দুর্ভিক্ষ দরজায় কড়া নাড়ছে: সেলিমা রহমান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্ভিক্ষ আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে বলে মনে করছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান।

তিনি বলেন, যখনই আওয়ামী লীগ আসে তখনই আসে দুঃশাসন এবং দুর্ভিক্ষ। আজকে আপনারা যখন দেখতে পান- দুঃশাসন ও দুর্ভিক্ষে বাংলাদেশ অচল হয়ে গেছে। দুর্ভিক্ষ আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। দ্রব্যমূল্য আজকে আকাশ ছোঁয়া। সাধারণ মানুষ আজ খেতে পারছে না। হাজার হাজার যুবক আজ বেকার। তারপরও তারা (সরকার) নিশ্চিন্তে ঘুমাচ্ছে।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে এক আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এই মন্তব্য করেন।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে আবদুস সালাম হলে নব্বইয়ের ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের উদ্যোগে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে বিএমএ'র তৎকালীন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. শামসুল হক খান মিলনের ৩৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনা করে সেলিমা রহমান বলেন, তারা (সরকার) বড় বড় কথা বলছে আর বিএনপিকে সবক দিয়ে বেড়াচ্ছে। বর্তমান আওয়ামী লীগ জোট সরকারের সাধারণ সম্পাদক কথায় কথায় বিএনপিকে সবক দিচ্ছেন- বিএনপি আন্দোলন করতে পারে না, বিএনপি মরে যাচ্ছে, বিএনপি শেষ হয়ে যাচ্ছে ইত্যাদি। আমি বলি, বিএনপি যদি শেষ হয়ে যাবে-তোমাদের এতো চিন্তা কেনো? তোমরা এতো চিন্তা কেনো করছো? কারণ নাই। আসলে তোমরা ভয় পাচ্ছো, ভয় পাচ্ছো জিয়া পরিবারকে।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা তুলে ধরে সেলিমা রহমান বলেন, দেশনেত্রী আজকে গৃহবন্দি অবস্থায় আছেন। তিনি জামিন পান নাই, তিনি জামিন পাওয়ার যোগ্য সত্বেও তাকে জামিন দেয়া হয়নি। বিচার বিভাগ সম্পূর্ণভাবে বর্তমান সরকারের অধীনে। বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখার জন্য তাকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি আজকে অত্যন্ত অসুস্থ। আজকে সময় এসেছে দেশনেত্রীকে মুক্ত করবার। তাকে যদি ওখান থেকে মুক্ত করতে পারি, তাকে যদি আমরা সুচিকিৎসা দিতে পারি তিনি আবারো আমাদের মাঝে নেতৃত্ব দেবেন।

তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের নেতা তারেক রহমান যিনি বিএনপিকে পরিচালিত করছেন, যিনি দলের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনকে পুনর্গঠিত করছেন। তারই তত্ত্বাবধায়নে যুব দল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্র দল, মহিলা দল সবই কিন্তু আবার নতুনভাবে পুনর্গঠিত হচ্ছে। বিএনপি আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। আমাদের হাজার হাজার নেতা-কর্মী আজকে কারাগারে, মামলায় ভুগছেন, গুম-খুনের শিকার হচ্ছে। এতো কিছু সত্বেও বিএনপির নেতা-কর্মীর মন থেকে বিএনপিকে কিছুতেই দূর করতে পারে নাই। যত তারা নির্যাতন চেষ্টা করেছে তত জাতীয়তাবাদী শক্তির যে মনোবল তা জাগ্রত হয়েছে।

এর আগে সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চত্বরে মিলনের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নব্বইয়ের ডাকসুর সাবেক সভাপতি আমান উল্লাহ আমানসহ নেতৃবৃন্দ।

সাবেক ছাত্র নেতা আমিরুল ইসলাম আলিমের পরিচালনায় আলোচনা সভায় সাবেক ছাত্র নেতাদের মধ্যে শামসুজ্জামান দুদু, আসাদুজ্জামান রিপন, হাবিবুর রহমান হাবিব, খায়রুল কবির খোকন, জহির উদ্দিন স্বপন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, সাইফুদ্দিন মানিক, খন্দকার লুতফর রহমান, আসাদুর রহমান খান, শিরিন সুলতানাসহ বর্তমান ছাত্র দলের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।