চিকিৎসার নাম করে তরুণীকে ধর্ষণ, ভণ্ড কবিরাজ গ্রেফতার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার ফতুল্লার চিকিৎসার নাম করে এক তরুণীকে (২২) ধর্ষণের অভিযোগে ভণ্ড কবিরাজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই তরুণী মানসিক প্রতিবন্ধী বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) রাত ৩টার দিকে ফতুল্লার কাশিপুর এলাকায় ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতারকৃত কবিরাজের নাম আব্দুর রহিম প্রামণিক (৫৮)। সে সিরাজগঞ্জ জেলার রাণিখোলা পরগনার শফিউদ্দিন প্রামণিকের ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই তরুণীর বাবার সাথে তার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। নিজের মেয়ের মানসিক প্রতিবন্ধিতার বিষয়টি বন্ধু ভেবেই কবিরাজ রহিমকে বলে মেয়েটির বাবা। রহিম তাকে চিকিৎসার জন্য আশস্ত করে।

তার কথা মতো বুধবার রহিম প্রামণিক ওই যুবতির বাবার সাথে তাদের বাড়িতে আসে। এক পর্যায়ে চিকিৎসা শুরু হলে রাত ৯টার দিকে ওই যুবতির বাবার ঘর থেকে সবাইকে বের হতে বলে কবিরাজ। এরপর দরজা জানালা বন্ধ করে দেয়।

এসময় ধর্ষণের বিষয়টি তরুণীর পরিবার বুঝতে পারলে দরজা খুলে দৌড়ে পালিয়ে যায় কবিরাজ রহিম প্রামণিক। খবর পেয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের একটি টিম রহিম প্রামণিককে গ্রেফতার করে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন বার্তা ২৪.কমকে জানান, ধর্ষণের পর কবিরাজ পালিয়ে গেলেও পরে ওই এলাকা থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :