বাংলাদেশের ভাবনায় একাদশে বদল, উইন্ডিজ ভাবছে পারফরমেন্সে পরিবর্তন



স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
দুই ক্যাপ্টেন জেসন মোহাম্মদ ও তামিম ইকবাল

দুই ক্যাপ্টেন জেসন মোহাম্মদ ও তামিম ইকবাল

  • Font increase
  • Font Decrease

একটা দল নির্ভার।

তিন ম্যাচের প্রথম দুটোতে সহজ জয়ে সিরিজ পকেটে ভরে ফেলার স্বস্তি, পুরো দলের আবহ জুড়ে। দলটা বাংলাদেশ। 

আরেকটা দল চিন্তায়। 

প্রথম ম্যাচে ১২২। পরের ম্যাচে ১৪৮। দলের ব্যাটিং- বোলিং-ফিল্ডিং কোনকিছুই ঠিক হচ্ছে না। দলটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ। 

সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডে হবে ২৫ জানুয়ারি, সোমবার। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ ম্যাচে নামার আগে অবশ্য দু’দলের একটা পরিকল্পনায় বেশ মিল; পরিবর্তন!

সিরিজ জিতে আয়েশে থাকা বাংলাদেশ দল ভাবছে একাদশে পরিবর্তনের বিষয়ে। আর সিরিজে হারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভাবনা একটাই- পারফরমেন্সে পরিবর্তন!

সহজ দুই জয়ে বাংলাদেশ সিরিজ জিতে নিয়েছে। কিন্তু মাঝমাঠে যে ম্যাচের আমেজ সেই উত্তাপ থেকে তো দলের বেশিরভাগ বঞ্চিত। আর তাই শেষ ম্যাচের একাদশে ‘বেঞ্চ শক্তি পরীক্ষার’-একটা সুযোগ নিতে চায় বাংলাদেশ। বোলিং এবং ব্যাটিং উভয় বিভাগে কিছু বদল এনে একাদশ সাজাতে চায় দল। এই পরিবর্তনের কথা বলেছেন খোদ অধিনায়ক তামিম ইকবাল থেকে শুরু করে বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। দলে পরিবর্তন হচ্ছে কিন্তু তাই বলে একেবারে ব্যাপক বদলের কোন সুযোগ নেই। কারণ সিরিজের ট্রফি জেতা হয়ে গেছে কিন্তু এখনো এই সিরিজ থেকে আরো ১০ পয়েন্ট অর্জনের সুযোগ আছে বাংলাদেশের সামনে। সেটা হাতছাড়া করা যাবে না কোন মতেই। 

দলের সেরা খেলোয়াড়রা এই সফরে না আসায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল মূলত বাধ্য হয়েছে তাদের দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে আসতে। খর্বশক্তির সেই দলকে ভীষণ দুর্বল দেখাচ্ছে পুরো শক্তির শক্তিমান বাংলাদেশ দলের বিরুদ্ধে। প্রথম ম্যাচে পাঁচ, দ্বিতীয় ম্যাচে এক-সবমিলিয়ে সিরিজে এখন পর্যন্ত ছয়জন খেলোয়াড়ের অভিষেক করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু ২২ গজের পারফরমেন্স যে তাদের ভীষণ নাজুক। আর তাই সিরিজের শেষ ম্যাচে অন্তত যাতে প্রতিদ্বদ্বিতা করা যায় সেজন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের পারফরমেন্সে পরিবর্তনের অপেক্ষায় রয়েছে। 

চট্টগ্রামে অনুশীলনে নামার আগে দলের কোচ ফিল সিমন্সও সেকথাই বললেন- ‘নতুন যারা খেলছে, এটা তাদের জন্য ভাল একটা সুযোগ। সেই সুযোগকে যে কাজে লাগাতে পারবে তার সামনে ভাল সম্ভাবনা আছে। আমরা জানি সিরিজ হেরে গেছি। কিন্তু এখনো এই সিরিজ থেকে আমাদের কিছু অর্জনের আছে। শেষ ম্যাচে যদি জিততে পারি তাহলে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পারবো। সুপার লিগের জন্য সেই পয়েন্ট আমাদের অনেক প্রয়োজনীয়।’