স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার

তামিমের শতকে উড়ে গেল সিলেট



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তামিম ইকবাল

তামিম ইকবাল

  • Font increase
  • Font Decrease

শুরুতে শতক হাঁকালেন লেন্ডল সিমন্স। জবাবে সেঞ্চুরি ছিনিয়ে নিলেন তামিম ইকবালও। কিন্তু শেষ হাসিটা হাসলেন চট্টগ্রামের ছেলে তামিমই। কেনন তার জাদুকরী তিন অঙ্কের ছোঁয়াতে সিলেট সানরাইজার্সকে ৯ উইকেট উড়িয়ে দিয়েছে মিরিস্টার গ্রুপ ঢাকা। ধ্বংসাত্মক এ জয়টা এসেছে ১৮ বল হাতে রেখেই।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের ব্যাটিং পিচে টস হেরে শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে ঝলক দেখা সিমন্স। হাঁকান এবারের বিপিএলের প্রথম সেঞ্চুরি। ৬৫ বলে ১৫ বাউন্ডারি ও ৫ ছক্কায় খেলেন ১১৬ রানের দুরন্ত এক ক্রিকেটীয় ইনিংস। তাতেই সিলেটের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১৭৫ রান। ঢাকার হয়ে একটি করে উইকেট শিকার করেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, আন্দ্রে রাসেল, এবাদত হোসেন ও কাইস আহমদ।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বিস্ফোরক ব্যাটিং শুরু করেন ম্যাচসেরা তামিম। ৬৪ বলে ১৭ বাউন্ডারি ও চার ছক্কায় খেলেন ১১১* রানের হার না মানা অনন্য এক ক্রিকেটীয় ইনিংস। ফলে দুই ইনিংসে দুদলই পেল সেঞ্চুরির দেখা। তামিমের ওপেনিং পার্টনার মোহাম্মদ শাহজাদ খেলেন ফিফটি। ৩৯ বলে ৭ চার ও এক ছয়ে ৫৩ রান এনে দিয়ে তবেই ফেরেন। উদ্বোধনী জুটিতেই দুজনে তুলে ফেলেন ১৭৩ রান।

পরে ১৭তম ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ঢাকাকে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছে দেন তামিম। এক উইকেট হারিয়ে ঢাকা ছুঁয়ে ফেলে ১৭৭ রানের জয়ের লক্ষ্য। সিলেটের হয়ে একমাত্র উইকেটটি নেন আলাউদ্দিন বাবু।

স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে গর্ব করছেন ক্রিকেটাররা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
পদ্মা সেতু

পদ্মা সেতু

  • Font increase
  • Font Decrease

স্বপ্নের পদ্মা সেতু পেয়ে সারা দেশ আজ আনন্দের জোয়ারে ভাসছে। সেই খুশির জোয়ার ছুঁয়ে গেছে দেশের ক্রিকেটারদেরও। গর্বের পদ্মা সেতু পেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ক্রিকেট তারকারা। 

খুলনার ছেলে সাকিব আল হাসান প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ, বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের পক্ষ থেকে। কারণ আমার কাছে মনে হয়, এটা দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের জন্য সবচেয়ে বড় অবদান। এবং এটা পুরো বাঙালি জাতির একটা স্বপ্ন ছিল, যেটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য সম্ভব হয়েছে।’

সাকিব আরও বলেন, ‘সে কারণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। আর আশা করি এই পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অর্থনীতিকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

দেশের বিশাল অর্জন পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর তামিমও ধন্যবাদ দিলেন প্রধানমন্ত্রীকে, ‘আমার মনে হয় বাংলাদেশের জন্য বিশাল বড় একটা অর্জন। একটা সময় এমন ছিল যখন আমরা নিশ্চিত ছিলাম না যে পদ্মা সেতু হবে কি হবে না। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। ওনার নিবেদনের কারণে, ওনার চেষ্টার কারণে আজকে আমরা পদ্মা সেতু পেয়েছি।’

তামিম আরও যোগ করেন, ‘সাথে এটাও বলব, পদ্মা সেতুর প্রকল্পের সঙ্গে যারাই যুক্ত ছিল, তাদেরকেও অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ। বিশেষ করে যারা কর্মী ছিলেন, আপনাদের একটা কথাই বলতে চাই যে আপনারা এমন একটা কাজ করেছেন, যেটা বাঙালি জাতি আজীবন মনে রাখবে। আমার ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে মুশফিকুর রহিম ফেসবুকে লিখেছেন, 'আমরা দীর্ঘদিন ধরে যা স্বপ্ন দেখছিলাম তা অবশেষে বাস্তবে পরিণত হয়েছে। আমাদের নিজস্ব পদ্মা সেতু নিয়ে গর্ববোধ করছি। মাশাল্লাহ।' 

স্বপ্নের পদ্মা সেতু পেয়ে যারপরনাই খুশি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, 'স্বপ্নের পদ্মা সেতু, আমাদের গর্বের পদ্মা সেতু। অসংখ্য ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করার জন্য।'

তারকা ক্রিকেটার জাহানারা আলম ফেসবুকে লিখেছেন,' স্বপ্নের পদ্মা সেতু। আমার দেশ, আমার গর্ব।'

;

কেক কেটে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের উচ্ছ্বাসে সামিল ক্রিকেটাররা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
টাইগার ক্রিকেটাররা

টাইগার ক্রিকেটাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ সত্যি। প্রমত্তা পদ্মা জয়ের ইতিহাস রচিত হলো বাঙালির অনন্য সাহসিকতায়। দেশের দখিনের দুয়ার আজ খোলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে উচ্ছ্বাসে ভাসিয়ে জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উদ্বোধন করলেন নিজের সাহস আর একান্ত প্রচেষ্টায় গড়া পদ্মা সেতু। 

এমন মাহেন্দ্রক্ষণে সুদূর ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেন্ট লুসিয়া থেকে বাংলাদেশের এ বিজয়ের উৎসবে শামিল হলেন টাইগাররা। কেক কেটে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের শুভক্ষণ উদযাপন করলেন সাকিব আল হাসানের বাহিনী।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট সিরিজের মাঝেই উদ্বোধন হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতু। গতকাল শুক্রবার ২৪ জুন সেন্ট লুসিয়ায় মাঠে গড়িয়েছে দ্বিতীয় টেস্ট। আজ শনিবার ২৫ জুন দ্বার খুলে গেল পদ্মা সেতুর। পদ্মা নদীর দুই পাড়ের মাঝে চালু হলো ঐতিহাসিক সড়ক যোগাযোগ।

ব্যাপারটা মাথায় রেখেই দুই ম্যাচের এই সিরিজের নাম রাখা হয়েছে পদ্মা সেতুর নামে। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে খেলতে যাওয়া সিরিজের নামকরণ করা হয়েছে ‘পদ্মা ব্রিজ ড্রিম ফুলফিলড ফ্রেন্ডশিপ টেস্ট সিরিজ, প্রেজেন্টেড বাই ওয়ালটন।’

;

টাইগাররা থামল ২৩৪ রানে



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তামিম ইকবাল

তামিম ইকবাল

  • Font increase
  • Font Decrease

শুরুতে ব্যাটিংটা হলো দারুণ।তবে চার রানের জন্য ফিফটি মিস করেন তামিম ইকবাল। তার মতো ভুল করেননি লিটন দাস। ব্যাটিংয়ে সাফল্য বলতে এতটুকু। ফলে টাইগারদের প্রথম ইনিংস থামল ২৩৪ রানে।

লিটন দাস ৫৩ রান করেই ক্রিকেটের তিন সংস্করণে ২০২২ সালে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন। তামিম ইকবাল ফিরে গেছেন ৪ রানের আক্ষেপ নিয়ে। দেশসেরা এ ওপেনারের ব্যাট থেকে এসেছে ৪৬ রান।

নাজমুল হোসেন শান্ত ২৬, এনামুল হক বিজয় ২৩, শরিফুল ২৬ ও এবাদত হোসেন ২১ রান করেন। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন জেডেন সিলেস ও আলজারি জোসেফ। দুটি করে উইকেট নেন কাইল মেয়ার্স ও অ্যান্ডারসন ফিলিপ। 

শেষ দিকে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দিন শেষে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৬৭ রান সংগ্রহ করেছে ক্যারিবিয়ানরা। ৩২ রান নিয়ে ব্যাটিং করে যাচ্ছেন জন ক্যাম্পবেল। ৩০ রান নিয়ে তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট।

;

ব্যাটিংয়ে টাইগাররা, মুমিনুল-মুস্তাফিজ আউট, বিজয়-শরিফুল ইন



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট লড়াই

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট লড়াই

  • Font increase
  • Font Decrease

সেন্ট লুসিয়ায় দ্বিতীয় টেস্টে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফলে শুরুতে ব্যাট হাতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের একাদশ থেকে ছিটকে গেছেন মুমিনুল হক ও মুস্তাফিজুর রহমান। তাদের বদলে দলে ঢুকেছেন ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয় ও তরুণ পেসার শরিফুল ইসলাম।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের একাদশেও এসেছে একটি বদল। গুডাকেশ মটি-কানহাইয়ের জায়গায় দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন ফিলিপ অ্যান্ডারসন। এ ম্যাচ দিয়ে তার অভিষেক হচ্ছে টেস্টে।

অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টে বাজে ব্যাটিং পারফরম্যান্সে বড় ব্যবধানে হেরে গেছে টাইগাররা। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে তাই দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট সিরিজ নির্ধারিত হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেন্ট লুসিয়া টেস্ট যারা জিতবে। সিরিজ ট্রফি পাবে তারাই। প্রথম টেস্ট জিতে দুই ম্যাচের সিরিজে অবশ্য ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে ট্রফি জয়ের পথটা সহজ করে রেখেছে স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, মাহমুদুল হাসান জয়, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, এবাদত হোসেন, সৈয়দ খালেদ ও শরিফুল ইসলাম।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: ক্রেগ ব্রাফেট (অধিনায়ক), কাইল মেয়ার্স, জশুয়া ডি সিলভা (উইকেটরক্ষক), অ্যান্ডারসন ফিলিপ, জার্মেইন ব্ল্যাকউড, রেমন রেইফার, এনক্রুমাহ বোনার, কেমার রোচ, জন ক্যাম্পবেল, জেডেন সিলেস ও আলজারি জোসেফ।

;