মাটিতে পা রাখছেন মুমিনুল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি ক্যাপ্টেন মুমিনুল হক

বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি ক্যাপ্টেন মুমিনুল হক

  • Font increase
  • Font Decrease

দারুণ সফর শেষ করে নিউজিল্যান্ড থেকে দেশে ফিরেছেন টাইগার ক্রিকেটাররা। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ঐতিহাসিক জয়ের সঙ্গে দুই টেস্টের সিরিজ ড্র করে ফিরেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। তবে তাই বলে উচ্ছ্বাসের তোড়ে ভেসে যেতে চান না ক্যাপ্টেন মুমিনুল। সন্তুষ্টির ঢেঁকর তুলতে চান না। গা এলিয়ে না দিয়ে পরবর্তী সিরিজগুলোতে ধরে রাখতে চান এই সাফল্য।

আগামী মার্চে মুমিনুল হকের দল যাবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে। পরে টাইগাররা টেস্ট সিরিজ খেলবে শ্রীলঙ্কা ও ভারতের বিপক্ষে। সঙ্গে যাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজে সফরে। নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে ক্যাপ্টেন মুমিনুল জানালেন, সামনের এই সিরিজগুলো নিয়ে এখন থেকে চিন্তা শুরু করেছেন, ‘আপনারা এমন কিছু প্রত্যাশা করেননি, আমার দলের অনেকে ভাবতে পারেনি, হয়তো আমি করেছি কিছুটা। আপনারা কেউই আশা করতে পারেননি যে আমরা ওখানে টেস্ট ম্যাচ জিতব। তারপরও জিতেছি। এখন আমি সবচেয়ে বেশি চিন্তিত, পরের সিরিজগুলো নিয়ে। সামনে অনেক ভালো সিরিজ আছে, দক্ষিণ আফ্রিকা-শ্রীলঙ্কা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ভারতের বিপক্ষে খেলতে হবে আমাদের।’

একটি টেস্ট জিতেই খুশির জোয়ারে ভাসতে চান না। পরের সিরিজগুলোতেও দলের পারফরম্যান্সের উন্নতি দেখতে চান মুমিনুল, ‘ওই সিরিজগুলো আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং, অধিনায়ক হিসেবে আমি মনে করি। আমাদের অনেক জায়গায় উন্নতি করতে হবে। একটা টেস্ট ম্যাচ জিতে খুশি থাকলাম, সেই সুযোগ নেই। আমাদের পায়ের নিচে মাটি থাকতে হবে। প্রতিদিন আরও উন্নতি করতে হবে।’

ঢাকায় পা রেখে বিমানবন্দরে মুমিনুল জানালেন প্রথম টেস্টে সাফল্য ধরা দেয়ার নেপথ্যের রহস্য, ‘কোনো ক্যারিশমা নেই, কোনো জাদু-মন্ত্র ছিল না। আমরা আমাদের প্রক্রিয়া ঠিক রাখার চেষ্টা করেছি। যে জায়গায় উন্নতি করা দরকার, অনেক দিন থেকে চেষ্টা করছি একটা দল হিসেবে খেলার, সেটাই করেছি। বাংলাদেশ তখনই ভালো করে, যখন দল হিসেবে খেলে। বিশেষ করে টেস্টে। একজন-দুজন পারফর্ম করলে হয় না।’

প্রথম টেস্টে ব্যাট-বল হাতে অপ্রতিরোধ্য হলেও দ্বিতীয় টেস্টে খেই হারিয়ে ফেলে দেশের ক্রিকেটাররা। হেরে যায় ইনিংস ব্যবধানে। মুমিনুল জানালেন সেই হারের কারণ, ‘দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে দল হিসেবে আমরা ভালো ব্যাট করতে পারিনি। দ্বিতীয় ইনিংসে মোটামুটি কাভার করার চেষ্টা করেছি আমরা। কিন্তু টেস্টে প্রথম ইনিংসে ধস নামলে টেস্টে ফিরে আসা কঠিন।’

নিউজিল্যান্ডে এমন সাফল্যের পরেও বোর্ডের কোনো কর্তাব্যক্তি কেন বিমানবন্দরে শুভেচ্ছা জানাতে আসলেন না? মুমিনুল উত্তরটা দিলেন কড়া ভাষায়, ‘যে প্রশ্নটা করেছেন এটা বিতর্ক তৈরি করার মতো প্রশ্ন। আমি আপনাদের জন্য ক্রিকেট খেলি না, দেশের জন্য খেলি। পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে কে আসল না আসল এসব চিন্তা করি না।’

বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জুনিয়র টাইগাররা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জুনিয়র টাইগাররা

জুনিয়র টাইগাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে যাওয়ায় অজানা এক আশঙ্কাই জেগেছিল। তবে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডাকে উড়িয়ে দিয়ে স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছিল জুনিয়র টাইগাররা। এবার গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে বৃষ্টি আইনে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ৯ উইকেটে গুঁড়িয়ে দিয়ে দেশের যুবারা পূর্ণতা দিল সেই স্বপ্নকে। বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের ছেলেরা পৌঁছে গেল অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সুপার লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে। 

টুর্নামেন্টের সুপার লিগ সেমি-ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে ক্যাপ্টেন রাকিবুল হাসানের দল খেলবে ভারতের বিপক্ষে। দুই প্রতিবেশীর লড়াই হবে ২৯ জানুয়ারি। 

বৃষ্টির কারণে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের লক্ষ্য দাঁড়িয়ে ছিল ৩৫ ওভারে ১০৭ রান। ওপেনার মাহফিজুল ইসলামের ফিফটিতে লক্ষ্য টপকে ২৪.৫ ওভারে মাত্র এক উইকেট হারিয়ে ১১০ রান তুলে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় দেশের ক্রিকেটাররা। দাপুটে এই জয়টা এসেছে ৬১ বল হাতে রেখেই।

মাহফিজুল ইসলাম ও ইফতেখার হোসেন উদ্বোধনী জুটিতেই জয়ের ভিত গড়ে দেন। দুজনে মিলে সংগ্রহ করে ফেলেন ৮৬ রান। ৩৭ রান করে ইফতেখার ফিরলেও ৬৯ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৬৪* রানের হার না মানা দুরন্ত ইনিংস খেলেন মাহফিজুল। দলকে জয় উপহার দিয়ে তবেই মাঠ ছাড়েন। 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের হয়ে বাংলাদেশের একমাত্র উইকেটটি নেন জাশ গিয়ানানি। সাজঘরে ফিরিয়ে দেন তিনি ওপেনার ইফতেখারকে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪৮.১ ওভারে ১৪৮ রানের পুঁজি গড়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ব্যাট হাতে দাপট দেখান পুনিয়া মেহরা। খেলেন ৪৩ রানের দুরন্ত এক ইনিংস। ধ্রুব পরাশরের ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান। ক্যাপ্টেন আলিশান শারাফু এনে দেন ২৩ রান।

বাংলাদেশের হয়ে তিন উইকেট শিকার করেন রিপন মন্ডল। দুটি করে উইকেট নেন আশিকুর জামান ও তানজিম হাসান সাকিব। তার আগে সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্কে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় জুনিয়র টাইগাররা।

;

দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে খেলতে চায় না তামিম: পাপন



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তামিম ইকবাল

তামিম ইকবাল

  • Font increase
  • Font Decrease

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে লাল-সবুজের জার্সি গায়ে আর খেলতে চান না তামিম ইকবাল। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে ফেরার জন্য জোর না করতেও বোর্ড প্রধানের কাছে অনুরোধ করেছেন বাংলাদেশের সেরা এ ওপেনার।

তামিমের সঙ্গে কথোপকথন নিয়ে বিসিবি'র বোর্ড সভাপতি বলেন, 'ওর সাথে আমি কথা বলেছি। বলতে গেলে... ওকে বলেছিলামও, তুমি আবার টি-টোয়েন্টিতে ফিরে আসো। এটা ছাড়বে কেন? তুমি আমাদের সেরা ওপেনার। অবশ্যই তোমার থাকা উচিত।'

পাপন একটু জোর দিয়ে বললেই টি-টোয়েন্টিতে ফিরবেন তামিম। তেমন আভাস দিয়েছেন দেশের অন্যতম সেরা এ ক্রিকেটার। তবে এমনটা হোক চান না তামিম। আর কখনো টাইগার টিমের হয়ে খেলতে চান না সাদা বলের ক্রিকেটের ছোট্ট সংস্করণে, "টেলিফোনে কথা হয়েছিল। ও আমাকে একটা কথা বলেছে, ‘আপনি আমাকে জোর করবেন না। আপনি বললে তো আমাকে আসতেই হবে। কিন্তু আমি আসলে এই ফরম্যাটে খেলতে চাই না'।" 

টি-টোয়েন্টিতে খেলতে তামিমকে আর জোর করতে চান না বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রধান কর্তা, 'এটা বলার পর আমার মনে হয়েছে, ওকে আর কিছু বলা উচিত না। কেউ যদি খেলতেই না চায়, তাকে জোর করে একটা ফরম্যাটে খেলানো ঠিক না।' 

;

টাইগার যুবাদের জয়ের লক্ষ্য ১৪৯



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জুনিয়র টাইগাররা

জুনিয়র টাইগাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪৮.১ ওভারে ১৪৮ রানের পুঁজি গড়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ব্যাট হাতে দাপট দেখিয়েছেন পুনিয়া মেহরা। খেলেন ৪৩ রানের দুরন্ত এক ইনিংস। ধ্রুব পরাশরের ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান। ক্যাপ্টেন আলিশান শারাফু এনে দেন ২৩ রান।

বাংলাদেশের হয়ে তিন উইকেট শিকার করেন রিপন মন্ডল। দুটি করে উইকেট নেন আশিকুর জামান ও তানজিম হাসান সাকিব।

তার আগে সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্কে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় জুনিয়র টাইগাররা।

;

মিরাজের প্রথম জয়, রিয়াদের টানা দ্বিতীয় হার



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ

৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্যটা ছিল প্রথম জয় ছিনিয়ে নেওয়ার। স্বপ্নটা সত্যি হওয়ার আভাসও মিলেছিল। তামিম ইকবাল হাঁকালেন দারুণ এক ফিফটি। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানটা লিখলেন ব্যর্থতার গল্প। ফলে ফল যা হওয়ার তাই হলো। ম্যাচসেরা নাসুম আহমেদের কিপ্টেমি বোলিংয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের কাছে ৩০ রানে হার মানল মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। এনিয়ে টানা দুই ম্যাচে ধরাশায়ী হলো ক্যাপ্টেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। আর অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজের দল পেল প্রথম জয়।

এবারের বিপিএলে এই প্রথম পরে ব্যাটিং করা দল হারের তেতো স্বাদ হজম করল। এর আগে টস জিতে বোলিং বেছে নেয়া তিন দলই জয়ের দেখা পেয়েছে। দ্বিতীয় দিনে এসে পেল না শুধু ঢাকা।

দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে টানা দুই ম্যাচে অর্ধ-শতকের দেখা পেলেন তামিম। দেশসেরা এ ওপেনার ৪৫ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় পেলেন ৫২ রানের দারুণ এক ক্রিকেটীয় ইনিংস। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ঢাকা ১৯.৫ ওভারেই গুটিয়ে ১৩১ রানে।

শেষ দিকে ইসুরু উদানা (১৬) ও শুভাগত হোম (১৩) চেষ্টা করেও দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে পারেননি। আর আন্দ্রে রাসেল তো হতাশ করেন ১২ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরে। চট্টগ্রামের জার্সি গায়ে কিপ্টেমি বোলিংয়ে ৯ রানে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ। শরিফুল ইসলাম ৩৪ রান খরচায় নেন ৪ উইকেট।

একটি অলিখিত নিয়ম যেন হয়ে যাচ্ছে এবারের বিপিএলে। দিনের প্রথম ম্যাচে রান হবে না। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে ছুটবে রানের ফোয়ারা। আসরের আজ দ্বিতীয় দিনের প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্স গুটিয়ে গেল ৯৬ রানে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ব্যাটিংয়ের চিত্রনাট্যটা পাল্টে যায়। জয়ের জন্য মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার সামনে ১৬২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছুঁড়ে দেয় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুরন্ত ব্যাটিং করলেন উইল জ্যাক। তবে ৯ রানের জন্য অর্ধ-শতক মিস করেন এ ইংলিশ ওপেনার। ২৪ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় খেলেন ৪১ রানের দারুণ এক ইনিংস।

শেষ দিকে ৩৭ রান যোগ করেন বেনি হাওয়েল। সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ এনে যথাক্রমে ২৯ ও ২৫ রান। এতেই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স গড়ে ১৬১ রানের লড়াকু স্কোর। ঢাকার জার্সি গায়ে একাই তিন উইকেট শিকার করেন রুবেল হোসেন। একটি করে উইকেট নেন আরাফাত সানি, ইসুরু উদানা, শুভাগত হোম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

;