৪ বছরে ২১,৩৮৬ সড়ক দুর্ঘটনা, নিহত ২৯,৩১৫

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতের চিত্র

সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতের চিত্র

  • Font increase
  • Font Decrease

২০১৫ সাল থেকে সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী বিগত ৪ বছরে ২১,৩৮৬টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৯,৩১৫ জন নিহত ও ৬৯,৪২৮ জন আহত হয়েছে। তবে সড়ক দুর্ঘটনার বেশির ভাগই সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয় না বলে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

সোমবার (২১ অক্টোবর) জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানায় সংগঠনটি।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৫ সালে ৬,৫৮১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৮,৬৪২ জন নিহত এবং ২১,৮৫৫ জন আহত; ২০১৬ সালে ৪,৩১২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৬,০৫৫ জন নিহত এবং ১৫,৯১৪ জন আহত; ২০১৭ সালে ৪,৯৭৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৭,৩৯৭ জন নিহত এবং ১৬,১৯৩ জন আহত; ২০১৮ সালে ৫,৫১৪টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৭,২২১ জন নিহত এবং ১৫,৪৬৬ জন আহত হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বিগত ৪ বছরে সংঘটিত সড়ক দুর্ঘটনায় সর্বমোট ৩১,০৯৪টি যানবাহন আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে ২১.৩৩ শতাংশ বাস, ২১.১৮ শতাংশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান, ৬.৮৭ শতাংশ কার-জিপ-মাইক্রোবাস, ১৪.২৫ শতাংশ অটোরিকশা, ১৮.৩৩ শতাংশ মোটরসাইকেল, ৯.১৮ শতাংশ ব্যাটারি চালিত রিকশা, ৮.৮৩ শতাংশ নছিমন-করিমন ও ট্রাক্টর সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

বিবৃতিতে যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, আমাদের পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে বর্তমান সরকারের সময়ে সড়ক-মহাসড়কে উন্নয়নের ফলে যানবাহনের গতি বেড়েছে। এই সময়ে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো এবং বিপজ্জনক অভারটেকিং বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা বাড়ছে।

আয়তন ও জনসংখ্যার ঘনত্বের তুলনায় বাংলাদেশে যেভাবে ছোট যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে তা দ্রুত নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে দুর্ঘটনা ও যানজট নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়বে বলে জানায় সংগঠনটি।

আপনার মতামত লিখুন :