খালেদাকে বিদেশে পাঠাতে আইন নয়, বাধা সরকার: ফখরুল



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

  • Font increase
  • Font Decrease

উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর পথে আইন বাধা নয়। বাধা হচ্ছে এই অবৈধ সরকার।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত মহিলা দলের বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

এর আগে সকালে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে নয়াপল্টন থেকে মিছিল বের করে মহিলা দল। পরে কার্যালয়ের সামনে পুলিশি বাধায় সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে মহিলা দলের নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা সবাই জানি বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। আজকে তিনি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন। কেন সরকার তাকে বিদেশে যেতে দিতে চায় না? তারা আইনের কথা বলে। কিন্তু আইনের মধ্যেই বলা আছে সরকার চাইলেই তাকে এই মুহূর্তে বিদেশে পাঠাতে পারে। বাধা আইন নয়। বাধা হচ্ছে এই অবৈধ সরকার। আজকে বেগম খালেদা জিয়াকে তারা স্তব্ধ করে দিতে চায়। তারা তাকে কথা বলতে দিতে চায় না।

মহিলা দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আজকে আমাদের এখানে বক্তব্য দিলে হবে না। সারাদেশে ঘরে ঘরে গিয়ে আমাদের মা-বোনদের জাগিয়ে তুলতে হবে। সমস্ত মানুষকে একত্রিত করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। এ দেশের যে স্বাধীনতাগুলো আমরা অর্জন করেছিলাম ১৯৭১ সালে। আজকে সেগুলো আওয়ামী লীগ সরকার লুট করে নিয়েছে। শুধুমাত্র তাদের একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করার জন্য।

ফখরুল বলেন, আমাদেরকে জীবন বাজি রেখে লড়াই করতে হবে। ১৯৭১ সালে আমরা যেভাবে লড়াই করেছি, আমাদের মা-বোনেরা যেভাবে সংগ্রাম করেছেন, আজকে আবার দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার লক্ষ্যে তেমনই সংগ্রাম করতে হবে।

এ সময় মহিলা দলের মিছিলে পুলিশি বাধার প্রতিবাদও জানান ফখরুল।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, আফরোজা আব্বাস, সুলতানা আহমেদ, নিলুফার চৌধুরী মনি, হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

‘রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ শঙ্কায় ষড়যন্ত্র অপপ্রচারে মেতেছে বিএনপি’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ

  • Font increase
  • Font Decrease

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, রাজনৈতিক ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত বলেই বিএনপি আজ ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারে মেতে রয়েছে।

শুক্রবার সকালে সিলেট সার্কিট হাউজে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করলেও বিএনপি-জামাত খুশি তো নয়ই বরং আতঙ্কিত। কারণ, শেখ হাসিনার এই সাফল্যে দেশের মানুষ খুশি, তাই তারা তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত ও আতঙ্কিত। এই কারণে তারা এখন ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। তারা রীতিমতো পয়সা খরচ করে দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। বিএনপির মহাসচিব বাংলাদেশে মার্কিন সহায়তা বন্ধের জন্য নিজের স্বাক্ষরে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের কাছে ও বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি লিখেছেন যাতে বাংলাদেশে সাহায্য দেয়ার বিষয় পুণরায় মুল্যায়ন করা হয়।

'একটি রাজনৈতিক দলের মহাসচিব কিভাবে দেশকে সাহায্য দেয়া বন্ধের উদ্দেশ্যে  পুণরায় মুল্যায়নের জন্য বিদেশে চিঠি লেখে, তারা আবার দেশ পরিচালনার স্বপ্ন দেখে' প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, 'এরা দেশের ষড়যন্ত্রকারী, এরা দেশবিরোধী।'

এসময় সংসদে সদ্য পাশ হওয়া নির্বাচন কমিশন গঠন আইন প্রসঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্রপ্রধানের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠনের উদাহরণ তুলে ধরেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, নেপালে ও শ্রীলঙ্কাতে রাষ্ট্রপ্রধানের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন হয়, পাকিস্তানেও সব প্রদেশের প্রধান বিচারপতিদের নিয়ে রাষ্ট্রপ্রধানের মাধ্যমেই হয়, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে তাদের গভর্নর জেনারেলরা যারা রাণীর প্রতিনিধি, তাদের মাধ্যমেই নির্বাচন কমিশন গঠন হয়।

মন্ত্রী বলেন, সারা দুনিয়ার যে পদ্ধতি, তাকে আরও স্বচ্ছ করেছি আমরা। সেখানে সার্চ কমিটি নেই, আর আমাদের যে আইন হয়েছে সেখানে সার্চ কমিটি ১০ জনের নাম প্রস্তাব করবে সেখান থেকে রাষ্ট্রপতি ৫ জনকে নিয়োগ দেবেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, সর্বসম্মতিক্রমে আইন পাশের পর আবার মির্জা ফখরুল সাহেব বললেন, আইন হলেও তারা এই সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে যাবেন না। আসলে বিএনপিকে যে না রোগে পেয়েছে, সেখান থেকে তারা বেরিয়ে আসবে পারছেন না। কারণ তারা বুঝেছেন যে তারা জনগণের কাছ থেকে বহুদূরে সরে গেছেন। তাই তারা নানা ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী বিশেষ করে তরুণ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য মন্ত্রী বলেন, দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে একটি বড় প্লাটফর্ম হিসেবে বেছে নিয়েছে। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম প্রচারের পাশাপাশি তাদের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় থাকতে হবে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদকের মাধ্যমে জেলার সব যুব ইউনিট একযোগে কাজ করবে।

মতবিনিময় সভায় সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ,  সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন এবং সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান বক্তব্য রাখেন।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশ বেতারের সিলেট কেন্দ্র ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের সিলেট উপ-কেন্দ্র পরিদর্শনে যান ড. হাছান।

;

‘ভোটাধিকার নিশ্চিতে ইসি গঠন আইন অনন্য মাইলফলক’



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

ওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের ইতিহাসে গণমানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশন গঠন আইন এক অনন্য মাইলফলক হিসেবে বিবেচিত হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, এ আইন প্রণয়নের মধ্যদিয়ে দেশ গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) নিজের বাসভবনে ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশে শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন ও নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালীকরণে যা কিছু হয়েছে তা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই অর্জিত হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পদক বলেন, বিশ্বের অন্যান্য গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের মতো নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন নিরপেক্ষ ও শক্তিশালী করতে আওয়ামী লীগের শাসনামলে সব রকমের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

নির্বাচন আইন ভোটাধিকার নিশ্চিত করবে জানিয়ে তিনি বলেন, সংবিধানের আলোকে সম্পূর্ণ গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় দেশের জনগণের ভোটাধিকার রক্ষার জন্য স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও শক্তিশালী এবং সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠনে এ আইন অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা রাখবে।

এ সময় ওবায়দুল কাদের ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ বিল’পাস হওয়ায় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সংসদ নেতাসহ জাতীয় সংসদের সব সদস্যদের প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান।

;

ফরিদপুরে এক যুগ ধরে জেলা শ্রমিক দলের কার্যক্রম নেই 



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ফরিদপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)র অঙ্গ সংগঠন ফরিদপুর জেলা শ্রমিক দলের দীর্ঘ এক যুগ ধরে  কোন কার্যক্রম নেই। অন্যান্য সহযোগী সংগঠন যুবদল , ছাত্রদল , স্বেচ্ছাসেবক দলের কার্যক্রম থাকলেও নেই শুধু ফরিদপুর জেলা শ্রমিকদলের কার্যক্রম । 

এই বিষয়ে ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড. সৈয়দ মোদাররেস আলী ঈসা এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ফরিদপুর জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিজ স্বার্থের জন্যই জেলা শ্রমিক দল ত্যাগ করে সরকারি দলে যোগ দান করেছে। আমরা খুব শীঘ্রই ফরিদপুর জেলা বিএনপির কমিটি গঠন করে অন্যান্য সহযোগী সংগঠন গুলো চাঙ্গা করবো। 

তিনি আরো জানান, হঠাৎ করে কাউকে কিছু না জানিয়ে জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যোগ দান করায় সাংগঠনিক ভাবে ফরিদপুর জেলা শ্রমিক দল কিছুটা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে  তবে আমরা সংগঠনকে চাঙ্গা করে ভালো রাজপথের লড়াকু সৈনিক দিয়ে ফরিদপুর জেলা শ্রমিক দলের কমিটি গঠন করবো।

;

বিএনপি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালাচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, সিলেট
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জনগণ আর বিএনপির সাথে নেই, এটা বুঝতে পেরেই তারা সরকারের বিরুদ্ধে নানাভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে। মাধ্যম হিসেবে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে বেছে নিয়েছে।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে মতবিনিময়কালে তথ্যমন্ত্রী একথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, ​আমাদের নেতাকর্মীদের উচিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহার করে সেগুলোকে মিথ্যা প্রমাণ করা এবং সরকারের উন্নয়ন বেশি বেশি করে ফেসবুকে তুলে ধরা। 

তিনি  বলেন, দেশে যে এত উন্নয়ন হচ্ছে সেটি বেশি বেশি করে ফেসবুকে প্রচার করতে হবে। দেশের সাড়ে ৮ কোটি মানুষ এখন ফেসবুক ব্যবহার করে। সুতরাং আমাদের এই মাধ্যমটাকে কাজে লাগাতে হবে। 

ড. হাসান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, বিএনপি তখন দেশের বিরুদ্ধে সারা দুনিয়ায় অপপ্রচার চালাচ্ছে। দেশের রপ্তানি-উন্নয়ন ও দেশের সুনাম যাতে ক্ষুন্ন হয় সেজন্য টাকা পয়সা খরচ করে বিএনপি অপপ্রচার চালাচ্ছে।বিএনপি ‘না’ রোগে আক্রান্ত হয়ে গেছে। সব কিছুতে তাদের না। এ অবস্থান থেকে তাদের সরে আসতে হবে। 

মন্ত্রী আরও বলেন, সিলেটে একটি পূর্ণাঙ্গ টেলিভিশন কেন্দ্র করা হবে। এর কার্যক্রম আরও আগে শুরু করতে পারতাম। কিন্তু

করোনার কারণে আমরা দেড় বছর পিছিয়ে গেছি। আমরা দ্রুত এ কার্যক্রম শুরু করব। 

এসময় সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগরের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন ও জেলার সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খানসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

;