ফেরিতে যাত্রী ওঠা নিষেধ, তবুও উপচে পড়া ভিড়

সোহেল মিয়া, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
দৌলতদিয়া অংশে ফেরি থেকে নামছে যাত্রীরা।

দৌলতদিয়া অংশে ফেরি থেকে নামছে যাত্রীরা।

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্যক্তিগত যাদের গাড়ি রয়েছে তারাই এবার গ্রামের বাড়িতে ঈদ করতে যেতে পারবে এমন শর্তে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দেশের সব মহাসড়ক থেকে চেকপোস্ট তুলে নিয়েছে। তবে এর ভিন্ন চিত্র দেখা গেছে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে।

গুরুত্বপূর্ণ এই নৌরুটের ফেরিগুলোতে ব্যক্তিগত গাড়ির থেকে সাধারণ যাত্রীর সংখ্যাই বেশি। প্রতিটি ফেরিই শতাধিক যাত্রী নিয়ে পাটুরিয়া ঘাট ছাড়ছে দৌলতদিয়ার উদ্দেশে।

শনিবার (২৩ মে) সকাল সাড়ে ৯টায় সরেজমিনে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের ৫নং পল্টুনে গিয়ে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

ওই সময় সরেজমিনে আরও দেখা গেছে, পাটুরিয়া প্রান্ত থেকে ছেড়ে আসা সন্ধ্যা মালতি ও শাহ আলী ফেরিতে প্রচুর যাত্রী ছিল। সামান্য কয়েকটি প্রাইভেটকার ছিল। তবে মোটরসাইকেলের সংখ্যা ছিল চোখে পড়ার মতো।

ফেরিতে যাত্রী ওঠানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের শাখা ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘ফেরিতে যাত্রী ওঠার বিষয়টি আমরা দেখি না। এটা প্রশাসন দেখবে।’

গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবায়েত হায়াত শিপলু বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘ফেরিতে যাত্রী ওঠা নিষেধ। তবে ফেরিতে পাটুরিয়া থেকে যাত্রী উঠছে এবং উপচে পড়া ভিড় রয়েছে। এ বিষয়টি সেখানকার প্রশাসনের দেখার কথা।’

এ বিষয়ে জানতে মানিকগঞ্জের শিবালয়ের উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে মোবাইল করলে তা রিসিভ করেননি তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :