জিয়া-মোশতাকের মরণোত্তর বিচারে সংসদে বিল পাসের দাবি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সংসদ অধিবেশন ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান/ছবি: সংগৃহীত

সংসদ অধিবেশন ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান/ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও মোশতাককে বঙ্গবন্ধুর মূল হত্যাকারী (মাস্টার মাইন্ড) আখ্যায়িত করে তাদের মরণোত্তর বিচার করতে সংসদে বিল পাসের দাবি জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বাংলার সকল ইতিহাস ফিরিয়ে এনেছেন। সোনার বাংলার ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, বাংলার মানুষের মাথা উঁচু করে বাঁচার ইতিহাস তৈরি করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) রাতে একাদশ সংসদের ৬ষ্ঠ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনিত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সভাপতিত্ব করছিলেন।

ডা. মুরাদ প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, যুদ্ধাপরাধী-রাজাকারদের বিচার করেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হয়েছে। পলাতক আসামিদের ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করুন। আর বঙ্গবন্ধুর মূল খুনি যারা মাস্টার মাইন্ড, ওই মোশতাকের আর জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচারের জন্য সংসদে বিল পাস করার জন্য অনুরোধ করছি।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতাকে নিয়ে কোনো তর্ক করার অবকাশ নেই। কোনো পুলিশ, মেজর জেনারেলের বাঁশির হুইসেলে দেশ স্বাধীনতা অর্জন করে নাই। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে। শহীদ জিয়াউর রহমান নামে যার কথা বলা হয় ওনি কার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ করেছেন? শহীদ জিয়াউর রহমানকে ১৯৭১ সালে বিএনপি’র নেতাকর্মীরা চিনতেন কিনা?

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের জন্ম কিভাবে হল? ১৯৭৫ সালে জাতির পিতার হত্যাকাণ্ডের অন্যতম মাস্টার মাইন্ড খুনি মোশতাক ও জিয়াউর রহমান। বাংলাদেশের ক্যান্টনমেন্টে বসে অবৈধ শাসক সামরিক জান্তা একসঙ্গে রাষ্ট্রপতি। হ্যাঁ/না ভোটে অবৈধভাবে দেশের সকল অর্জন ধ্বংস করে দিয়ে বিএনপি-জামায়াত বাংলাদেশের ইতিহাস মুছে ফেলতে চেয়েছিল। মানুষ ভুলে যায় নি।

আপনার মতামত লিখুন :