প্রতিবন্ধীদের মাঝে মেয়র আতিকের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রতিবন্ধীদের মাঝে মেয়র আতিকের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

প্রতিবন্ধীদের মাঝে মেয়র আতিকের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা সংকটে অসহায় মানুষের পাশে মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। সবাই মিলে সবার ঢাকা প্লাটফর্মের মাধ্যমে অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে বৃস্পতিবার (০৭ মে) মেয়রের সবাই মিলে সবার ঢাকা প্লাটফর্মে খাদ্যসামগ্রী হস্তান্তর করেন জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দীন। পরে সেই খাদ্যসামগ্রী দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের হাতে তুলে দেন মেয়র ও মন্ত্রী।

বনানী বিদ্যা নিকেতন স্কুল মাঠে প্রতিবন্ধীদের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়ার আগে মন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ে পুরো বিশ্ববাসী আতঙ্কের মধ্যে আছে। সকলের সহযোগিতায় করোনা থেকে আমরা দেশকে রক্ষা করতে চাই।

দেশবাসীর উদ্দেশে তিনি বলেন, করোনার হাত থেরে রক্ষা পেতে হলে আপনারা যে নির্দেশনা জানেন, সে সকল নির্দেশনাগুলো মেনে চলবেন। মাস্ক পরিধান করবেন, ঘরে থাকবেন, বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হবেন না। যদি ঘরে থাকেন তাহলে আপনি বাঁচবেন, আপনার পরিবার বাঁচবে, এভাবে সমাজ বাঁচবে, গোটা দেশ বাঁচবে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রায় ১ কোটি মানুষকে প্রতি মাসে ২০ কেজি করে চাল দেওয়ার তালিকা করা হচ্ছে। আর্থিক প্রণোদনাও দেওয়া হচ্ছে। মানুষের কোনো কষ্ট হবে না। কাজেই সবাই যদি নিরাপদ দূরত্বে চলাফেরা করি তাহলে এই করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৫ মার্চ অদৃশ্য শক্তি করোনার প্রাদুর্ভাব মোকাবিলা করার জন্য ত্রাণের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান করেছিলেন। এরপর আমরা ২৬ মার্চ থেকে ত্রাণ কার্যক্রম শুরু করি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন যারা ঘর থেকে বের হতে পারে না, রাস্তা আসতে পারে না। যারা ঘরে থেকে কষ্টে ভুগছে তাদের কিভাবে ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে পারি। তার পরিপ্রেক্ষিতে সবাই মিলে সবার ঢাকা প্লাটফর্মের মাধ্যমে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে আমরা ত্রাণ পৌঁছে দিয়ে আসছি। আমাদের টার্গেট ছিল ৪৭ হাজার পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া। গতকাল পর্যন্ত আমরা তা দিয়েছি। এরইমধ্যে আমাদের ৭১ হাজারের তালিকা করে ফেলেছি। আমাদের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে। অসহায় মানুষের কাছে আমাদের এই ক্ষুদ্র উপহার পৌঁছে দিতে আজকের এই আয়োজন।

আপনার মতামত লিখুন :