টাকার মতো। আগের থেকে সব কিছুর জিনিসপত্রের দাম বেশি। একটি প্রতিমা তৈরি করতে সময় লাগে ১০ থেকে ১২ দিন। প্রতিমা তৈরিতে চার থেকে পাঁচজন শিল্পী একসঙ্গে কাজ করেন। একেকজন শিল্পী প্রতিমার এক এক কাজে হাত দেন বলেও জানান প্রতিমা শিল্পীরা।

টাঙ্গাইল পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার গুন ঝন্টু জানান, এ বছর জেলার ১২ টি উপজেলায় মোট ১২৮৪ টি পূজামণ্ডপে পূজা হবে। এ জন্য মন্দিরে বিভিন্ন কাজ ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে আমরা বিভিন্ন দাবি করেছি। প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজায় প্রতিবছরের ন্যায় এবারও পুলিশের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। প্রতিটি পূজামণ্ডপে আনসার সদস্যরা ডিউটিতে থাকবে। গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপে পুলিশ থাকবে। জেলার প্রতিটি পূজামণ্ডপে নামাজের সময় সূচি টাঙানো জন্য বলা হয়েছে। পূজা কমিটিকে মণ্ডপগুলো পূজা চলাকালীন সময় সিসি ক্যামেরার আওতায় আনতে বলা হয়েছে। এছাড়া পুলিশের মোবাইল টিম কাজ করবে।

ঢাকায় আসছেন ব্রুনাইয়ের সুলতান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথমবারের মতো ঢাকায় আসছেন ব্রুনাইয়ের সুলতান হাজি হাসানাল বলকিয়াহ মুইজ্জাদ্দিন ওয়াদদৌল্লাহ। তিন দিনের সফরে চলতি মাসের মাঝামাঝি তিনি ঢাকা আসবেন।

ব্রুনাইয়ের সুলতানের সফরকে কেন্দ্র করে চারটি সমঝোতা স্মারক সইয়ের প্রস্তুতি নিয়েছে দুই দেশ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সুলতানের সফরকে কেন্দ্র করে গত ৩১ আগস্ট বাংলাদেশ ও ব্রুনাইয়ের মধ্যে দ্বিতীয় পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক ফরেন অফিস কনসালটেশন (এফওসি) অনুষ্ঠিত হয়। সুলতানের সফরকে কেন্দ্র করে ব্রুনাই থেকে জ্বালানি আমদানি, বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ, সরাসরি বিমান চলাচল এবং সংস্কৃৃতি খাতে সমঝোতা স্মারক সইয়ের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, তিন দিনের সফরের একটি দিন মূলত আনুষ্ঠানিক। প্রথম দিন তিনি আসবেন, দ্বিতীয় দিন মূলত বৈঠক এবং তৃতীয় দিন তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে যাবেন। এখন পর্যন্ত চারটিই সমঝোতা স্মারক সইয়ের প্রস্তুতি রয়েছে। এটি বাড়তে পারে। তবে সবই নির্ভর করছে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশনার ওপর।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে পুরো বিশ্ব জ্বালানি সংকটে পড়েছে। এ কারণে প্রথাগত বাজারের বাইরে ভিন্ন উৎস থেকে জ্বালানি সংগ্রহের চেষ্টা করছে বাংলাদেশ।

;

আজ কোথায় কখন লোডশেডিং



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি সংকটের কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ঘাটতির জন্য দেশজুড়ে এলাকাভিত্তিক আজও লোডশেডিং শুরু হচ্ছে। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী মঙ্গলবারের (৪ অক্টোবর) তালিকা প্রকাশ করেছে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো।

ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো), নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো), ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউসন কোম্পানি (ওজোপাডিকো), বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (বিআরইবি) এবং বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এর ওয়েবাসাইটের নির্দিষ্ট লিংককে গিয়ে এই তালিকা দেখতে পারবেন গ্রাহকরা।

আজকে কোন এলাকায় কখন লোডশেডিং হবে, এর সূচি দেওয়া হয়েছে। দেখে নেওয়া যাক।

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

http://www.wzpdcl.org.bd/

https://nesco.portal.gov.bd/site/page/13ccd456-1e1d-4b24-828d-5811a856f107

http://reb.portal.gov.bd/site/page/c65ac273-d051-416f-9a93-5cd300079047

https://bpdb.portal.gov.bd/site/page/cafea028-95e6-4fca-8fea-e4415aef9a60

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

জ্বালানি সাশ্রয়ে উচ্চ ব্যয়ের ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্তের পর সরবরাহ সংকটে দেশজুড়ে প্রতিদিন সূচি ধরে কোথাও এক ঘণ্টা আবার কোথাও ২ ঘণ্টা করে লোডশেডিং করা শুরু হয় মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) থেকে।

এর আগে ১৮ জুলাই লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিবিষয়ক সমন্বয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

;

মণ্ডপ দেখতে বেরিয়ে নৈশকোচের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুজনের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরে পূজামণ্ডপ দেখতে বেরিয়ে নৈশকোচের ধাক্কায় ব্যাটারিচালিত অটোভ্যানের দুই যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত তিন জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সোমবার (৩ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কে জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার খিয়ারজুম্মা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার তালুক দামোদরপুর এলাকার পবিত্র চন্দ্র (২২) ও রতন চন্দ্র (৩০)।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, রাত সাড়ে ৮টার দিকে ব্যাটারিচালিত অটোভ্যানটি খিয়ারজুম্মা এলাকায় পৌঁছায়। এ সময় সৈয়দপুর থেকে ছেড়ে আসা অজ্ঞাত একটি নৈশকোচ পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যান থেকে সড়কে ছিটকে পড়ে উপজেলার তালুক দামোদরপুর এলাকার পবিত্র চন্দ্র (২২) ও রতন চন্দ্র (৩০), লিটন চন্দ্র (২৫) ভোলা চন্দ্র (২৮) ও সাহেব আলী (২১) গুরুতর আহত হন। খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার করে রমেক হাসপাতালে পাঠায় তারাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একদল কর্মী। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সোয়া ১১টার দিকে পবিত্র চন্দ্র ও রতন চন্দ্রের মৃত্যু হয়।

হাসপাতালের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি শেখ মো. মাহাবুব মোরশেদ বলেন, রাত সোয়া ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পবিত্র চন্দ্র ও রতন চন্দ্র মারা গেছে। বাকি তিনজনের চিকিৎসা চলছে।

;

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে ১৮ দিনের রাষ্ট্রীয় সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১টা এক মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী একটি ভিভিআইপি চার্টার্ড ফ্লাইট ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রীর ডেপুটি প্রেস সচির হাসান জাহিদ তুষার এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, ফ্লাইটটি ওয়াশিংটন ডিসি থেকে রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় (বাংলাদেশ সময় সোমবার ভোর সাড়ে ৪টায়) উড্ডয়ন করে।
বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো.শাহরিয়ার আলম, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ ইমরান এবং জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মুহাম্মদ আবদুল মুহিত।

প্রধানমন্ত্রী ওয়াশিংটন থেকে দেশে ফেরার পথে লন্ডনে সংক্ষিপ্ত যাত্রাবিরতি করেন।

শেখ হাসিনা যুক্তরাজ্যে রাষ্ট্রীয় সফরে ১৫ সেপ্টেম্বর লন্ডন যান যেখানে তিনি রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া এবং রাজা চার্লস তৃতীয় কর্তৃক আয়োজিত অভ্যর্থনায় যোগ দেন।

১৯ সেপ্টেম্বর তিনি নিউ ইয়র্কের উদ্দেশ্যে লন্ডন ত্যাগ করেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালে তিনি ২৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৭তম অধিবেশনে ভাষণ দেন এবং এর পাশে বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

;