‘এক্সক্লুসিভ জোনে থাকবে ক্যাসিনোর ব্যবস্থা’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সচিব মো. মহিবুল হক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সচিব মো. মহিবুল হক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিদেশি পর্যটকদের জন্য এক্সক্লুসিভ জোনে ক্যাসিনোর ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সচিব মো. মহিবুল হক।

তিনি বলেছেন, ‘বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা ও কক্সবাজারে এক্সক্লুসিভ টুরিস্ট জোন হবে। সেখানে ক্যাসিনোর ব্যবস্থা থাকবে। অন্যান্য দেশে পাসপোর্ট দিয়ে ক্যাসিনোতে যেতে হয়। আমাদের দেশেও ক্যাসিনোতে পাসপোর্ট দিয়ে ঢুকতে হবে। বিদেশিদের জন্যই এটা হবে। তবে ঢাকায় অবৈধ ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে চলমান অভিযানের সঙ্গে আমরা একমত।’

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০১৯ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সচিব বলেন, ‘টুরিজমের ক্ষেত্রে আমরা উল্লেখযোগ্য কোনো ভূমিকা রাখতে পারিনি। তবে আমরা সেটি করতে চাই। আমরা মাস্টারপ্ল্যান চূড়ান্ত করে ফেলেছি। এ মাসে ওয়ার্ক অর্ডার দিয়ে দেব। আমদের দেশে কতজন বিদেশি পর্যটক আসছে, সেটি আমরা দেখছি। তবে হিসাব মতে গত এক বছরে দেড় থেকে দুই লাখের বেশি বিদেশি ভ্রমণে এসেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সুন্দরবন বিশ্বে দ্বিতীয়টি নেই। সেখানে আমরা বিদেশিদের জন্য তেমন কিছু করতে পারিনি। তাদের জন্য এক্সক্লুসিভ টুরিস্ট জোন করার উদ্যোগ নিয়েছি। কক্সবাজারেও এক্সক্লুসিভ টুরিস্ট জোন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, ‘প্রতিবছর ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত হচ্ছে। এবারের প্রতিপাদ্য 'ভবিষ্যতের উন্নয়নে, কাজের সুযোগ পর্যটনে’। দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে দেশের মধ্যে ভ্রমণের জাগরণ তৈরি করা। মানুষকে পর্যটনে সম্পৃক্ত করা। বাইরের দেশের মানুষ যাতে বাংলাদেশের ভ্রমণে আগ্রহী হয় সেদিকে নজর দিয়েছি।’

পর্যটনের উন্নয়নে মহাপরিকল্পনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি কিভাবে পর্যটনকে আরও বিকশিত করা যায়। সুন্দরবনে আমরা বুয়েট কর্তৃক সার্ভে করেছি, তাদের রিপোর্ট চূড়ান্ত পর্যায়ে। বিদেশিদের ভ্রমণ যেন আরও উপভোগ্য হয় আমরা সে ব্যবস্থা নেব। কক্সবাজারেও বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

আপনার মতামত লিখুন :