মধ্যাহ্নভোজ বিরতিতে টাইগাররা, স্কোর ৬৯/৪



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
লিটন দাস

লিটন দাস

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথম টেস্টের প্রথম সেশনে ব্যাটিংটা তেমন ভালো হলো না বাংলাদেশের। ২৮ ওভারে ৬৯ রান তুলে ৪ উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্নভোজ বিরতিতে গেছে টাইগাররা। ব্যাট হাতে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন মুশফিকুর রহিম (৫*) ও লিটন কুমার দাস (১১*)।

দলের প্রয়োজনে অধিনায়ক হিসেবে বড় ইনিংস খেলতে পারলেন না মুমিনুল হক। মাত্র ৬ রান নিয়ে সাজিদ খানের বলে উইকেটের পিছনে মোহাম্মদ রিজওয়ানের গ্লাভসবন্দী হন। পরে সাজঘরে ফিরেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ১৪ রান করে ফাহিম আশরাফের বলে সাজিত খানের হাতে ক্যাচবন্দী হন তিনি।

তার আগে ব্যাট হাতে ভালো শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শুরুর ছন্দটা ধরে রাখতে পারল না টাইগাররা। ক্রিজ থেকে বিদায় নিলেন সাইফ হাসান। তাকে ফিরিয়ে দিয়েছেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। ১৪ রান করে আফ্রিদির বলে আবিদ আলীর হাতে ক্যাচ তুলে দেন এ টাইগার ওপেনার।

সাইফের পর আরেক ওপেনার সাদমান ইসলামো ফিরলেন। ১৪ রান করে হাসান আলীর এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে উইকেট হারান তিনি।

পাকিস্তান সিরিজে টস ভাগ্যটা দারুণ পয়া বাংলাদেশের জন্য। টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিন ম্যাচেই টস জিতেছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। সেই ধারাটা অব্যাহত থাকল চট্রগ্রাম টেস্টেও। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নিয়েছে টাইগাররা।

এ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হচ্ছে বাংলাদেশের ইয়াসির আলী রাব্বির। আর পাকিস্তান দলে অভিষেক হলো আব্দুল্লাহ শফিকের। দুজনেই পেয়েছেন টেস্ট ক্যাপ।

চলতি বছর বাংলাদেশের সব টেস্ট সিরিজের দলেই ছিলেন ইয়াসির আলী রাব্বি। বদলি ফিল্ড আর হিসেবে ছয়টি ক্যাচও নিয়েছেন। এবার হচ্ছে তার আনুষ্ঠানিক টেস্ট অভিষেক।

বাংলাদেশ একাদশ: সাইফ হাসান, শাদমান ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, ইয়াসির আলী, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ ও এবাদত হোসেন।

পাকিস্তান একাদশ: আবদুল্লাহ শফিক, আবিদ আলী, আজহার আলী, বাবর আজম (অধিনায়ক), ফাওয়াদ আলম, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), ফাহিম আশরাফ, নওমান আলী, হাসান আলী, শাহিন শাহ আফ্রিদি ও সাজিদ খান।