সাদ এরশাদকে চার ধাপ নিচেই রাখলেন কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জিএম কাদের ও সাদ এরশাদ, ছবি: সংগৃহীত

জিএম কাদের ও সাদ এরশাদ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রওশন এরশাদ পুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদকে চার ধাপ নিচেই রেখে দিলেন জিএম কাদের। রওশন এরশাদ চেয়েছিলেন পুত্রকে কো-চেয়ারম্যান করতে, কিন্তু তাকে পূর্বের পদ যুগ্ম মহাসচিবেই রাখা হয়েছে। যা তাকে কাউন্সিলের অল্প কিছু দিন পূর্বে দেওয়া হয়েছিল।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি) রওশন এরশাদ এক চিঠিতে তার ছেলেকে কো-চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দিয়েছিলেন। তার দুই দিন পর শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) জিএম কাদের ঘোষিত কমিটিতে সাদ এরশাদকে পূর্বের পদেই রেখে দেওয়া হয়েছে।

বিরোধী দলীয় নেতা জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ মোট ১৬জনকে বিভিন্ন নিয়োগের চিঠি দিয়েছিলেন। সেই তালিকা থেকে ৭জনকে বিভিন্ন পদে পদায়ন করা হয়েছে। শুধুমাত্র আমানত হোসেন আমানতকে রওশন ঘোষিত পদ ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বহাল রাখা হয়েছে। অন্যদের সকলকেই নিচের দিকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। রওশনের তালিকা প্রেসিডিয়াম সদস্য পদে থাকা রওশন আরা মান্নানকে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য করা হয়েছে।

রওশনের তালিকায় প্রেসিডিয়ামে থাকা সাবেক এমপি মাহজাবীন মোর্শেদ, সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম ওমর ও আরিফুর রহমান খানকে দুই ধাপ নিচে ভাইস চেয়ারম্যান পদ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে সাবেক এমপি ইয়াহিয়াকে এক ধাপ নিয়ে যুগ্ম মহাসচিব পদে পদায়ন করেছেন জিএম কাদের।

পার্টির একটি সূত্র জানিয়েছেন, দুই-একজনের বিষয়ে জিএম কাদের ছাড় নাও দিতে পারেন। যারা রওশন এরশাদকে প্রভাবিত করে একটি গোলমাল পাকানোর চেষ্টা করেছেন। অন্যদের বিভিন্ন পদে পদায়ন করা হবে। তবে সেটি রওশন প্রত্যাশিত পদ না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

গেল ২৮ ডিসেম্বর জাতীয় পার্টির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিলে চেয়ারম্যান পদে জিএম কাদের ও মহাসচিব পদে মসিউর রহমান রাঙ্গা নির্বাচিত হন। আর গঠনতন্ত্রের সংশোধনীতে প্রধান পৃষ্ঠপোষক পদে বসানো হয় রওশন এরশাদ। চেয়ারম্যানের চেয়ে সম্মানিত হলেও কার্যত এটি একটি অলংকারিক পদ। কাউন্সিলে জিএম কাদেরকে কমিটি ক্ষমতা অর্পণ করা হয়। জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্রের সংশোধনীতে চেয়ারম্যান ছাড়া অন্য সকল পদে কাউন্সিলরদের নির্বাচন করার ক্ষমতা রোহিত করা হয়।

কাউন্সিলের পর জিএম কাদের ৭ জনকে কো-চেয়ারম্যান ও ৮ জনকে অতিরিক্ত মহাসচিব ও ৩৭ জনকে প্রেসিডিয়াম সদস্য পদে নিয়োগ দিয়েছেন। উপদেষ্টা পরিষদে ২৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩৭ জন ও যুগ্ম মহাসচিব পদে ১৪ জনকে নিয়োগ দিয়েছেন। পার্টির অন্যান্য পদে সাক্ষাতকারের মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এর পূর্বে ফরম বিতরণ করা হয়। ২০ জানুয়ারি থেকে সাক্ষাতকার নেওয়ার কথা রয়েছে। যদিও অনেক পদে আগেই ঘোষণা দেওয়ায় সাক্ষাতকার প্রশ্নে অনেকেই হতাশা ব্যক্ত করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :