রংপুর-৩ আসনে মক ভোটে সাড়া নেই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, রংপুর
কেন্দ্রে অলস সময় পার করছেন কর্মকর্তারা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কেন্দ্রে অলস সময় পার করছেন কর্মকর্তারা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিন-ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট প্রদানে ভোটারদের সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করতে রংপুরে চলছে মক ভোট। বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) সকাল দশটা থেকে রংপুর-৩ শূন্য আসনের প্রতিটি কেন্দ্রে এ ভোট গ্রহণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

সকাল থেকে রংপুর মহানগরীর বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটারদের মধ্যে মক ভোট নিয়ে তেমন সাড়া নেই। কেন্দ্রে অলস সময় পার করছেন ভোট গ্রহণ কর্মকর্তারা। আর কেন্দ্রগুলোর বাহিরে নেই মক ভোটিং নিয়ে তেমন প্রচার প্রচারণা।

বেলা ১১টা ৪৮ মিনিটে সাবেক রাষ্ট্রপ্রধান এরশাদের পৈত্রিক নিবাস স্কাইভিউ সংলগ্ন সমাজকল্যাণ বিদ্যাবিথী স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে মাত্র ১ জন ভোট প্রদান করেছেন। এখানকার ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা মুহম্মদ আশরাফ হোসেন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে, সকাল থেকে আমরা ভোট গ্রহণের জন্য এখানে আছি। এখন পর্যন্ত এই কেন্দ্রের ১ হাজার ২৭৫ জন ভোটারের মধ্যে মাত্র ১ জন পুরুষ ভোটার এসে ভোট প্রদান করেছন।

দুপুর ১টা ২০মিনিটে সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা ইকবাল জাভীদ জানান, ওই কেন্দ্রে ২ হাজার ৭১ জন ভোটারের মধ্যে ২টি ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ভোটার উপস্থিতি বা সাড়া কোনটাই মিলছে না। তবে কেন্দ্রের বাহিরে ভোটারদের ডেকে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

এদিকে সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত একই চিত্র দেখা গেছে লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে। সেখানে কেবল ২ জন ভোট প্রদান করেছে। সালেমা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩ জন, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৩ জন এবং মুলাটোল আলিয়া মাদ্রাসাতে ৪ জন ভোট প্রদান করেছেন।

অন্যদিকে দুপুর আড়াইটার দিকে আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘ওই কেন্দ্রের ৩ হাজার ৯৪২ জন ভোটারের মধ্যে ১১ জন ভোট প্রদান করেছেন। তবে বিকেলে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে পারে বলে জানান তিনি।

এদিকে কেন্দ্রগুলোতে মক ভোট দিতে আসা ভোটারদের মধ্যে পুরুষ ভোটারদেরই দেখা মিলছে। কোনো কেন্দ্রে নারী ভোটারের উপস্থিতির তথ্য পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জি.এম সাহাতাব উদ্দিন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘ভোটারদের সচেতন ও ভোটদানে উদ্বুদ্ধ করতে আমাদের কার্যক্রমে কোন ঘাটতি নেই। কয়েকদিন ধরে নির্বাচনী এলাকাতে মক ভোটের ব্যাপারে মাইকিং ও প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে। মিডিয়ার মাধ্যমেও সবাইকে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে রংপুর-৩ শূন্য আসনে আগামী ৫ অক্টোবর উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সংসদের গুরুত্বপূর্ণ এই আসনে ছয় প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এখানে ১৭৫টি ভোটকেন্দ্রের ১ হাজার ২৩ গোপন কক্ষে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন ৪ লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন ভোটার।

আপনার মতামত লিখুন :