ধনী-গরিব সবার বিনামূল্যে ইফতার



রাকিবুল ইসলাম রাকিব, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)
ধনী-গরিব সবার বিনামূল্যে ইফতার

ধনী-গরিব সবার বিনামূল্যে ইফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে পৌর শহরের শহীদ হারুনপার্ক চত্বরে প্রতিদিন বিনামূল্যে দুই শতাধিক মানুষকে ইফতার করানো হয়।

মাহে রমজানের প্রথম দিন থেকেই দুস্থ মানুষদের জন্য এমন ইফতার কর্মসূচির আয়োজন করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘এসো গৌরীপুর গড়ি’। তবে কিছুদিনের মধ্যেই এই ইফতার সর্বজনীন হয়ে উঠেছে। বিনামূল্যে এই ইফতার আয়োজন চলবে রমজানের শেষ দিন পর্যন্ত।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, শহীদ হারুন পার্কের ফটকে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে লেখা রয়েছে সবাই মিলে ইফতার। হারুনপার্ক চত্বরে সামিয়ানা ও ত্রিপল বিছিয়ে এই ইফতার আয়োজন করা হয়।প্রতিদিন ইফতারের সময় ঘনিয়ে এলেই সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকরা মাইকিং করে ইফতারে অংশ গ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানায়। আজান হওয়ার সাথে সাথে শ্রমজীবী, অসহায়, দুস্থ সহ নানা শ্রেণির মানুষ এক কাতারে বসে ইফতার করে।

ইফতারে খাওয়ানো হয় রান্না করা খিচুড়ি, খেজুর ও শরবত। সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা নিজেরাই এখানে খাবার পরিবেশন করেন। সংগঠনের সদস্যদের চাঁদা ও বিত্তবানদের অনুদানে এই ইফতার আয়োজন করা হয়।

প্রথমদিকে এই ইফতার আয়োজনে দুস্থ ও অসহায়রা অংশগ্রহণ করতো। পরবর্তীতে নানা শ্রেণির মানুষ এখানে আসতে শুরু করে। ভেদাভেদ ভুলে ধনী-গরিব সবাই এক কাতারে বসে ইফতার করে এখানে। সবাই মিলে উৎসব আনন্দের পরিবেশে প্রতিদিন শহীদ হারুনপার্ক চত্বর পরিণত হয় ইফতার মিলনমেলায়।

এসো গৌরীপুর গড়ির প্রধান সমন্বয়কারী আবু কাউছার চৌধুরী রন্টি বলেন,করোনাকালে আমরা দুস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্যাকেট জাত ইফতার খাবার বিতরণ করি। তবে ২০২২ সালে‘সবাই মিলে ইফতার’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ইফতার কর্মসূচির উদ্যোগ নেই। একসাথে বসে সবাই ইফতার করলে সম্প্রীতি বাড়বে এটাই আশাবাদ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফৌজিয়া নাজনীন বলেন, এসো গৌরীপুর গড়ির ইফতার আয়োজনটা প্রশংসার দাবিদার। সকল ভেদাভেদ ভুলে নানা শ্রেণির মানুষ এখানে বসে ইফতার করছে। এই সম্প্রীতির বার্তা ছড়িয়ে পড়া উচিত।

 

রাজশাহীতে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহীতে গোসল করতে পুকুরে নেমে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর হেতেম খাঁ ছোট মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশুরা হলো- নগরীর বোয়ালিয়া থানার হেতেম খাঁ ছোট মসজিদ এলাকার গোবিন্দর ছেলে অনন্ত (৬) ও একই এলাকার নিরেনের ছেলে নির্ঝর (৯)। দুজনেই হেতমখাঁ আজিজুর রহমান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। নির্ঝর দ্বিতীয় শ্রেণি আর অনন্ত প্রথম শ্রেণির ছাত্র।

নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হেতেমখাঁ কবরস্থান সংলগ্ন পুকুরে নিহত শিশুরা গোসল করতে নামে। এক পর্যায়ে তারা পানিতে ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা শিশুদের একজনকে মৃত ও অপর জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন। আহত শিশুটিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেছে। শিশুদের মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ দাফনের জন্য স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

;

ভারত এখন আ.লীগের প্রতি প্রসন্ন না: হাসনা মওদুদ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ভারত এখন আ.লীগের প্রতি প্রসন্ন না: হাসনা মওদুদ

ভারত এখন আ.লীগের প্রতি প্রসন্ন না: হাসনা মওদুদ

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারত এখন আওয়ামী লীগের প্রতি প্রসন্ন না বলে মন্তব্য করেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও উপ-রাষ্ট্রপতি এবং বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সদস্য মরহুম ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের সহধর্মিণী সাবেক এমপি হাসনা জসীম উদ্দীন মওদুদ।  তিনি বলেন, আজকে দেশতো আমরা ভারতের হাতে দিয়েই দিয়েছি।  না চাইতে অনেক কিছু ভারত পেয়েও তারা এখন আওয়ামী লীগের প্রতি প্রসন্ন না। তারা জানে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রকে শ্রদ্ধা করেনা। একচেটিয়া ভাবে রাতের বেলা ভোটের অধিকার হরণ করে। মওদুদ সাহেবকে রাস্তায় বের হতে দেয়নি, বাজারে যেতে দেয়নি। এই কথা গুলো ভুলে গেলে চলবেনা।  এই কথা গুলো আওয়ামী লীগের আসল ইতিহাস।

মঙ্গলবার (৩০ মে) দুপুর ১টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব মোহাম্মদনগর গ্রামে মওদুদ আহমদের নিজ বাড়িতে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে কোম্পানীগঞ্জ-কবিরহাট উপজেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠন। 

আমেরিকার প্রসঙ্গ টেনে দলীয় নেতাকর্মিদের হাসনা মওদুদ বলেন, আমেরিকা থেকে আপনারা শুনেছেন, যদি কেউ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠানে বাধা দেয় তাহলে তার বংশধরকে কোন দিন আমেরিকায় ঢুকতে দিবেনা। এবং এটা বিরাট থাপ্পড়। কারণ এদের সবার ছেলে মেয়ে বিদেশে বাস করে।  গণতন্ত্রে কেউ যদি বাধা দেয় আপনারা শুধু ছবি তুলবেন,ভিডিও করবেন।  এ ছবি গুলো সব পশ্চিমা অ্যাম্বাসেডদের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।  আমার (বাসা) ভাড়াটিয়া হলো আমেরিকান অ্যাম্বাসেডর। সুতারাং সে এ জায়গার খবর রাখবে। রাখবেনা,নিশ্চয় রাখবে। আমি আমার কাগজ পত্র সব সময় তার কাছে পাঠায়। আমার এলাকায় যদি কোন কিছু হয়। সব চেয়ে আগে খবর যাবে আমেরিকান অ্যাম্বাসেডরের কাছে।  আপনারা সবাই নির্বঘ্নে নির্দিদ্বায় ভোট করবেন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য। বাংলাদেশের গণতন্ত্র উদ্ধার প্রথম শুরু হবে নোয়াখালী ৫ আসন থেকে।   

সাবেক এমপি হাসনা মওদুদ বলেন,জিয়াউর রহমান তার জীবন দান না করলে এ দেশকে আমরা স্বাধীন ভাবে পেতাম না।  আজকে আমাদের কর্তব্য বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা। তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা। তার উপযুক্ত সন্তান তারেককে দেশে ফিরে এসে রাজনীতি করার সুযোগ করে দেওয়া। এ সময় তারেককে কেন এত ভয়,এমন প্রশ্ন রাখেন হাসনা মওদুদ। 

জিয়াউর রহমানের সঙ্গে ব্যক্তি গত স্মৃতিচারণ করে হাসনা মওদুদ বলেন, তিনি অত্যন্ত লাজুক হ্যান্ডসাম ছিলেন। মওদুদ আহমেদ জিয়াউর রহমানের একনিষ্ঠ-ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক বন্ধু ছিলেন এবং অনেক ভালোবাসতেন শ্রদ্ধা করতেন। অনেক রাতে জিয়াউর রহমান আমাদের ছোট্র বাসায় ফোন করতেন। আমাদের ছোট বাচ্চা ছিল। আমি একদিন ফোন ধরে বললাম আপনি এতো রাতে ফোন করেছেন। আমারও সাহস কমনা। ঊনি একটু লজ্জা পেয়ে আর ফোন করেন নাই।

হাসনা মওদুদ আরও বলেন, আজকে যে যাই বলুক অনেকে শুনেছে শহীদ জিয়া ঘোষণা দিয়েছেন স্বাধীনতার।  তার এক ডাকে পুলিশ,আর্মি সবাই  একত্রিত হয়ে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশ স্বাধীন করেছিল। ১৯৭১ সালের জুন মাস পর্যন্ত শহীদ জিয়া ছিলেন সেক্টর কমান্ডার-১। তারপর তিনি ছিলেন জিয়া ফোর্সের হেড। বাংলাদেশী ন্যাশনাল ইজমের প্রবক্তা ছিলেন জিয়াউর রহমান। সংবিধানে তিনি বিসমিল্লাহ সংযোজন করেছেন।  আর্মি-পুলিশে শৃঙ্খলা আনলেন। এরপর মুক্ত করলে খবরের কাগজ। চারটি খবরের কাগজ ছাড়া সব পত্রিকা শেখ মুজিবুর রহমানের সময় বন্ধ ছিল।  বাংলাদেশের সাংবাদিকেরা আজ প্রকাশ্যে সাংবাদিকতা করতে পারছে জিয়াউর রহমানর মুভমেন্টের কারণে।

তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমানের সংকটময় মুর্হূতে মওদুদ তার সাথে ছিলেন। রাতের বেলা তিনি ফোন করে করে সব খবর নিতেন। এমন একজন রাষ্ট্রপতি আমরা রাখতে পারলাম না। তাকে হারাতে হলো। আজকে জিয়াউর রহমান বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ কোথায় উঠে যেত। শ্রমিকদের নিয়ে,কৃষি নিয়ে কথা বলতেন। ইন্ডাস্ট্রি গুলোকে মুক্ত করেছেন। তিনি সার্কের স্বপ্নদ্রষ্টা।   

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ফোরকান ই আলমের সভাপতিত্বে ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব মাহমুদুর রহমান রিপনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, নোয়াখালী জেলা বিএনপির সদস্য মোহাম্মদ গোলাম মোমিত ফয়সাল, কবিরহাট উপজলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবদুর রহমান,কবিরহাট পৌরসভা বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মঞ্জু, কবিরহাট উপজেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল হুদা ফরহাদ,বসুরহাট পৌরসভা বিএনপি নেতা জামাল উদ্দিন টিপু, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক হোসেন মোহাম্মদ এরশাদ প্রমূখ।

 

;

আরও ৩ দিনের রিমান্ডে বিএনপি নেতা চাঁদ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকি’ দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাইদ চাঁদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৩০ মে) দুপুরে রাজশাহী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৪ এর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব আলম এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিন রাজশাহী জেলা পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক পরিমল কুমার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মঙ্গলবার সকালে পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে বিএনপি নেতা আবু সাঈদ চাঁদকে আদালতে হাজির করা হয়। এসময় পুলিশের পক্ষ থেকে আরও ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। পরে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বেলা ১১টার দিকে নগরীর কোর্ট ভেড়িপাড়া এলাকা থেকে বিএনপি নেতা চাঁদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওইদিন দুপুরে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ মে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার শিবপুর হাইস্কুল মাঠে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ হয়। ওই সমাবেশে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কবরস্থানে পাঠানোর হুমকি দেন।

বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরে ২১ মে রাতে রাজশাহীর পুঠিয়া থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে বাদী হয়ে একটি মামলা করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ। যেখানে আসামি করা হয় বিএনপি নেতা আবু সাঈদ চাঁদকে।

পরদিন ২২ মে সন্ধ্যায় সন্ত্রাস দমন আইনে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আরমান হোসেন বাদী হয়ে আরও একটি মামলা করেন। ২৩ মে নাটোরে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও চাঁদের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এদিকে, ২৪ মে চাঁদসহ দলের পাঁচ নেতার বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আদালতে মানহানির মামলা দায়ের করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেওয়ার ঘটনায় দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিএনপির এই নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

;

ইসলামী ব্যাংকের ৪টি সেবার উপর কর্মশালা অনুষ্ঠিত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের উদ্যোগে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে আয়োজিত ব্যাংক ও এজেন্ট আউটলেটের কর্মকর্তাদের নিয়ে রেমিট্যান্স প্রদান, বিআরইবি অটোমেশন, এমক্যাশ এজেন্ট অ্যাপ এবং পার্সোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট নামে চালুকৃত নতুন প্রোডাক্টের পরিচালন বিষয়ক এক কর্মশালা ৩০ মে ২০২৩, মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর (চলতি দায়িত্ব) মুহাম্মদ কায়সার আলী প্রধান অতিথি হিসেবে এ কর্মশালার উদ্বোধন করেন।

সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ মাকসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এ কে এম মাহবুব মোর্শেদ।

;