বাড়ছে পানি, বাড়ছে আতঙ্ক!

  ঘূর্ণিঝড় বুলবুল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর. কম, খুলনা
নদীতে পানি বাড়ছে

নদীতে পানি বাড়ছে

  • Font increase
  • Font Decrease

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে বৃহত্তর খুলনায় দমকা বাতাসের সঙ্গে ঝড়ো বৃষ্টিপাত হচ্ছে। সন্ধ্যার পর অন্ধকার হতেই মানুষের মধ্যে বাড়তে শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আতঙ্ক। চারদিকে বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা। রাস্তাঘাটে মানুষের উপস্থিতি নেই।

শনিবার (৯ নভেম্বর) সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এ অঞ্চলের আকাশে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টিপাত হচ্ছে। একই সাথে উপকূলের নদীগুলোতে পানির উচ্চতা বাড়ছে। পানির উচ্চতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক। উপকূলীয় এসব অঞ্চলের মানুষের ভয়, পানি বাড়লেই যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে। সেই সঙ্গে জলোচ্ছ্বাসের ভয় তাড়া করছে উপকূলবাসীকে। তাই রাত বাড়ার সাথে সাথে উপকূলীয় এসব এলাকার বাসিন্দারা প্রাণের মায়ায় নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটছে। এদের মধ্য‌ে কেউ কেউ স্থানীয় আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন আবার কেউ কেউ বাঁধের উপরে আশ্রয় নিচ্ছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহত্তর খুলনার দাকোপ-কয়রা-পাইকগাছা-সাতক্ষীরা-মংলার উপকূলের লক্ষাধিক মানুষ ঝড়ের আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে। যে কোনো মুহূর্তে ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের আশঙ্কা করছেন অনেকে।

মংলা উপজেলার দিগরাজের বাসিন্দা আব্দুল হক বার্তাটোয়েন্টিফোর. কম কে বলেন, সারাদিন গুমোট আবহাওয়া ছিলো। সন্ধ্যার পর থেকে এখানের সব নদী আর খালে পানি বাড়তে শুরু করছে। পানি বাড়লেই ভয় করে, সব কিছু ভাসায়ে নিতে পারে তাই।

বাগেরহাট পাউবো'র নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিদ উজ জামান খান বার্তাটোয়েন্টিফোর. কম কে বলেন, নদীতে পানি কিছুটা বেড়েছে। রাত ৯টায় স্বাভাবিকের থেকে .০৪ মিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছিলো। ধারণা করা যাচ্ছে, রাত ১২টার পরে ১মিটার বা তার থেকে বেশি পানি বৃদ্ধি পেতে পারে। যা ডেঞ্জার লেভেল ক্রস করতে পারে।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি তৎপর আছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার লোকদের নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এছাড়াও উপকূলীয় অঞ্চলে মাইকিং করা হচ্ছে। তবে বেশীরভাগ লোকই ঝড়ের জন্য অপেক্ষা করছে। আগে থেকে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে চায় না কেউ।

তিনি আরও জানান, দুযোর্গ পরবর্তী প্রস্তুতি হিসেবেও শুকনো খাবার, টিআর চাউল, নগর অর্থ ও ঢেউটিন মজুদ রয়েছে। মাঝি ও উপকূলবাসীদের সতর্ক করতে চলছে মাইকিং।

আপনার মতামত লিখুন :

  ঘূর্ণিঝড় বুলবুল