ছাত্রলীগের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজগুলো এখন ডেঞ্জার জোন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ যেখানে ছাত্রলীগ-যুবলীগের অফিস রয়েছে, সে স্থানটি ডেঞ্জার জোনে পরিণত হয়েছে। ছাত্রলীগের অফিসের কাছে কোনো কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্তানদের পাঠাতে ভয় পাচ্ছে অভিভাবকরা। বিশেষ করে মেয়েদের পাঠাতে ভয় পাচ্ছে। ছাত্রলীগের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজগুলো এখন ডেঞ্জার জোন।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের ব্যঙ্গ করে মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট কাহিনী নির্ভর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের যত রাগ, যত ক্ষোভ সব জিয়াউর রহমানের প্রতি, বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি। আর এ রাগ কি জন্য জানেন আপনারা? উনার পিতা যে কাজটি করতে পারেননি, সে কাজটি করেছেন জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন, জিয়াউর রহমান যুদ্ধ করেছেন। তারা এটি অর্জন করতে পারেননি। তাই তাদের ক্ষোভ, কেন জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা করলেন?

জিয়াউর রহমান নাকি পাকিস্তানের চর। যে লোক পাকিস্তানের কমান্ডারকে হত্যা করে যুদ্ধের সূচনা করলেন। তার বিরুদ্ধে এই অপবাদ। আর পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর কাছে যিনি বন্দী হয়ে ৯ মাস থাকলেন, তিনি নন্দিত। তিনি (জিয়া) যদি বাকশাল চালু রাখতেন, তাহলে কোনো অসুবিধা ছিল না, উনি সংবাদপত্রের স্বাধীনতা কেন দিলেন?

বিএনপির এ নেতা বলেন, শেখ হাসিনা, শেখ পরিবারের এখন শুধুই গুণগান। তারাই নাকি সবকিছু করেছে। তারা নাকি বাংলাদেশের মালিক। বিএনপির সোচ্চার কণ্ঠ এর প্রতিবাদ করে। বিএনপি যখন তাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করে, যখন গণতন্ত্র হত্যার প্রতিবাদ করে, তখন তারা প্রতিহিংসায় সমালোচনায় লিপ্ত থাকে।

সিলেটের এমসি কলেজের ন্যাক্কারজনক ঘটনার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সিলেট এমসি কলেজের ঘটনার পর শেখ হাসিনার ক্ষমতায় থাকার আর কোনো বৈধতা আছে? না, নাই।