মুজিববর্ষ উপলক্ষে গুলশানে ৫০০০ গাছের চারা রোপণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

মুজিববর্ষকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে এক কোটি গাছের চারা রোপণ কর্মসূচির চালু করেন। সরকারের এই কর্মসূচিতে অনুপ্রাণিত হয়ে রাজধানীর গুলশান সোসাইটি বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। আর এই কর্মসূচী বাস্তবায়নে ৫ হাজার গাছের চারা বিনামূল্যে সরবরাহ করেছে বিএটি বাংলাদেশের 'বনায়ন' প্রকল্প ।

শনিবার (জুলাই ২৫) বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ঢাকা-১১ আসনের সংসদ সদস্য এ.কে.এম রহমতুল্লাহ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ্ত চক্রবর্তী, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশের লিগ্যাল অ্যান্ড এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান মুবিনা আসাফ, গুলশান সোসাইটির সেক্রেটারি ব্যারিস্টার সারওয়াত সিরাজ সহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী বক্তব্যে সংসদ সদস্য এ.কে.এম রহমতুল্লাহ বলেন, ''পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের গুরুত্ব অপরিসীম। এদিক বিবেচনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীকে সারা দেশে এক কোটি গাছের চারা রোপনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। মহতী এই উদ্যোগে সামিল হয়ে সহযোগিতা করার জন্য বিএটি বাংলাদেশ এবং গুলশান সোসাইটিকে আমি সাধুবাদ জানাই।''

এ বিষয়ে বিএটি বাংলাদেশের লিগ্যাল অ্যান্ড এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান মুবিনা আসাফ বলেন, "মুজিববর্ষে গুলশান সোসাইটির বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমে আমাদের বনায়ন কর্মসূচির মাধ্যমে ফলজ, বনজ ও ঔষধিসহ বিভিন্ন জাতের ৫ হাজার গাছের চারা সরবরাহ করার মাধ্যমে অংশগ্রহণ করতে পেরে আমরা নিজেদেরকে গর্বিত মনে করছি। মহৎ এই উদ্যোগে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেয়ার জন্য গুলশান সোসাইটিকে ধন্যবাদ। আমি মনে করি, এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে বনায়ন সহ আরও নানান সামাজিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের পথ সুগম হলো।''

১৯৮০ সাল থেকে সারাদেশে 'বনায়ন' প্রকল্পটি পরিচালনা করে আসছে বিএটি বাংলাদেশ, বেসরকারি পর্যায়ে বৃক্ষরোপণের ক্ষেত্রে যা বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উদ্যোগ। এ বছর ‘বনায়ন’ এর ৪০ বছরে পদার্পণ এবং মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে সারা দেশে ৫০ লক্ষেরও বেশি গাছের চারা বিনামূল্যে সরবরাহ ও রোপণের কর্মসূচি নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।