বাফুফে নিয়ে বাজে মন্তব্য করলেই আইনি পদক্ষেপ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
বাজে মন্তব্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ জারি করেছে বাফুফে

বাজে মন্তব্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ জারি করেছে বাফুফে

  • Font increase
  • Font Decrease

হাতে সময় বেশি নেই। ৩ অক্টোবর বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন। তার আগে দুই পক্ষেরই প্রচারণা তুঙ্গে। সভাপতি পদে এবার মুখোমুখি বর্তমান বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ও শফিকুল ইসলাম মানিক। বাদল রায় অবশ্য সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন।

ভোট যুদ্ধে কি হবে সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে তার আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ চাপে রয়েছেন কাজী সালাউদ্দিন। চতুর্থ মেয়াদের জন্য যখন তিনি নির্বাচিত হতে লড়ছেন তখন নিয়ে চলছে ধুন্ধুমার সমালোচনা। বাফুফে’র অফিশিয়াল পেজ থেকে যা কিছুই পোস্ট করা হচ্ছে সেখানেই দেখা মিলছে ‘সালাউদ্দিন মুক্ত বাফুফে চাই’ হ্যাশট্যাগ!

ঠিক এমনই যখন অবস্থা তখন যেসব আইডি, গ্রুপ ও পেজ থেকে এসব করা হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ জারি করেছে বাফুফে। রোববার আইনি নোটিশ জারি করেছেন বাফুফে’র আইন উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট এম.এইচ. তানভীর।

এই নোটিশে বলা হয়েছে- গত ৯ সেপ্টেম্বর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাফুফে ও ফিফা’র স্বীকৃত ফেসবুক পেজে কুরুচিপূর্ণ, অসৌজন্যমূলক, উদ্দেশ্য প্রণোদিত, মানহানিকর, আক্রমণাত্মক ও ভিত্তিহীন মন্তব্য করে যাচ্ছেন। এভাবেই বিশ্ব দরবারে দেশ ও দেশের ফুটবলকে হেয় করা হচ্ছে।

নোটিশে আরও জানানো হয়েছে- ‘নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর হতে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহারকারীগণ নিজেরা ফেসবুক গ্রুপ, ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে অ্যাডমিন হয়ে বাফুফে’র নাম, লোগো বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ছবি ও ভিডিও ফুটেজ অনুমতি ছাড়া যত্রতত্র ব্যবহার করে আমার মক্কেলের (বাফুফে) বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন, যার সঙ্গে আমার মক্কেল (বাফুফে) কোনোভাবেই জড়িত নয়। এই নোটিশ প্রদানের পর থেকে আমার মক্কেলকে (বাফুফে) উদ্দেশ্য করে অপমানজনক পোস্ট, বিবৃতি ও ভিডিও বার্তা প্রদান করে থাকেন বা এই কাজকে উৎসাহিত করে থাকেন বা জাতীয় বা আন্তর্জাতিকভাবে হেয় করার চেষ্টা করে থাকেন কিংবা আসন্ন বাফুফে’র নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেন, সেক্ষেত্রে তারা বা তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ অনুযায়ী ও বাংলাদেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এরইমধ্যে নোটিশের অনুলিপি প্রেরণ করা হয়েছে বাংলাদেশ পুলিশের মহা-পুলিশ পরিদর্শক, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, বিটিআরসি চেয়ারম্যান, ঢাকা জেলা প্রশাসক, র‌্যাব মহাপরিচালক ও সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনে (সিটিটিসি)।