মুজিব বর্ষ উপলক্ষে দুই দিনের বিশেষ অধিবেশন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
১৯৭৩ সালে সংসদে ভাষণে দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি: সংগৃহীত

১৯৭৩ সালে সংসদে ভাষণে দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন বসবে। আগামী মার্চের ২২ ও ২৩ তারিখ দুই দিনের বিশেষ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুর জীবন দর্শন নিয়ে আলোচনা হবে। এরইমধ্যে সংসদ সচিবালয় অধিবেশনকে ঘিরে সার্বিক প্রস্তুতি শুরু করেছে।

বিশেষ অধিবেশনে বিদেশি অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে যাদের ভাল জানাশোনা, যারা বঙ্গবন্ধুকে বিভিন্ন সময় দেখেছেন তাদের আমন্ত্রণ জানানো হতে পারে। এমনকি বিদেশি অতিথিদের ওই অধিবেশন ভাষণ দেওয়ার সুযোগ থাকতে পারে। এই তালিকায় ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী থাকতে পারেন।

জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া নির্বাচিত ভাষণ নিয়ে প্রকাশনাও বের করা হবে। স্পিকারের পক্ষ থেকে বিশেষ স্মারক বা উপহারবক্স পাবেন ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নভুক্ত দেশের স্পিকারগণ। তাতে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীর ইংরেজি সংস্করণ ও মেমোরিয়াল কয়েনসহ বিভিন্ন সামগ্রী থাকবে।

বিশেষ অধিবেশনের বিষয়টি বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করেছেন জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী। তিনি বলেন, আগামী মার্চে বিশেষ অধিবেশন বসবে। এরইমধ্যে অধিবেশন আয়োজন করার লক্ষ্যে সার্বিক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। মুজিব বর্ষের বিশেষ অধিবেশনের সমস্ত আয়োজন সার্বিকভাবে খোঁজ খবর রাখছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী নিজেই।

সংসদ সচিবালয়ের একজন উপ-সচিব বার্তা২৪.কমকে বলেন, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে একটি মুজিব সেল গঠন করা হয়েছে। সেখানে বঙ্গবন্ধুর উপর বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত প্রস্তুত করা হচ্ছে।

যুগ্ম সচিব (এলএস) সুমাইয়া খানম বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'এখনো কোনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি। তবে প্রাথমিকভাবে কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। যেহেতু মুজিব বর্ষ উপলক্ষে অধিবেশন স্বভাবতই বঙ্গবন্ধুর উপরই আলোচনা হবে। কারা কারা আমন্ত্রণ পাবেন সেসব বিষয় এখনো চূড়ান্ত হয়নি।'

আপনার মতামত লিখুন :