লিভারপুলের হৃদয় ভেঙে ফের ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের শিরোপা উৎসব

চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের শিরোপা উৎসব

  • Font increase
  • Font Decrease

চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের মিশনে ফের হতাশ হতে হলো লিভারপুলকে। এ নিয়ে ইউরোপ সেরা হওয়ার স্বপ্ন চতুর্থবারের মতো ভেঙে দ্য রেড শিবিরের। ফলে সপ্তমবারের মতো ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া হলো তাদের। 

ভিনিসিয়াস জুনিয়রের দ্বিতীয়ার্ধের গোলে প্যারিসের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। রেকর্ডটা বাড়িয়ে ১৪বারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগ ট্রফি জিতল এ স্প্যানিশ জায়ান্ট। 

মাঠে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা লড়েছে মূলত এক জনের বিপক্ষে। রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া অসাধারণ খেলে গেছেন লিভারপুলের বিপক্ষে। মোহামেদ সালাহকে হতাশ করেছেন ছয়-ছয় বার। 

প্রথম কোচ হিসেবে চতুর্থ চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জয়ের ইতিহাস লিখেছেন কার্লো আনচেলত্তি।

২০১৮ সালে এই রিয়াল মাদ্রিদের কাছেই চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে হেরেছিল লিভারপুল। সেই হারের মধুর প্রতিশোধ নেয়া হলো না সালাহদের।

কোচ পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা হাতছাড়া করে কোয়াড্রাপল জয়ের আশা আগেই মিলিয়ে গেছে লিভারপুলের। এবার চ্যাম্পিয়নস লিগে হেরে তাদের ট্রেবল জয়ের স্বপ্নও উবে গেল। 

নাদালের জয়, সেরেনার বিদায়



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
রাফায়েল নাদাল ও সেরেনা উইলিয়ামস

রাফায়েল নাদাল ও সেরেনা উইলিয়ামস

  • Font increase
  • Font Decrease

সেরেনা উইলিয়ামস উইম্বলডন থেকে গত বছর ছিটকে গিয়েছিলেন চোট নিয়ে। পরে খেলেননি অন্য গ্র্যান্ড স্ল্যামে। এবার ফিরলেন লন্ডনের এই আসর দিয়েই। তবে তার প্রত্যাবর্তনটা সুখকর হলো না মোটেই। 

প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিলেন এ মার্কিন কন্যা। ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে খেলতে আসা সেরেনা ফরাসি প্রতিপক্ষ হারমনি ট্যানের কাছে পরাজিত হয়েছেন ৫-৭, ৬-১ ও ৬-৭ (৭-১০) গেমে।

সেরেনা বিদায় নিলেও জয় পেয়েছেন রাফায়েল নাদাল। তবে সেজন্য স্প্যানিশ এ তারকাকে ঘাম ঝরাতে হয়েছে। 

আর্জেন্টাইন প্রতিপক্ষ ফ্রান্সিসকো সেরুন্দোলোকে ৬-৪, ৬-৩, ৩-৬ ও ৬-৪ গেমে হারিয়ে দ্বিতীয় বাছাই নাদাল পৌঁছে গেছে দ্বিতীয় রাউন্ডে। 

;

ইংল্যান্ডের মাটিতে নিউজিল্যান্ড হোয়াইটওয়াশ



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বেন স্টোকসদের শিরোপা উৎসব

বেন স্টোকসদের শিরোপা উৎসব

  • Font increase
  • Font Decrease

একে একে তৃতীয় টেস্টও নিজেদের করে নিল ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিলো ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে। 

দাপুটে এ জয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডকে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করল স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

হেডিংলিতে জয়ের জন্য ইংলিশদের সামনে ২৯৬ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র তিন উইকেট হারিয়েই জয়ের বন্দরে পা রাখে স্বাগতিকরা।

ব্যাট হাতে দাপট দেখালেও সেঞ্চুরির দেখা পাননি অলি পোপ (৮২), জো রুট (৮৬*) ও জনি বেয়ারস্টো (৭১*)। তিন জনকেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ফিফটি নিয়ে। 

দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ড করে ৩২৬ রান। এতে কিউইদের লিড দাঁড়ায় ২৯৫ রান।

তার আগে নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে ৩২৯ রানের জবাবে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে করে ৩৬০ রান।

;

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু ৮ অক্টোবর



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
টাইগার ক্রিকেটাররা

টাইগার ক্রিকেটাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি সিরিজটি হবে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে। সিরিজে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বাংলাদেশের অন্য প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। 

তিন পক্ষ সম্মত হওয়ায় অবশেষে সিরিজের সূচি দিয়েছে আয়োজক নিউজিল্যান্ড। সিরিজে খেলা হবে ডাবল হেডার পদ্ধতিতে। মানে প্রথম পর্বে তিন দেশই একে অন্যের বিপক্ষে দুটি করে ম্যাচ খেলবে। শীর্ষে থাকা দুই দল ফাইনালে লড়বে শিরোপার জন্য। 

৮ অক্টোবর বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। ১০ অক্টোবর স্বাগতিক কিউইদের বিপক্ষে লড়াই করবে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের পরের দুটি ম্যাচ হবে যথাক্রমে ১৩ ও ১৪ অক্টোবর। ফাইনাল হবে ১৫ অক্টোবর। 

সিরিজের সব ম্যাচ হবে ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে। 

অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় বসবে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বৈশ্বিক এ ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে ত্রিদেশীয় এই সিরিজ নিয়ে অনেক দিন ধরেই আলোচনা হয়ে আসছিল।

;

লড়াইহীন সিরিজে টাইগারদের হোয়াইটওয়াশ করল ক্যারিবিয়ানরা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
এনামুল হক বিজয়

এনামুল হক বিজয়

  • Font increase
  • Font Decrease

ইনিংস হারের সব রকম ব্যবস্থাই প্রস্তুত ছিল। কিন্তু নুরুল হাসান সোহানের ব্যাটিং দৃঢ়তায় সেই লজ্জা এড়ানো গেলেও ম্যাচ বাঁচানো যায়নি। এড়ানো যায়নি হার। ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে হার মানল টাইগাররা। দ্বিতীয় ইনিংসে কোনো উইকেট না হারিয়েই জয়ের লক্ষ্য ১৩ রান তুলে শিরোপা উৎসবে মাতলো স্বাগতিকরা। প্রথম টেস্টের মতো এ ম্যাচের ব্যাট বলের লড়াইও থামল চতুর্থ দিনের খেলা মাঠে গড়়াতেই। প্রকৃতি শত চেষ্টা করেও যেন টাইগারদের ম্যাচ বাঁচাতে পারল না। বৃষ্টির হানায়ও হলো না কোনো লাভ। 

এ জয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সাকিব বাহিনীকে ২-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করল উইন্ডিজ। অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে ধরাশায়ী হয়েছিল দেশের ছেলেরা। টাইগারদের ফের ধসিয়ে দিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের র‍্যাঙ্কিংয়ের মূল্যবান ১২টি পয়েন্ট পেল মেন ইন মেরুন শিবির। 

প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংটা ভালো হয়নি সাকিব-তামিমদের। দ্বিতীয় ইনিংসেও সফরকারীদের ব্যাটিং হলো যাচ্ছে তাই বাজে। ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ১৩। মাত্র ২.৫ ওভার ব্যাট করেই সহজ এই টার্গেটটা ক্যাপ্টেন ক্রেইগ ব্রাথওয়েটের দল তুড়ি মেরে তুলে ফেলে উদ্বোধনী জুটিতেই। জন ক্যাম্পবেল ৯ আর ব্রাথওয়েট ৪ রান এনে দিতেই জয়ের বন্দরে পা রাখার আনন্দে নেচে উঠে উইন্ডিজ।

ব্যাট হাতে একাই লড়ে গেছেন নুরুল হাসান সোহান। হাঁকালেন দাপুটে এক হাফ-সেঞ্চুরি। ৫০ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় খেলেন ৬০ রানের দারুণ এক ইনিংস। তবে আলজারি জোসেফ, জেডেন সিলেস ও কেমার রোচের পেস ঝড়ে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের সংগ্রহটা বড় হয়নি। যে কারণে সেন্ট লুসিয়া টেস্টও জমে উঠেনি। তার সঙ্গে সিরিজ জয়ের লড়াইটাও হলো একপেশে। ক্যারিবিয়ানদের কাছে রীতিমতো উড়ে গেল লাল-সবুজ পতাকাধারীরা। লাল বলের ক্রিকেটে শততম ম্যাচ হারল বাংলাদেশ।

সোহানের ফিফটিতেই দ্বিতীয় ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৮৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। তবে এতে লিড দাঁড়ায় মাত্র ১২ রানের। মেহেদী হাসান মিরাজ ৪ এনে দিয়ে সাজঘরে ফিরে দর্শকদের হতাশ করেন। লেজের দিকের তিন ব্যাটসম্যান এবাদত হোসেন, শরিফুল ইসলাম ও খালেদ আহমেদ ডাক মারায় সোহানের ইনিংস বড় হয়নি। বাড়েনি টাইগারদের লিড।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন কেমার রোচ, আলজারি জোসেফ ও জেডেন সিলেস। তার আগে ৬ উইকেটে ১৩২ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। নুরুল হাসান সোহান ১৬ ও মেহেদী হাসান মিরাজ শূন্য রান নিয়ে ব্যাটিং করতে মাঠে নামেন। বৃষ্টি বিঘ্নিত চতুর্থ দিনে দীর্ঘ সময় পর খেলা শুরু হলেও টাইগারদের ব্যাটিং লড়াই টিকল মাত্র ৯ ওভার।

দুই ওপেনার ব্যর্থ হলেও হাল ধরে দলকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন ওয়ানডাউনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে ফিফটি পাননি তিনি। ৯১ বলে ৮ বাউন্ডারিতে খেলেন ৪২ রানের ইনিংস। 

ড্যারেন স্যামি ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাকি ব্যাটসম্যানরা ছিলেন আসা যাওয়ার পথে। ক্রিকেট অনুরাগীদের হতাশ করে বিদায় নেন তামিম ইকবাল (৪), এনামুল হক বিজয় (৪) ও মাহমুদুল হাসান জয় (১৩)। লিটন দাস ১৯ ও সাকিব করেন ১৬ রান। 

ম্যাচসেরা ও সিরিজসেরা কাইল মেয়ার্সের সেঞ্চুরিতে সবকটি উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকরা দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে গড়ে ৪০৮ রানের পুঁজি। এতে উইন্ডিজ লিড পায় ১৭৪ রানের। আর লিটন দাসের ফিফটির পরও বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যায় ২৩৪ রানে।

;