রুম্পা হত্যা: দুই দিনেও ক্লু পায়নি পুলিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা

  • Font increase
  • Font Decrease

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যার দুদিন পার হয়ে গেলেও ঘটনার রহস্য এখনো উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। এমন কি মামলা হওয়ার ৪৮ ঘণ্টা পার হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ক্লুই খুঁজে পায়নি পুলিশ। এছাড়া এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন কাউকে গ্রেফতারও করতে পারেনি।

এ সব বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বেশ কয়েকটি বিষয়কে সামনে রেখে তারা মামলার তদন্ত করছেন। এছাড়া ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে কিনা সেটিও এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাই এই মামলা সংক্রান্ত পর্যাপ্ত তথ্য সংগ্রহের কাজে ব্যস্ত এখন পুলিশ। তবে কাউকে গ্রেফতার করার মতো তথ্য এখনো তাদের হাতে আসেনি।

এদিকে রুম্পার স্বজনরা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠীরা অভিযোগ করে বলছেন, রুম্পা হত্যার সঙ্গে তার বয়ফ্রেন্ড সৈকত জড়িত থাকতে পারে। বেশ কিছুদিন ধরে সৈকতের সঙ্গে রুম্পার সম্পর্কের অবনতি হয়। বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় রুম্পাকে এড়িয়ে চলছিল সৈকত।

রুম্পার বয়ফ্রেন্ড সৈকত জড়িত থাকার অভিযোগেসহ সহপাঠী-বন্ধু বা পারিবারিক কোনো শত্রুতা কাজ করেছে কিনা হত্যাকাণ্ডে সে বিষয়গুলো ক্ষতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এ বিষয়ে রমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, রুম্পার ছেলেবন্ধু সৈকতের বিরুদ্ধে আমরা কিছু অভিযোগ পেয়েছি। প্রয়োজন হলে তাকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এ ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল বিষয়কে আমরা মাথায় রেখে তদন্ত করছি। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার না করা গেলেও দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যার রহস্য উন্মোচিত হবে আশা করছি।

উল্লেখ, বুধবার (৪ ডিসেম্বর) রাতে রাজধানীর রমনার সিদ্ধেশ্বরীর সার্কুলার রোডের ৬৪/৪ নম্বর বাড়ির সামনে থেকে রুম্পার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে রুম্পার বাবা পুলিশ পরিদর্শক রোকন উদ্দিন মর্গে বাদী হয়ে অজ্ঞাত পরিচয় আসামি করে রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

আপনার মতামত লিখুন :