বিবাহিতদের ছাত্রদল কমিটিতে রাখার দাবিতে আমরণ অনশন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
আমরণ অনশনে বসেছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল

আমরণ অনশনে বসেছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল

  • Font increase
  • Font Decrease

বিবাহিত ছাত্রদল নেতাদের কেন্দ্রীয় সংসদের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রাখা হবে না-এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং তাদের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রাখার দাবিতে আমরণ অনশনে বসেছে।

বুধবার (৩১ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ আমরণ অনশনে বসেন তারা। দাবি না মানা পর্যন্ত এই অনশন কর্মসূচি চলবে বলেও জানান তারা।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক স্কুলবিষয়ক সম্পাদক আরফাত বিল্লাহ খান বলেন, শুধুমাত্র বিবাহিত থাকার অজুহাতে আমাদেরকে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদে রাখা হচ্ছে না। এটা অন্যায়। বিবাহ একটি বৈধ সম্পর্ক। এটাকে পুঁজি করে রানিং শিক্ষার্থীদেরও ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রাখা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, বিবাহিত হওয়ার কারণে যদি শিক্ষার্থীদের ছাত্র রাজনীতি করতে দেওয়া না হয়, তাহলে তারা কোন সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত হবেন? শিক্ষার্থীরা তো যুবদল করতে পারবেন না। স্বেচ্ছাসেবক দল করতে পারবেন না।

তিনি আরও বলেন, ছাত্র রাজনীতি করার জন্য বিএনপির কেন্দ্রীয় অনেক নেতা আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছিলেন। তাদের কথা অনুযায়ী আমরা নানা বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে ছাত্রদলের রাজনীতি করেছি। আমাদের প্রত্যেকটি নেতাকর্মীর একাধিক মামলা রয়েছে। একাধিক বার জেল খেটেছেন। কিন্তু এখন শুধুমাত্র বিবাহিত হওয়ার কারণে কেন্দ্রীয় সংসদে জায়গা হচ্ছে না।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সহসম্পাদক মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন বার্তা টোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, বর্তমান কমিটিতে এসএসসির ২০০০ ব্যাচ থেকে রাখা হচ্ছে। কিন্তু বিবাহিত হওয়ার কারণে চলমান শিক্ষার্থীরাও কমিটিতে জায়গা পাচ্ছেন না। আমি নিজেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রানিং ছাত্র। কিন্তু বিবাহিত হওয়ার করণে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের জায়গা হবে না। তাহলে আমরা কোন সংগঠনের সঙ্গে রাজনীতি করবো?

আপনার মতামত লিখুন :