সংগ্রাম পত্রিকার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ কঠোর ব্যবস্থা: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, ছবি: বার্তা২৪.কম

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ আখ্যা দিয়ে দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকায় খবর প্রকাশে সমালোচনা করে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, ‘এই পত্রিকার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ কঠোর ব্যবস্থা তথ্য মন্ত্রণালয় গ্রহণ করবে।’

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘সম্প্রীতি, বঙ্গবন্ধু ও বাঙালির বিজয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সম্প্রীতি বাংলাদেশ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিচার শুরু হয়েছে। বিচার থেমে নেই। আমরা কেউ বসে নেই। সবাই কথা বললে তো হবে না, কাউকে না কাউকে কাজ করতে হবে। বাংলাদেশে ভবিষ্যতে এ ধরনের দৃষ্টি যাতে কেউ দেখাতে না পারে সেই ব্যবস্থা সরকার গ্রহণ করবে।’

আরও পড়ুন: দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক ৩ দিনের রিমান্ডে

তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় সম্প্রীতি এ দেশে থাকবে, কেউ নষ্ট করতে পারবে না। যতদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকবেন, ততদিন কেউ বুদ্ধিজীবীদের নাম মুছে ফেলতে পারবে না। কেউ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে মুছে ফেলতে পারবে না।’

মুরাদ হাসান বলেন, ‘বাঙালি জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা বা অসাম্প্রদায়িক মোট চারটি মৌলিক স্তম্ভ সংবিধানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সারা জীবনের জন্য লিপিবদ্ধ করে দিয়ে গেছেন। অনেক জেনারেলরা ক্যান্টনমেন্টে বসে বসে এর কাটাছেড়া করেছেন, বাদ দিয়েছেন, সংযোজন করেছেন, বিয়োজন করেছেন। কিন্তু লাভ নেই। রক্ত দিয়ে কেনা এ স্বাধীন দেশে মূল স্তম্ভ বাদ দেওয়ার ক্ষমতা কারও নেই।

আরও পড়ুন: দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার

সম্প্রীতি বাংলাদেশের সদস্য সচিব মামুন আল মাহতাবের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ উল্লেখ করে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে ‘দৈনিক সংগ্রাম’ প্রত্রিকার অফিসে ভাঙচুর চালায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামের একটি সংগঠন। এসময় তারা মেইন গেটে তালা ঝুলিয়ে দেয়। সন্ধ্যায় পুলিশ পত্রিকার সম্পাদক মো. আবুল আসাদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। ওইদিন রাতে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আফজাল বাদী হয়ে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় সম্পাদকের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় তাকে তিন দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত।

আপনার মতামত লিখুন :