রংপুরে করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন ৯০ বছরের বৃদ্ধ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন ৯০ বছরের বৃদ্ধ।

করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন ৯০ বছরের বৃদ্ধ।

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। হাসপাতালটি থেকে বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) আরও পাঁচজনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে ৯০ বছর বয়সী একজন বৃদ্ধ রয়েছেন।

এদিকে নতুন পাঁচজনসহ এই হাসপাতাল থেকে ৭৩ দিনে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৭১ জন। বর্তমানে হাসপাতালে ৩১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) দুপুরে করোনাজয়ী নতুন পাঁচজনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। এ সময় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ চিকিৎসকরা আনুষ্ঠানিকভাবে ফুল ও চিঠির মাধ্যমে শুভেচ্ছা প্রদান করাসহ করতালি দিয়ে তাদের বিদায় জানান।

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরাদের মধ্যে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ীর ৯০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ ও তার ছেলে, গাইবান্ধা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক, রংপুর মেডিকেল কলেজের সিনিয়র স্টাফ নার্স এবং রংপুর নগরীর একজন রয়েছেন। এর আগে গত সোমবার ও মঙ্গলবার (২৯ ও ৩০ জুন) দুইদিনে আরও ১৪ জন করোনাজয়ীকে ছাড়পত্র দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এস.এম নূরুন নবী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ছাড়পত্রপ্রাপ্ত নতুন পাঁচজন ব্যক্তি এখন পুরোপুরি সুস্থ ও করোনামুক্ত।

তিনি আরও জানান, হাসপাতাল উদ্বোধনের পর থেকে গেল ২ মাস ১৩ দিনে এখানে ২১৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি হন। এদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ১১ জন। আর ৩ জনকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে।

আজকের পাঁচজনসহ মোট ১৭১ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩১ জন রোগীর মধ্যে পাঁচজনকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। এই হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সুস্থতার হার ৮১ শতাংশ।

উল্লেখ্য, গত ১৯ এপ্রিল নবনির্মিত ১০০ শয্যার রংপুর শিশু হাসপাতালকে করোনাকালে ব্যবহারের জন্য ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল হিসেবে উদ্বোধন করা হয়। তিনতলা বিশিষ্ট এই হাসপাতালটিতে রংপুর বিভাগের করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :