লিচুর গুটিতে রঙিন স্বপ্ন দেখছেন নিলুফার ইয়াসমিন



মোসলেম উদ্দিন, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, হিলি (দিনাজপুর)
নিলুফার ইয়াসমিন।

নিলুফার ইয়াসমিন।

  • Font increase
  • Font Decrease

পাঁচ বিঘা জমিতে ৩টি লিচুর বাগান করেছেন। বাগানে মোট ১৭৫টি গাছ রয়েছে। এর মধ্যে ১০টি মাদ্রাজি, ৮০টি বোম্বাই, ৮৫টি চায়না থ্রি লিচু গাছ রয়েছে। গতবছরের মতো এবারো লিচুর বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। আর এই লিচু বিক্রি করেই স্বাবলম্বী হয়েছেন তিনি।

বলছিলাম দিনাজপুরের হিলি সীমান্তের ঘাসুরিয়া গ্রামের নিলুফার ইয়াসমিনের কথা। শুরুতে শখের বসে বাগান করেন তিনি। তবে বর্তমানে এই বাগানই তার আয়ের মূল উৎস। সংসারে স্বামী ও দুই মেয়ে রয়েছে তার।

সরেজমিনে দেখা গেছে, থোকায় থোকায় লিচুর ভারে হেলে পড়েছে ডাল। আর পাতার ফাঁকে দুলছে সবুজ লিচুর গুটি। এই লিচুর গুটিতেই রঙিন স্বপ্ন দেখছেন নিলুফার ইয়াসমিন। গত বছর ৪ লাখ টাকার লিচু বিক্রি করেছেন তিনি। খরচ হয়েছিল ১ লাখ টাকা।

বাগান মালিক নিলুফার ইয়াসমিন বলেন, ‘গতবারের চেয়ে এ বছর লিচুর ফলন ভালো হয়েছে। লিচু গাছে মুকুল আসার শুরু থেকে বিভিন্নভাবে পরিচর্যা করা হচ্ছে। আশা করছি এ বছরও লিচুর দাম ভালো পাব।’

জানা গেছে, হাকিমপুর (হিলি) উপজেলায় ১৩ হেক্টর জমিতে ১১০টি লিচু বাগান রয়েছে।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা কৃষি অফিসার শামীমা নাজনীন বার্তা২৪.কমকে জানান, এ বছর প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ না হওয়ায় লিচুর মুকুল ঝরে পড়েনি। আবহাওয়া ভালো থাকায় বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে প্রতিটি লিচু বাগান পরিদর্শন করছেন তারা। মে মাসের শেষের দিকে গাছ থেকে লিচু পাড়া যাবে।