শেখ আসলামদের ‘সভাপতিবিহীন’ প্যানেলের ২৪ দফা



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
শেখ আসলামদের নির্বাচনী ইশতেহারে রয়েছে ১২ বছর মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা

শেখ আসলামদের নির্বাচনী ইশতেহারে রয়েছে ১২ বছর মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা

  • Font increase
  • Font Decrease

হাতে সময় একেবারেই নেই। ৩ অক্টোবরে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন। যেখানে সভাপতি পদে লড়বেন কাজী সালাউদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম মানিক। নির্বাচনে থাকছে আরেকটি প্যানেল। সেখানে অবশ্য নেই কোনো সভাপতি।

বৃহস্পতিবার নির্বাচনের দুই দিন আগে ‘সভাপতিবিহীন’ সমন্বয় পরিষদ ঘোষণা করেছে ২৪ দফা নির্বাচনী ইশতেহার। ১৯ সদস্যের প্যানেলে সভাপতির সঙ্গে নেই একজন সহ-সভাপতি প্রার্থী। বাকি সব পদে প্রার্থী দিয়েছে শেখ মোহাম্মদ আসলাম-মহিউদ্দিন মহিদের গড়া সমন্বয় পরিষদ।

সভাপতি কেন নেই? এনিয়ে সহ-সভাপতি প্রার্থী মহিউদ্দিন মহি গণমাধ্যমে বলেন, ‘আমরা সভাপতি পদটি খালি রেখেছি। সমর্থন করছি না কাউকে। সবচেয়ে বড় কথা সভাপতি এককভাবে কিছু করতে পারবে না। তাই এখানে সভাপতি পদটি উন্মুক্ত রেখেছি আমরা।’

শেখ আসলামদের নির্বাচনী ইশতেহারে রয়েছে ১২ বছর মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা। থাকছে জেলা ও উপজেলায় লিগ আয়োজন, বয়সভিত্তিক ফুটবল নিয়মিত করা, সোহরাওয়ার্দী ও শেরে-বাংলা কাপ আয়োজন আর পেশাদার ফুটবল লিগ নিয়ে পরিকল্পনার পসরা।

একইসঙ্গে আন্তঃস্কুল ও কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিযোগিতা, সারাদেশের ক্লাবগুলোকে আর্থিক সাহায্য, অফিস ও করপোরেট লিগ আয়োজন, জাতীয় দলের জন্য ৪, ৮ ও ১২ বছর মেয়াদি বাস্তব সম্মত পরিকল্পনা প্রণয়নের সঙ্গে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতির পরিকল্পনাও আছে। শুধু পুরুষ ফুটবল নয়, মেয়েদের ফুটবল লিগ নিয়েও তাদের থাকছে ছক।

সব মিলিয়ে দারুণ আশাবাদী সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রার্থী শেখ মোহাম্মদ আসলাম। একসময়ের এই তারকা ফুটবলার জানাচ্ছিলেন, ‘দেখুন, আমাদের প্যানেলে যারা আছেন তারা পরীক্ষিত। জেলা-বিভাগ ও ক্লাবের প্রতিনিধিরা রয়েছেন। আশা করছি জয়ের দেখা পাব আমরা।’