বার্সা নাকি বায়ার্ন, কে হাসছে আজ রাতের নকআউটে?

স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
রাতে বার্সা-বায়ার্ন মহারণ

রাতে বার্সা-বায়ার্ন মহারণ

  • Font increase
  • Font Decrease

দুটি দলের সাফল্যের হিসেব-নিকেষে বেশ মিল। বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে পাঁচবার। বার্য়ান মিউনিখও ঠিক তাই। কি আশ্চর্য দুটি দলের কোয়ার্টার ফাইনালের হিসেবও পুরোদুস্তর সমানে সমান। ১৮ বার কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছে ইউরোপের এই দুটি দল। শেষবারের হিসেবে ইউরোপিয়ান ফুটবলের শিরোপা জেতার বছরেও মিলটা তাদের বেশ কাছাকাছিই। বার্সা শেষবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে ২০১৫ সালে। বায়ার্ন এই শিরোপা জেতার শেষ উৎসব করেছে ২০১৩ সালে।

করোনাকালের বছরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের সাফল্যেও হিসেবকে আরো উজ্জ্বল করার একটা সুযোগের সামনে উভয় দল। ফাইনাল এখনো বেশ দূরে। টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে উভয় দল ১৪ আগস্টেও গভীর রাতে মুখোমুখি হচ্ছে। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবারের কোয়ার্টার ও সেমিফাইনাল হচ্ছে সিঙ্গেল লেগের। তাও আবার নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। পর্তুগালের লিসবনে শুক্রবার রাতে আজ রাতে যে জিতবে তারা পৌছে যাবে সেমি-ফাইনালে।

কে হবে সেই দল-বার্সা নাকি বায়ার্ন?

যে দলে মেসি খেলেন, সেই দল তো সবসময়ের ফেবারিট। তবে বায়ার্ন মিউনিখের বর্তমান ফর্ম এবং স্ট্রাইকার রবার্ত লেভানদোস্কির গোলক্ষিধে-এই দুটোকে হিসেবে আনলে লিসবনের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যাচ পূর্ব আলোচনায় কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকছে জার্মানির দলটি।

কিন্তু ম্যাচপূর্ব পরিসংখ্যান তো আর ম্যাচের মাঝখানে তেমন কাজে লাগে না। খেলা শুরুর বাঁশি বাজলে তখন ওসব পরিসংখ্যান-টরিসংখ্যান তখন গৌন বিষয়। হাতে পাওয়া সময়, সুযোগ আর ভাগ্যের সহায়তাকে কোন দল সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারে সেটাই তখন ম্যাচ জয়ের নিক্তি হয়ে হয়ে উঠে।

দুই দলেরই বিগ ম্যাচ খেলার টেম্পারমেন্ট আছে বেশ। দলের সবাই ভালই জানে, এমন নকআউট ম্যাচ জিততে হলে কোন কৌশলে এগুতো হবে। এমন বড় ম্যাচে বার্সাকে কিভাবে আটকাতে হয়- সেটা বায়ার্নের চেয়ে বেশি কেউ জানে না। এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সাকে সবচেয়ে বেশি ম্যাচে দলের নামটাই যে বায়ার্ন মিউনিখ! টুর্নামেন্টে আজকের আগ পর্যন্ত ৮ বার মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দল। বায়ার্ন জিতেছে ৫ ম্যাচে। বাকি তিনটিতে বার্সা।

শেষ যে বছর বার্সা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ট্রফি জিতেছিল সেই ২০১৫ সালের সেমিফাইনালে তারা হারিয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখকে। ঠিক একইভাবে যে শেষ যে বছর ২০১৩ সালে বায়ার্ন মিউনিখ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে উল্লাস করেছিল সেই বছর তারা সেমিফাইনালে বার্সাকেই ৭-০ গোলের এগ্রিগেটে উড়িয়ে দিয়েই ফাইনালে পৌঁছেছিল।

এবার উভয় দল সেমিফাইনালের আগের ধাপে কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি।

তাহলে কে হাসছে আজ রাতের ম্যাচে সেমিফাইনালে নাম লেখানোর আনন্দে, বার্সা নাকি বায়ার্ন?

আপনার মতামত লিখুন :