জয়ের অপেক্ষায় বাংলাদেশ, চাই আরো ৭ উইকেট



স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
টাইগারদের উইকেট উদযাপন

টাইগারদের উইকেট উদযাপন

  • Font increase
  • Font Decrease

জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের লক্ষ্যমাত্রা ৩৯৫ রান। চতুর্থদিন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ১১০ রান। টার্গেট স্পর্শ করতে তাদের প্রয়োজন আরো ২৮৫ রান। আর ম্যাচ জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন বাকি ৭ উইকেট। ম্যাচের ফল জানার জন্য পঞ্চম এবং শেষদিনের অপেক্ষায় চট্টগ্রাম টেস্ট। তবে ম্যাচ পরিস্থিতি জানাচ্ছে জয় সম্ভাবনার নিক্তি অনেকাংশেই বাংলাদেশের দিকে ঝুঁকে আছে। 

চতুর্থদিনের শেষ সেশনের খানিক আগে বাংলাদেশ ৮ উইকেটে ২২৩ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে। ১১৫ রানের সেঞ্চুরি পান মমিনুল হক। লিটন দাস খেলেন ৬৯ রানের ইনিংস।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের উইকেটে যেভাবে স্পিন বাঁক নিচ্ছে তাতে ব্যাটিং এখানে ক্রমশ কঠিন থেকে কঠিন হয়ে উঠছে। আর পুরো ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য মুর্তিমান আতঙ্ক হয়ে উঠছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরির সঙ্গে চার উইকেট শিকার করেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিন উইকেটে সবগুলোই মিরাজের। দারুণ এক রেকর্ডের সামনে দাড়িয়ে এখন মিরাজ; এক টেস্টে সেঞ্চুরির সঙ্গে ১০ বা তার চেয়ে বেশি উইকেট শিকারের রেকর্ড এখন ডাককে তাকে। টেস্ট ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত এই সাফল্য পেয়েছেন মাত্র তিনজন অলরাউন্ডার- ইয়ান বোথান, ইমরান খান ও সাকিব আল হাসান। 

চট্টগ্রামের শেষদিনে মেহেদি হাসান মিরাজ কি পারবেন এই এলিট তালিকায় নাম লেখাতে। প্রয়োজন তার আর মাত্র ৩ উইকেট। 

৩৯৫ রানের বিশাল টার্গেটের পিছনে ছুটতে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা ভাল হয়নি। ৩৯ রানে হারায় তারা প্রথম উইকেট। ওপেনার জন ক্যাম্পবেলকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ৫০ বলে ২৩ রান করে ফিরেন ক্যাম্পবেল। সুইপ শট খেলতে গিয়ে বলের লাইন মিস করেন তিনি। উইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাথওয়েটকেও বেশিদুর বাড়তে দেননি মিরাজ। শর্টলেগে তাকে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন মিরাজ। ২০ রানে শেষ হয় ব্রাথওয়েটের ইনিংস। ওয়ানডাউনে খেলতে নামা সায়নে মোজলে নিচু হয়ে আসা বলে ব্যাট লাগাতেই পারেননি। ৫৯ রানে শুরুর ৩ উইকেট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দিনের শেষ ঘণ্টায় স্বস্তিতে রাখেন বোনার ও কাইলে মেয়ার্স। দুজনে চতুর্থ উইকেট জুটিতে হার না মানা ৫১ রান যোগ করেন। দুজনেই বাংলাদেশের স্পিন বেশ দক্ষতার সঙ্গেই সামাল দেন। তবে দুই প্রান্ত থেকেই বল স্পিনে যেভাবে বাঁক নিচ্ছে তাতে এটা নিশ্চিত যে ম্যাচের পঞ্চম ও শেষদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে অপেক্ষা কঠিন থেকে কঠিনতর সময় অপেক্ষা করছে। 

আর এই ম্যাচে বাংলাদেশের এখন একটাই অপেক্ষা-জয়!

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ১ম ইনিং: ৪৩০ ও ২২৩/৮ডিক্লে, (মমিনুল ১১৫, লিটন ৬৯, ওয়ারিক্যান ৩/৫৭, কর্নওয়াল ৩/৮১) ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনি: ২৫৯/১০ (৯৬.১ ওভারে, ব্রাথওয়েট ৭৬, ব্ল্যাকউড ৬৮, মেয়ার্স ৪০, সিলভা ৪২, মিরাজ ৪/৫৮, তাইজুল ২/৪৮, নাঈম ইসলাম ২/৫৪, মুস্তাফিজুর ২/৪৬) ও ১১০/৩ (৪০ ওভারে, মেয়ার্স ৩৭*, মোজলে ১২*, মিরাজ ৩/৫২

* চতুর্থদিন শেষে।