পরিবহন ধর্মঘট দুর্ভোগে যাত্রীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, খুলনা
ধর্মঘটের কারণে বাস চলাচল বন্ধ, অপেক্ষমাণ যাত্রীরা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ধর্মঘটের কারণে বাস চলাচল বন্ধ, অপেক্ষমাণ যাত্রীরা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু করেছে খুলনার বাস চালক ও শ্রমিকরা।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকাল থেকেই খুলনা থেকে সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এর আগে রোববার (১৭ নভেম্বর) ধর্মঘটের শুরুতে শুধুমাত্র সাতক্ষীরা-পাইকগাছা রুটে বাস চলাচল বন্ধ ছিলো।

এদিকে সকাল থেকে অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার সকল বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। সকাল থেকে খুলনা নগরীর রয়্যাল মোড় ও সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। উপায় না পেয়ে অনেকে আবার ইজিবাইক, মটর সাইকেল, প্রাইভেটকার, মাইক্রো বাস, পিকআপ ভাড়া করে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাচ্ছেন। পরিবহন ধর্মঘটের এই সুযোগে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া হাতিয়ে নিচ্ছেন বিকল্প যানবাহন চালকরা।

সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনালে পিরোজপুরের যাত্রী আহমেদ ইকবাল বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, সকাল থেকে দাঁড়িয়েছিলাম কোনো বাস পাইনি, এখন ভেঙে ভেঙে যেতে হবে যাতে খরচ বেশি পড়বে সময়ও লাগবে বেশি।

টার্মিনাল থেকে বের হচ্ছেনা কোনো বাস

কুষ্টিয়ার যাত্রী রিনা পারভীন বলেন, আমি যেদিকে যাবো ওদিকে বাস ছাড়া আর কিছুই যায় না। সকাল থেকে এসে দাঁড়িয়েছি, কোনো কিছু পাইনি। বাস যাচ্ছে না, কিভাবে যাবো বুঝতে পারছিনা। আজ যেতেই হবে, না গেলে পরীক্ষা মিস করবো।

সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শ্রমিক নেতা ইলিয়াস হোসেন সোহেল বার্তাটেয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, খুলনা থেকে সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ আছে। শ্রমিকদের দাবি না মানলে আমরা বাস ছাড়বোনা। নতুন পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে এ ধর্মঘট চলছে। শ্রমিকদের পক্ষে আইন সংশোধনের দাবিও জানান তিনি।

খুলনা বাস-মিনিবাস কোচ মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সোনা বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, শ্রমিকরা তাদের সংগঠনের দাবিতে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে। পরিবহন আইন সংশোধনসহ আরো কিছু দাবি করেছে তারা।

আপনার মতামত লিখুন :