লেজুড়বৃত্তি করলে জাপার রাজনীতি থাকবে না

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জাপার কাউন্সিলে নেতারা/ ছবি: সুমন শেখ

জাপার কাউন্সিলে নেতারা/ ছবি: সুমন শেখ

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজুর মোস্তফা বলেছেন, আমরা বিরোধী দলে আছি। কারো লেজুড়বৃত্তি করলে জাতীয় পার্টির রাজনীতি থাকবে না। তাতে এরশাদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব না।

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) আইইবি চত্বরে জাতীয় পার্টির ৯ম জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আমরা লেজুড়বৃত্তির রাজনীতি চাই না। আমরা চাই, জনগণ চায় সঠিক রাজনীতি। আগামী দিনে জাতীয় পার্টিকে সেভাবে কর্মসূচি দিতে হবে।

প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে, জিএম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ। এরশাদ বলেছিলেন, আমার মৃত্যুর পর জিএম কাদেরের নেতৃত্বে দল চলবে। আমরা সেটা করতে সক্ষম হয়েছি।

প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেন, অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। তারপরও আমরা এখন ঐক্যবদ্ধ। আমরা জিএম কাদেরের নেতৃত্বে আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে পারবো।

আরও পড়ুন: জাতীয় পার্টি আজ উজ্জীবিত: রাঙ্গা

প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, দুর্নীতি দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ঐক্য গড়তে হবে। ক্ষমতার পালাবদল হচ্ছে মিউজিক্যাল চেয়ারের মতো। দুটি দল ক্ষমতায় আসছে। কিন্তু মানুষের আশার প্রতিফলন হচ্ছে না। তারা জাপার প্রতি তাকিয়ে আছে।


প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রশীদ সরকার বলেন, আমার নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছিলেন, তোমরা আমার ছোটো ভাই জিএম কাদেরের সঙ্গে থাকো। আমরা তার সঙ্গে আছি। তিনিই চেয়ারম্যান থাকবেন।

প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের দুর্নীতি, চাঁদাবাজির কারণে মানুষ মু্খ ফিরিয়ে নিয়েছে। জনগণ চায় জাতীয় পার্টিকে। জাতীয় পার্টির শাসন হবে দুর্নীতি ও চাঁদাবাজ মুক্ত।

আরও পড়ুন: দেবর-ভাবির সমঝোতা, জাপার আনুষ্ঠানিকতার কাউন্সিল 

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, জাতীয় পার্টি আজ উজ্জীবিত। অনেকে বলেছিলেন এরশাদ না থাকলে জাতীয় পার্টি থাকবে না। এরশাদ না থাকলেও তার ছায়া আমাদের মাথার ওপর রয়েছে।  

রাঙ্গা বলেন, নব্বই সালে আমাদের নেতার দুর্নীতি বের করার চেষ্টা করা হয়েছে। খালেদা জিয়া ১০ লাখ টাকা খরচ করে বিদেশ থেকে টিম এনেছিলেন। এক পয়সার দুর্নীতি খুঁজে বের করতে পারেননি। এরশাদ কোনো দুর্নীতি করেননি। খালেদা জিয়াকে ওই টাকা ফেরত দিতে হবে, আমরা যদি কোনো দিন ক্ষমতায় যাই, ওই টাকা আদায় করে ছাড়বো।

প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, অনেকে মনে করেছিলো যখন এরশাদ থাকবে না, তখন জাতীয় পার্টি বিভক্ত হয়ে যাবে না। আপনারা দেখে যান জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ। আমরা আরও বেশি শক্তিশালী। যেদিন জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় যাবে, সেদিন এরশাদকে যথাযথ সম্মান দেখানো হবে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা ফিরে গিয়ে ঘরে ঘরে যাবেন। ঘরে বসে কমিটি করবেন না। মানুষের কাছে যাবেন এটাই আমার অনুরোধ। আমরা চেয়ারম্যান কাদের মহাসচিব রাঙ্গার নেতৃত্বে এগিয়ে যেতো পারবো।

আমাদের মধ্যে মিনিমাম কোনো মতপার্থক্য নেই। প্রেসিডিয়াম সদস্য বাবলা ও ফিরোজ রশীদ চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদের ও মহাসচিব হিসেবে রাঙ্গার নাম বলেছেন। আমরা সকলেই এই প্রস্তাবে ঐক্যবদ্ধ।

আপনার মতামত লিখুন :