স্কুলে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার কমেছে: শিক্ষামন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
এসডিজি-এডুকেশন ২০৩০ এর সপ্তম অধিবেশনে শিক্ষামন্ত্রী, ছবি: সংগৃৃহীত

এসডিজি-এডুকেশন ২০৩০ এর সপ্তম অধিবেশনে শিক্ষামন্ত্রী, ছবি: সংগৃৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, 'বাংলাদেশ সরকার স্কুল শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার উল্লেখযোগ্যভাবে কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। গত ১০ বছরে বাংলাদেশে স্কুল শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার ৪৭ শতাংশ থেকে ১৮ শতাংশে নেমে এসেছে। স্কুল ঝরে পড়া রোধে বাংলাদেশ সরকার স্কুল ফিডিং এবং বৃত্তির ব্যবস্থা করেছে।'

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) প্যারিসে ইউনেস্কোর সদর দফতরে সংস্থাটির ৪০তম জেনারেল কনফারেন্সের অংশ হিসেবে এসডিজি-এডুকেশন ২০৩০ এর সপ্তম অধিবেশনে এসব কথা বলেন। সেশন সভাপতি ইউনেস্কোর এসডিজি স্টেফানিয়া জিয়ানিনি শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশের ঈর্ষণীয় সাফল্যের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে কিছু বলার আহ্বান জানান।

এর আগে, সকালে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ইউনেস্কোর ৪০তম জেনারেল কনফারেন্সের উদ্বোধন করেন।

এ সময় ই-নাইন এর প্রতিনিধি হিসেবে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইন উপস্থিত ছিলেন। আরও উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন এবং বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল মো. মনজুর হোসেন।

দীপু মনি বলেন, 'এসডিজি-৪ এর আওতায় সবার জন্য মানসম্মত শিক্ষা অর্জনে সরকার খুব গুরুত্ব দিচ্ছে এবং বাংলাদেশ এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সাফল্যও অর্জন করেছে। বর্তমানে বাংলাদেশ প্রাইমারি শিক্ষায় এনরোলমেন্টের হার ৯৮ শতাংশ এবং ছেলে শিক্ষার্থীর তুলনায় মেয়ে শিক্ষার্থীর পরিমাণ বেশি।'

এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশের কমিটমেন্টের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) এসডিজি অর্জন সংক্রান্ত কার্যক্রম মনিটরিং করার জন্য একজন সিনিয়র আমলাকে নিয়োগ দিয়েছেন।'

আপনার মতামত লিখুন :