সচেতনতা বাড়াতে রিকশায় মনীষীদের বাণী

জহির রায়হান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বরিশাল
সচেতনতা বাড়াতে রিকশায় মনীষীদের বাণী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সচেতনতা বাড়াতে রিকশায় মনীষীদের বাণী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বরিশালে রিকশার পেছনে লাগানো হচ্ছে বিভিন্ন মনীষীদের বাণী। ইতোমধ্যে নগরীর প্রায় ২৫০ রিকশার পেছনে এসব বাণী সংবলিত ব্যানার প্যানাপ্লেক্সে প্রিন্ট করে লাগানো হয়েছে।

বাণীর মধ্যে রয়েছে- ‘মোরা এক বৃন্তে দুটি কুসুম, হিন্দু-মুসলমান, মুসলিম তার নয়ন মণি, হিন্দু তাহার প্রাণ’-কাজী নজরুল ইসলাম। ‘বর দুর্লভ হইয়াছে বলিয়া কন্যাদায়ে কাঁদিয়া মরি কেন? কন্যাগুলিকে সুশিক্ষিতা করিয়া কার্যক্ষেত্রে ছাড়িয়া দাও, নিজের অন্ন বস্ত্র উপার্জন করুক’-বেগম রোকেয়া। ‘আইন মাকড়সার জালের মতো, ক্ষুদ্র কেউ পড়লে আটকে যায়, বড়রা ছিঁড়ে বেরিয়ে আসে’-সক্রেটিস।

‘শ্রমিক শ্রেণির ঐক্য আবশ্যক। ঐক্য কার্যকরী হয় একক সংগঠন মারফত, যার সিদ্ধান্ত সমস্ত সচেতন শ্রমিক পালন করে, ভয়ের তাড়নায় নয়, বিবেকের তাড়নায়’-লেনিন। ‘বিজয়ের পথে আজীবন। হয় স্বদেশ নয় মৃত্যু, তুমি যদি প্রতিটি অবিচারের বিরুদ্ধে জ্বলে ওঠো, তাহলেই তুমি আমার একজন সহযোদ্ধা’-চে গুয়েভারা। ‘বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি, তাই আমি পৃথিবীর রূপ খুঁজিতে চাই না আর’-জীবনানন্দ দাশ

 রিকশায় চালকদের পছন্দ অনুযায়ী মনীষীদের বাণী সংবলিত পোস্টার

জানা গেছে, রিকশার পেছনে বিভিন্ন অহেতুক কথা এবং সিনেমার পোস্টার লাগানো থাকতো। যা দেখে মানুষের তেমন কোনো উপকার হতো না। এমনকি সেসব পোস্টার থেকে থেকে শেখার কোনো বিষয় থাকতো না। এসব পোস্টার বা ব্যানার সরিয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে মনীষীদের বাণী লাগানো হচ্ছে। বরিশাল রিকশা-ভ্যান চালক শ্রমিক ইউনিয়ন ও নাগরিক সমাজের অর্থায়নে গত ১৫ নভেম্বর শুরু হয় এ কার্যক্রম। পর্যায়ক্রমে প্রায় এক হাজার রিকশায় চালকদের পছন্দ অনুযায়ী মনীষীদের বাণী সংবলিত পোস্টার লাগানো হবে।

বরিশাল রিকশা-ভ্যান চালক শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি মো. দুলাল মল্লিক বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘আমি লেখাপড়া জানি না, তবে শিক্ষিত মানুষদের কদর করতে জানি। এ কারণেই আমি মণীষা দিদি’র কথায় রিকশার পেছনে সিনেমার পোস্টার লাগানো টিন খুলে লেলিনের বাণী সংবলিত একটি ব্যানার লাগিয়েছি।’

লেলিনের বাণীটি ছিল- ‘শ্রমিক শ্রেণির ঐক্য আবশ্যক। ঐক্য কার্যকরী হয় একক সংগঠন মারফত, যার সিদ্ধান্ত সমস্ত সচেতন শ্রমিক পালন করে, ভয়ের তাড়নায় নয়, বিবেকের তাড়নায়।’

রিকশা-ভ্যান চালক শ্রমিক ইউনিয়ন ও নাগরিক সমাজের অর্থায়নে শুরু হয় এ কার্যক্রম

মো. মাসুদ রানা নামে এক রিকশাযাত্রী বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘রিকশার পেছনে কবি জীবনানন্দ দাশের বাণী দেখে বেশ ভালো লাগছে। কারণ বাণীটি দেখে বরিশালের মানুষ কবি জীবননান্দ দাসকে একটু হলেও স্মরণ করবে।’

বাংলাদেশ এই উদ্যোগের উদ্যোক্তা ও সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) বরিশাল জেলা শাখার সদস্য সচিব ডাক্তার মনীষা চক্রবর্তী বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘রিকশার পেছনে অহেতুক কথাবার্তা লেখাসহ বিভিন্ন সিনেমার পোস্টার লাগানো থাকে, যা কোনো অর্থ বহন করে না। তাই আমি রিকশার পেছনে মনীষীদের বাণী সংবলিত ব্যানার লাগানো চিন্তা করি। যাতে মানুষের মাঝে বিভিন্ন বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পায়। কেননা এই বাণীগুলো দেশপ্রেম, মানবতা, আন্দোলন-সংগ্রাম ও জনসচেতনতা বাড়াতে সহায়তা করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রিকশা একটি প্রচলিত যানবাহন, যা নগরীর পাড়া-মহল্লা, অলি-গতিতে চলাচল করে। এ কারণেই রিকশার পেছনে এসব পোস্টার লাগানোর উদ্যোগ নেই।’

বরিশাল সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদ সভাপতি কাজল ঘোষ জানান, কিছুদিন ধরে বরিশালের বেশ কিছু রিকশার পেছনে মনীষীদের বাণী লেখা দেখছেন। মনীষীদের বাণী পড়লে মানুষের মধ্যে দেশপ্রেম ও চেতনাবোধ জাগ্রত হয়। এতে করে বরিশালের মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়াও এই বাণীগুলো শ্রমজীবী মানুষের সঙ্গে সম্পর্কিত।

আপনার মতামত লিখুন :