২ মার্চকে জাতীয় দিবস ঘোষণার দা‌বি জেএসডির



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, খুলনা
জেএসডি

জেএসডি

  • Font increase
  • Font Decrease

২ মার্চকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়েছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)।

মঙ্গলবার (০২ মার্চ) দুপুরে উমেশচন্দ্র পাব‌লিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে জেএসডির খুলনা জেলা ও নগর শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় ২ মার্চকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবি জানানো হয়।

সভায় ১৯৭১ সালের ২ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ডাকসুর তৎকালীন ভিপি আ. স. ম আব্দুর রব স্বাধীনতার প্রথম পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে জাতি মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নেয় বলে নেতৃবৃন্দ দাবি করেন। সভায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রত্যাহার ও খুলনার বন্ধ জুট মিল চালু করারও দাবি করা হয়।

এ সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের নগর শাখার সহ-সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সিনা ওয়াহিদ মিকি। প্রধান অতিথি ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লোকমান হাকিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাসদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল হক খোকন, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক স ম রেজাউল করিম, নগর নাগরিক ঐক্যের সদস্য সচিব কাজী মোতাহার রহমান বাবু ও ক্ষুধামুক্ত আন্দোলনের সম্পাদক প্রভাষক আহসান হাবীব। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জেলা জেএসডির সদস্য সচিব মাষ্টার আইয়ুব আলী, যুগ্ম আহবায়ক কামরুল ইসলাম বাবলু, জাতীয় শ্রমিক জোটের খুলনা নগর শাখার আহবায়ক মনিরুল ইসলাম মনির। সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন জাতীয় যুবপরিষদের জেলা আহবায়ক মনির উদ্দিন।

সভায় বক্তারা অষ্টম শ্রেণির পাঠপুস্তক বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়ে অসম্পূর্ণ তথ্য দিয়ে রচিত হওয়ায় প্রকৃত ইতিহাস জানতে আজকের প্রজন্ম ব্যর্থ হচ্ছেন বলে উল্লেখ করেন। বক্তারা জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে এবং রাজনৈতিক দলের সমাবেশ করার ক্ষেত্রে পুলিশের নানা শর্তারোপের সমালোচনা করেন। স্বৈরশাসন মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে গণতন্ত্রমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ঐক্যবদ্ধ প্লাটফরমের দাবিও সভায় করা হয়। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি খুলনা বিএনপির সমাবেশের ক্ষেত্রে পুলিশের বাধা দান এবং অনুমতি না দেওয়ার সমালোচনা করা হয় এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা প্রত্যাহারের দাবিও করা হয়। সভায় বক্তারা চলমান সংকট নিরসনে জাতীয় সরকার গঠনের দাবি করেন। আলোচনার পূর্বে নগরীতে জাতীয় পতাকা মিছিল বের হয়।