রংপুরে ফের শৈত্যপ্রবাহ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
বেলা বাড়লেও এখনও সূর্যের দেখা মেলেনি/ছবি: বার্তা২৪.কম

বেলা বাড়লেও এখনও সূর্যের দেখা মেলেনি/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

পৌষের হাড় কাঁপানো শীতের পর এবার মাঘেও রংপুরে জেঁকে বসেছে শীত। কয়েকদিন আবহাওয়া স্বাভাবিক থাকলেও চলতি সপ্তাহে ফের শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) রংপুরে তাপমাত্রা নয় ডিগ্রীর নিচে নেমে এসেছে। ভোর ছয়টা থেকে বেলা বারোটা পর্যন্ত এ জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বিগত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা ১১ থেকে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছিল।

আবহাওয়া অফিস বলছে, আগামী ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইতে পারে। বাড়বে ঘন কুয়াশাও।

এদিকে মঙ্গলবার ভোর থেকে ঘন কুয়াশা আর ঠান্ডা বাতাসের কারণে রংপুরে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে। প্রচন্ড ঠান্ডা বাতাসে দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছেন স্বল্প আয়ের মানুষেরা।

বেলা বাড়লেও এখনও দেখা মেলেনি সূর্যের। ঠান্ডায় মানুষজন সহসাই বাইরে বের হচ্ছে না। তবে শ্রম বিক্রি করে নিম্ন আয়ের মানুষ আর চাষিরা পড়েছে বিপাকে।

রংপুর সদরের পালিচড়া এলাকার দিনমজুর মনতাজুর রহমান বলেন, একদিন কাম না করলে মোর সংসার চলে না। সারাদিন মানুষের জমিতে কামলা দিয়্যা আয় উপার্জন করি। কিন্তু এই শীতে খুব কষ্ট হচ্ছে। একে তো কাপড়ের কষ্ট। তার ওপর কাজ কাম না করলে খাবার-দাবারের কষ্ট।

নগরীর পার্কের মোড়ের রিকশাচালক মিজান মিয়া জানান, প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে মানুষ বের হচ্ছে না। আগে রিকশা চালিয়ে দিনে ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা আয় রোজগার হত। এখন সারাদিনে ৩০০ টাকা আয় করাও খুব কষ্টদায়ক। ঠান্ডার কারণে আমাদের নিম্নআয়ের মানুষদের চরম কষ্টে দিনযাপন করতে হচ্ছে।

রংপুর আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মোস্তাফিজুর রহমান বার্তা২৪.কমকে জানান, মেঘলা আকাশ আজকেও থাকবে। তবে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা নেই। শীতের এই তীব্রতা আরো দুই-তিন দিন একই রকম থাকবে।

আপনার মতামত লিখুন :