চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে উৎসাহ উদ্দীপনা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
মাঠের চারপাশে উপচে পড়া দর্শকের ভিড়

মাঠের চারপাশে উপচে পড়া দর্শকের ভিড়

  • Font increase
  • Font Decrease

একটি ফুটবল টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রায় ক্রীড়ামোদি তরুণ-যুবাদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনার ঢল নেমেছে। মোবাইল স্ক্রীন ও ভিডিও গেম ছেড়ে তারা স্বেচ্ছায় খেলার মাঠমুখী হয়েছে।

চেয়ারম্যান ক্যাপ ২০২২ নামের এই ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজক খোদ যদুবয়রা ইউনিয়ন পরিষদ। পৃষ্ঠপোষক ও পরিকল্পক পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান। সকল নেতিবাচকতা পিছনে ফেলে টুর্নামেন্ট এলাকাবাসীর আনন্দ-বিনোদনে মেতে উঠেছে।

জানা গেছে, কাঙাল, লালন, রবীন্দ্র, মশাররফের জন্ম-স্মৃতি ধন্য কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রা ইউনিয়ন শিল্প, সাহিত্য-সংস্কৃতি ও ক্রীড়ার ক্ষেত্রে ঐতিহ্যবাহী। যদুবয়রা মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে তৎকালে গড়ে ওঠে ক্রীড়া, শিল্প, সাংস্কৃতিক চর্চা। এরই সূত্র ধরে গড়ে উঠেছিল দুলাল মেমোরিয়াল ক্লাব। প্রতিষ্ঠালাভ করে একাধিক সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। জেলা স্তরে যেসব ক্রীড়া সাংস্কৃতিক চর্চা দেখা যেতো না, তা হতো যদুবয়রায়। যাত্রাপালা, ফুটবল ম্যাচ, সঙ্গীতানুষ্ঠান, নাটক, পাঠাগার আন্দোলন কোন কিছুই বাদ ছিল না।

সাম্প্রতিককালে আধুনিক প্রযুক্তিতে ঝুঁকে পড়ার দরুণ তরুণ ও যুব সমাজ মোবাইল স্ক্রীন আর ভিডিও গেমে আটকে যায়। ক্রমশ হারাতে বসে যদুবয়রার আগের ঐতিহ্য। এই অচলাবস্থার মুখে চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এখন ইউনিয়নটিতে আনন্দের জোয়ার নিয়ে এসেছে।

খেলোয়াড়দের সঙ্গে প্রধান অতিথির করমর্দন

খেলায় যদুবয়রা ইউনিয়নের ওয়ার্ডের মেম্বারদের নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে একাধিক ফুটবল একাদশ। দলগুলো নিয়ে লীগ পদ্ধতিতে ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সোমবার অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের তৃতীয় খেলায় এক নম্বর ওয়ার্ডের আনিচুর রহমান মেম্বার ফুটবল একাদশ বনাম ৮ নম্বর ওয়ার্ড আবদুল মালেক মেম্বার ফুটবল একাদশ লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়। বিকালে যদুবয়রা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রধান অতিথি হিসাবে মাঠে বল গড়িয়ে খেলা উদ্বোধন করেন ভ্রমণ পরিব্রাজক, ভ্রমণ গদ্য সম্পাদক ও বার্তা২৪.কমের কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, এলাকার কৃতি সন্তান মাহমুদ হাফিজ। বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা মো. আকাশ রেজা। খেলা চলাকালে টুর্নামেন্টের পৃষ্ঠপোষক যদুবয়রা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারমান মিজানুর রহমান মিজান। স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গের মধ্য জয়নাল বিশ্বাস, লুৎফর রহমান মাস্টার, মনসুর আলী মাস্টার, জিয়াদুল ইসলাম মিলন, আবদুল লতিফ জোয়ার্দ্দার প্রমুখ এবং সকল ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

খেলাটি গোলশূন্য ড্র হয়। খেলায় দৃষ্টিনন্দন ক্রীড়া নৈপুণ্য দেখিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হন এক নম্বর ওয়ার্ডের আনিচুর রহমান মেম্বার একাদশের খেলোয়াড় হাফিজুর রহমান। অতিথিবৃন্দ তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

খেলা শুরুর আগে জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হলে সবাই উঠে দাঁড়ায়। অতিথিবৃন্দ মাঠে খেলোয়াড়দের সঙ্গে পরিচিত হন। পরে মধ্যবিরতিসহ দুই পর্বে ৯০ মিনিট ধরে খেলা চলে।

আগামী শুক্রবার আরও দুটি ওয়ার্ডের মধ্যে টুর্নামেন্টের চতুর্থ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়।

সিলেটের হেড কোচ নাজমুল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সাবেক পেসার নাজমুল হোসেন

সাবেক পেসার নাজমুল হোসেন

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় ক্রিকেট লিগে সিলেট বিভাগের প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন নাজমুল হোসেন। ইনজুরির কারণে ক্রিকেট ক্যারিয়ার দীর্ঘ করতে না পারায় কোচিং বেছে নিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এ পেসার।  

বিভাগীয় দল ছাড়াও বর্তমানে বিসিবির বাংলা টাইগার্সের বোলিং কোচ হিসেবে করছেন নাজমুল।

নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে যারপরনাই রোমাঞ্চিত নাজমুল, ‘আলহামদুলিল্লাহ, অনেক বড় একটি দায়িত্ব পেয়েছি। দেখেন বর্তমান সময়ে টেস্ট ক্রিকেটে কিন্তু সিলেটের পেসাররাই লিড করছে। বেশ দাপটের সাথেই তারা ভালো করছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। আমি যেহেতু নতুন করে সিলেট বিভাগের দায়িত্বে এসেছি লক্ষ্য থাকবে, পেসারদের এ ধারা অব্যাহত রাখার। এর পাশাপাশি ভালো ইয়াং ৩ থেকে ৪ জন ব্যাটারকে ইস্টাবলিশ করা। যেহেতু অলক ভাই, রাজিন ভাই অবসর নেওয়ার কারণে ব্যাটিংয়ে একটা বড় গ্যাপ পড়ে গেছে।’

ভালো খেলায় মনোযোগ থাকলেও চ্যাম্পিয়নের স্বপ্ন দেখছেন না নাজমুল, ‘এবার সিলেট দলে ৩-৪ জন দারুণ ব্যাটার রয়েছে। বিশেষ করে আবু বক্কর, অমিত হাসান, জাকির হাসান এদের ভালো করার সম্ভাবনা অনেক বেশি। একটা জিনিস বলি, সব বিভাগের খেলোয়াড়দের তুলনায় সবথেকে তরুণ ক্রিকেটার এবার সিলেট বিভাগে। আমি সে কারণে চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিয়ে খুব একটা ভাবছি না, ম্যাচ বাই ম্যাচ ভালো করার পরিকল্পনায় এগিয়ে যেতে চাই।’

;

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১২৭



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইন্দোনেশিয়ায় একটি স্টেডিয়ামে ফুটবল দর্শকদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে এবং পদদলিত হয়ে অন্তত ১২৭ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে দুজন পুলিশ কর্মকর্তা বলে জানা গেছে।

দেশটির একজন পুলিশ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে স্কাই নিউজ এই তথ্য জানিয়েছে। 

শনিবার (১ অক্টোবর) আরেমা এবং পার্সেবায়া সুরাবায়ার মধ্যকার খেলা চলাকালীন পূর্ব জাভার একটি স্টেডিয়ামে এই সহিংসতার ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে আহত হয়েছে আরও অন্তত ১৮০ জন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, আরেমা ম্যাচটি ২-৩ ব্যবধানে হেরে যায়। দল হেরে যাওয়ায় হাজার হাজার আরেমা ভক্তরা মাঠে নেমে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।সেই সময় মাঠে থাকা বেশ কয়েকজন আরেমার খেলোয়াড়ের ওপর হামলা হয়েছে বলেও দাবি করা হয়।

নিরাপত্তা বাহিনী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানা গেছে, কয়েক হাজার দর্শক একসঙ্গে স্টেডিয়ামে জোর করে ঢুকে পড়ে এবং পরস্পরের মধ্যে হুড়োহুড়ির সৃষ্টি হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ভিড় লক্ষ্য করে কাঁদানে গ্যাসের শেল ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এর ফলে ভিড়ের মধ্যে পদদলিত হয়ে অনেকে মারা যায়। সংঘর্ষ থামার পর ঘটনাস্থলে হতাহতদের আশপাশে হাজার হাজার পরিত্যক্ত জুতা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে ছিল।

এ ঘটনায় ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল লিগ এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করা হয়েছে এবং আরেমাকে বাকি মৌসুমের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

;

উষ্ণ অভ্যর্থনায় সিক্ত সোহাগী ও স্বপ্না



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঠাকুরগাঁও
উষ্ণ অভ্যর্থনায় সিক্ত সোহাগী ও স্বপ্না

উষ্ণ অভ্যর্থনায় সিক্ত সোহাগী ও স্বপ্না

  • Font increase
  • Font Decrease

নেপালকে হারিয়ে প্রথমবারের মত সাফ নারী চাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। নারী ফুটবল দলের এ বিজয়কে সাধুবাদ জানিয়ে ফুটবল দলের সদস্য স্বপ্না রানী ও সোহাগী কিসকুকে গণসংবর্ধনা দিয়েছেন জেলা প্রশাসন ঠাকুরগাঁও।

শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সামনে এ গণসংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। গণসংবর্ধনায় জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ জেলার বিভিন্ন ক্রীড়া,সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনগুলো তাদের উষ্ণ অভ্যর্থনা প্রদান করেন৷ এছাড়াও জেলা প্রশানের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে ২৫ হাজার টাকা তাদের দেওয়া হয়৷

সকালে নিজ বাড়ি থেকে ঢাক ঢোলের সুরে গাড়ি বহর করে তাদেরকে নিয়ে আসা হয় গণসংবর্ধনায়। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঠাকুরগাঁও -১ আসনের সাংসদ রমেশ চন্দ্র সেন৷ আরো বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাদেক কুরাইশী, ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র আঞ্জুমান আরা বন্যা,জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাসহুদুর রহমান বাবু প্রমুখ।

উষ্ণ অভ্যর্থনা ও গণমানুষের এমন ভালবাসা পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে স্বপ্না ও সোহাগী বলেন, এমন একটি দিন আমাদের জীবনে আসবে আমরা কখনো কল্পনা করতে পারিনি৷ এত বেশী ভালবাসা পেয়েছি আর পাচ্ছি তা বলার মতো নয়৷ আমরা ঠাকুরগাঁও বাসীর কাছে চিরকৃতজ্ঞ। বিশেষ করে কৃতজ্ঞতা জানায় আমাদের তাজুল স্যারের প্রতি। যিনি আমাদের এখানে আসতে সাহায্য করেছেন। তিনি এমন উদ্যোগ গ্রহণ না করলে হয়তো আজ এত ভালবাসা পেতামনা। সেই সাথে যারা আমাদের কোচ ছিলেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আমরা আশা রাখছি এ সংবর্ধনা আমাদের অনুপ্রাণিত করবে। আমরা একদিন বিশ্বকাপ খেলব ইনশাআল্লাহ৷

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সাংসদ রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, নারী ফুটবল দল চমক দেখিয়েছে। তার মধ্যে আমাদের জেলার দুইজন নারী ফুটবল দলের সদস্য। আমরা তাদের জন্য গর্বিত। আমরা মনে করছি তাদের এ সংবর্ধনার আয়োজনের মধ্য দিয়ে তারা আরো সামনে এগিয়ে যাবে। সেই সাথে তারা যাতে করে আরো সামনে এগিয়ে যায় তাদের সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলার খেলোয়াড় ও তাদের পরিবারের পাশে থাকার দৃঢ় আশ্বাস জানিয়ে জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান বলেন, আমাদের জেলার মেয়েরা দুর্দান্ত ফুটবল খেলে থাকেন। তাদের খেলা আমি দেখেছি। তারা ইতিমধ্যে ভালো করছে আগামীতে আরো অনেক ভালো করবে আমরা আশা করছি। তাদের খেলাধুলা যাতে কোন কারনে থেমে না যায় সেজন্য জেলা প্রশাসন সবসময় তাদের পাশে থাকবে।

;

জয়ে শুরু চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাংলাদেশ-থাইল্যান্ড

বাংলাদেশ-থাইল্যান্ড

  • Font increase
  • Font Decrease

নারী এশিয়া কাপে জয় দিয়ে শুরু করেছে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। উদ্বোধনী ম্যাচে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা ৯ উইকেটে গুঁড়িয়ে দিয়েছে থাইল্যান্ডের মেয়েদের।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ১৯.৪ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে মাত্র ৮২ রানের পুঁজি গড়ে থাই কন্যারা।

জবাবে এক উইকেট হারিয়ে ৮৮ রানের স্কোর ছুঁয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে বাংলার দামাল মেয়েরা। 

এর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের সেমি-ফাইনালে থাইল্যান্ডকে হারিয়ে ছিল বাংলাদেশের মেয়েরা।

;