রেকর্ড ম্যাচে জয় চান বেল, ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া ইরান

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে ইউরোপের দেশ ওয়েলস ও এশিয়ার দেশ ইরান। প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হারা ইরান এই ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। এদিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শেষ মুহূর্তের গোলে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সমতায় ম্যাচ শেষ করা ওয়েলস চায় এগিয়ে যেতে।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে। বাংলাদেশ টেলিভিশন, টেন স্পোর্টস ও গাজী টিভি খেলাটির সরাসরি সম্প্রচার করবে।

এই ম্যাচের মাধ্যমে ওয়েলস অধিনায়ক গ্যারেথ বেল দেশের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়বেন। বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত ওয়েলসের সর্বাধিক ম্যাচ খেলা ফুটবলার ছিলেন ক্রিস গান্টার। রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক ফরোয়ার্ড গ্যারেথ বেল ১০৯ ম্যাচ খেলা গান্টারের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন গত ম্যাচেই; যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে। ওয়েলস অধিনায়ক ওই ম্যাচে পেনাল্টি থেকে গোল করেছিলেন।

‘বি’ গ্রুপের পয়েন্ট তালিকায় ওয়েলসের স্থান শীর্ষে থাকা ইংল্যান্ডের ঠিক পরেই। তৃতীয় স্থানে যুক্তরাষ্ট্র, তালিকার তলানিতে ইরানের স্থান।

এবারের বিশ্বকাপে ইরানের শুরুটা হয়েছে দুঃস্বপ্নের মতো। ফেবারিট ইংল্যান্ড এশিয়ার দেশটির জালে গোলবন্যা বইয়ে দিয়েছিল। ম্যাচের ফলাফল ছিল ৬-২। অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়েও এক পয়েন্ট আদায় করেছিল ওয়েলস।

বিশ্বকাপে ইরান-ওয়েলস এবারই প্রথম মুখোমুখি হচ্ছে। তবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে আগে একবার লড়াইয়ে নেমেছিল তারা। ১৯৭৮ সালে অনুষ্ঠিত সেই প্রীতি ম্যাচে ১ গোলে জয় পেয়েছিল ওয়েলস।

ইতিহাস ইরানে পক্ষ না থাকলেও সাম্প্রতিক দুই প্রীতি ম্যাচ আশা যোগাচ্ছে তাদের। এছাড়াও আছে কোচ কার্লোস কুইরোজের অভিজ্ঞতা। গত সেপ্টেম্বরে কুইরোজের পরিকল্পনায় খেলা ইরান লাতিন আমেরিকার দেশ উরুগুয়ের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল, ড্র করেছিল আফ্রিকান নেশনস কাপ জয়ী সেনেগালের বিপক্ষে।

এরবাইরে ইরানের জন্যে সুবিধার অন্য জায়গা হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের আবহাওয়া। কাতারের স্থানীয় সময় বেলা ১টার আবহাওয়া তাদেরকে কিছুটা হলেও এগিয়ে দিতে পারে।

এদিকে, ওয়েলস বিশ্বকাপে এসেছে এবার ৬৪ বছর পর। সবশেষ ১৯৫৮ সালের বিশ্বকাপ খেলেছিল তারা, মাত্র ১ ম্যাচ জিতে সেবার কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছেছিল তারা। ৫ ম্যাচ খেলে সমান ১টি করে জয়-পরাজয় আর তিন ড্র ছিল তাদের। কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েলস হেরেছিল ব্রাজিলের কাছে; ব্যবধান ছিল ১-০।

সোয়ানসি সিটির মিডফিল্ডার জো অ্যালেন ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফিরছেন এ ম্যাচে। হ্যারি উইলসন, অ্যারন রামসি, গ্যারেথ বেলের মতো তারকার পাশাপাশি কিয়েফার মুরের পারফরম্যান্স ওয়েলস কোচ রব পেইজকে আশাবাদী করছে।

বিশ্বকাপে ৩০ নভেম্বর ওয়েলসের পরের ম্যাচ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। কঠিন সেই ম্যাচ খেলতে নামার আগে নকআউট পর্বের দিকে এগিয়ে যেতে ইরানের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নাই ওয়েলসের। অন্যদিকে বিশ্বকাপে টিকে থাকতে এই ম্যাচ থেকে কিছু অর্জনের জন্যে মুখিয়ে আছে ইরানও। একইদিন ইরান খেলবে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে।

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’

হাজার ম্যাচ ছোঁয়ার অপেক্ষায় মেসি



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
হাজার ম্যাচ ছোঁয়ার অপেক্ষায় মেসি

হাজার ম্যাচ ছোঁয়ার অপেক্ষায় মেসি

  • Font increase
  • Font Decrease

ফিফা বিশ্বকাপে শেষ ষোলোর ম্যাচে আজ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে নামছে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচটি আবার লিওনেল মেসির কেরিয়ারের ১০০০তম ম্যাচ। চলতি বিশ্বকাপেই দেশের হয়ে সর্বাধিক বিশ্বকাপ ম্যাচ খেলার নিরিখে দিয়েগো মারাদোনার রেকর্ড ভেঙেছেন মেসি। আর্জেন্টিনার অধিনায়ক এবার ছুঁতে চলেছেন আরও একটি মাইলস্টোন।

৩৫ বছরের মেসি আজ দেশের হয়ে ১৬৯তম ম্যাচ খেলতে নামবেন। বার্সেলোনার হয়ে তিনি খেলেছেন ৭৭৮টি ম্যাচ। পিএসজির হয়ে ৫৩টি ম্যাচ খেলেছেন এলএম টেন। কোপা আমেরিকা জয়ের পর এবার কেরিয়ারের শেষ বিশ্বকাপে কাপ জয়ের স্বপ্নপূরণের লক্ষ্যেই এগোচ্ছেন মেসি। সৌদি আরবের কাছে হারের ধাক্কা কাটিয়ে যেভাবে নীল-সাদা জার্সিধারীরা ঘুরে দাঁড়িয়েছে তা নিশ্চিতভাবেই গোটা দলের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে। বিশেষ করে পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে লিওনেল মেসি পেনাল্টি মিস করার পরও তিন পয়েন্ট পেতে অসুবিধা হয়নি আর্জেন্টিনার।

৩৬ ম্যাচে অপরাজেয় থাকার পর সৌদি আরবের কাছে পরাস্ত হয়েছিল আর্জেন্টিনা। যদিও এরপর মেক্সিকো ও পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২-০ ব্যবধানেই জয় নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা।

অস্ট্রেলিয়া লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনাকে সমীহ করলেও কড়া চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে প্রস্তুত। অস্ট্রেলিয়ার ডিফেন্ডার হ্যারি সাউটার বলেছেন, নিঃসন্দেহে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও লিওনেল মেসি বিশ্বের সেরা দুই ফুটবলার। তাঁদের মানের ফুটবলার পেতে এখনও দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হবে। তবে আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে আমাদের সব দিকেই সতর্ক থাকতে হবে। শুধু একজন ব্যক্তিকে আটকালেই হবে না। ম্যাচের ৯০ মিনিট মেসিকে আমরা একজন ফুটবলার হিসেবেই ভাবব।

চলতি বিশ্বকাপে দুটি গোল করেছেন মেসি। পোল্যান্ড ম্যাচে মিস করেছেন পেনাল্টি। রাউন্ড অব সিক্সটিনের ম্যাচে নামার আগে প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত সময় না পাওয়ায় খেদ প্রকাশ করেছেন আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি। ভারতীয় সময় বুধবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে পোল্যান্ড ম্যাচ খেলেছে আর্জেন্টিনা। তার চার ঘণ্টা আগে ছিল অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচে, যে ম্যাচে সকারুরা হারিয়ে দেয় ডেনমার্ককে। স্কালোনি বলেন, অস্ট্রেলিয়া তাদের গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে ছিল, স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় তাদের ম্যাচ ছিল। আমরা গ্রুপের শীর্ষে ছিলাম, কিন্তু আমাদের খেলতে হয়েছে রাত ১০টা থেকে। সকলে ঘুমোতে গিয়েছেন ভোর চারটেয়। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে যখন ম্যাচ খেলতে হয় তখন এর প্রভাব পড়তেই পারে। তবে বিশ্বকাপে এই কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই বাজিমাত করতে চাইছেন স্কালোনি।

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’

;

যে লাল কার্ডেও আনন্দ ভিনসেন্ট আবুবাকারের

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
যে লাল কার্ডেও আনন্দ ভিনসেন্ট আবুবাকারের

যে লাল কার্ডেও আনন্দ ভিনসেন্ট আবুবাকারের

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্রাজিলকে হারিয়ে বিশ্বকাপে আরেক অঘটনের জন্ম দিয়েছে ক্যামেরুন। ক্যামেরুনের এই জয় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের বিপক্ষে কোন আফ্রিকান দেশের প্রথম। ক্যামেরুন ম্যাচ জিতেছে ১-০ গোলে। গোলদাতা ভিনসেন্ট আবুবাকার।

এই হার যেমন ব্রাজিলের নকআউট পর্বের প্রথম ধাপে উত্তরণ বাধাগ্রস্ত করতে পারেনি, তেমনি ক্যামেরুনও যেতে পারেনি নকআউট পর্বে। তবে এটা ঐতিহাসিক অর্জন তাদের নিঃসন্দেহে।

আফ্রিকার দেশ ক্যামেরুন বিশ্বকাপে এবার নিয়ে ৮ বার অংশগ্রহণ করেছে। সর্বোচ্চ অর্জন কোয়ার্টার ফাইনালে। ১৯৯০ বিশ্বকাপে তারা নিজেদের প্রথম ম্যাচে ফ্রঁসোয়া ওমাম-বিয়িকের গোলে দিয়েগো ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছিল ১-০ গোলে। হারিয়েছিল তারা রোমানিয়া এবং পরের পর্বে কলম্বিয়াকে। এরপর কোয়ার্টার ফাইনালে তারা হার মানে ইংল্যান্ডের কাছে।

এই আটবারের মধ্যে আগের সাতবারের অংশগ্রহণে মাত্র ৪টি ম্যাচ জিতেছিল ক্যামেরুন। আর্জেন্টিনা, রোমানিয়া, কলম্বিয়া ও সৌদি আরব ছিল কেবল এই তালিকায়। এবারের কাতার বিশ্বকাপে এবার যুক্ত হয়েছে ব্রাজিল।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) কাতারের লুসাইল স্টেডিয়াম সাক্ষী হয়েছে এই ইতিহাসের। ম্যাচের যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে দুর্দান্ত এক প্রতি-আক্রমণে ডান দিক থেকে বক্সে ক্রস বাড়ান জেরোম এনগুম। ডি-বক্সে ভেসে আসা বলে দুরন্ত হেডে বল জালে পাঠান ভিনসেন্ট আবুবাকার।

ইতিহাস সৃষ্টি করা এই গোলের পর উল্লাসে ভাসেন আবুবাকার। উচ্ছ্বাস প্রকাশে জার্সি খুলে উদযাপন করেন। ফিফার নিয়ম অনুযায়ী জার্সি খুলে উদযাপন নিয়মবিরুদ্ধ বলে হলুদ কার্ড দেখতে হয়। ম্যাচে আগে আরেকটা হলুদ কার্ড পাওয়ায় দুই হলুদ কার্ড মিলিয়ে এরপর লাল কার্ড দেখতে হয় তাকে। রেফারি কার্ড দেখাতে এসে প্রথমে পিঠ চাপড়ে দেন আবুবাকারের, এরপর হাত মেলান তার সঙ্গে। তারপর লাল কার্ড দেখালে হাসিমুখে সেই লাল কার্ডও উদযাপন করেন এই ফুটবলার।

এই ম্যাচের আগে ফিফা বিশ্বকাপে মাত্র দুইবার মুখোমুখি হয়েছিল ব্রাজিল ও ক্যামেরুন। দুটি ম্যাচেই জয় ছিল ব্রাজিলের। ১৯৯৪ সালে ৩-০ ব্যবধানে এবং ২০১৪ সালে ৪-১ ব্যবধানে জয় পায় সেলেসাওরা। তবে সবমিলিয়ে ছয়বার মুখোমুখি হয়েছে, যেখানে ব্রাজিল জিতেছে পাঁচবার। ২০০৩ সালে ফিফা কনফেডারেশন কাপে একমাত্র জয়টি আসে ক্যামেরুনের।

এবারের বিশ্বকাপে ব্রাজিল প্রথম হারের মুখ দেখল তখন যখন আগের দুই ম্যাচ জিতেই নিশ্চিত করেছিল শেষ ষোলো। সার্বিয়া ও সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে পাওয়া সেই জয়ের পর ক্যামেরুনের বিপক্ষে আগের ম্যাচের মাত্র দুইজনকে রেখে নয়জনকে বদল করে দল নামিয়েছিলেন কোচ তিতে। কিন্তু আফ্রিকান অদম্য সিংহ ক্যামেরুন বিশেষ করে ভিনসেন্ট আবুবাকারের গোলে এবারের একমাত্র হার দেখতে হয় তাদের। ক্যামেরুনের বিপক্ষে গ্রুপ পর্যায়ের ম্যাচের আগে এবারের বিশ্বকাপে কোনো শট অন টার্গেটের মুখোমুখি হয়নি ব্রাজিল।

সেলেসাওদের এই হারে গত বছরের কোপা আমেরিকার ফাইনালে হারের পর যে অপরাজেয় যাত্রার শুরু হয়েছিল তাতে ছেদ পড়ল ১৭ ম্যাচ পর।

ক্যামেরুনের গোলদাতা ভিনসেন্ট আবুবাকার কাতারে তৃতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ খেলছেন। সৌদি প্রো-লিগের দল আল নাসেরের এই স্ট্রাইকার এরআগে খেলেছেন বেসিকতাস ও পোর্তোর মতো ক্লাবে। ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের আগে জাতীয় দলের হয়ে ৯৩ ম্যাচে ৩৭ গোল করেছেন এই স্ট্রাইকার।

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’

;

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ডি মারিয়ার খেলা অনিশ্চিত

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ডি মারিয়ার খেলা অনিশ্চিত

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ডি মারিয়ার খেলা অনিশ্চিত

  • Font increase
  • Font Decrease

শেষ ষোলোতে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা। এর মধ্যে ডি মারিয়াকে নিয়ে শোনা গেল দুঃসংবাদ। চলমান কাতার বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ডান পায়ের উরুতে ব্যথা অনুভব করেন ডি মারিয়া। যার কারণে কোচ তাকে দ্বিতীয়ার্ধে তুলে নেন।

এই চোটে শনিবার (৩ ডিসেম্বর) রাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নকআউট পর্বের ম্যাচে অনিশ্চিত তিনি।

এর আগে ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে ডি মারিয়ার অনুপস্থিতির কারণে ভুগতে হয়েছিল আর্জেন্টিনাকে।

পোল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেছিলেন, সে ভালো আছে সবমিলিয়ে। সে উরুর উপরে কিছুটা ব্যথা অনুভব করে। এটা বাড়ার আগেই তাকে আমরা তুলে নেই। সবাই জানে সে আমাদের জন্য কত গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। এমন খেলোয়াড়কে মাঠে খেলিয়ে ইনজুরিতে পরানোর ঝুঁকি আমরা নিতে পারি না।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে ডি মারিয়াকে এই ম্যাচে পাওয়া যাবে কি না, এমন প্রশ্নে স্কালোনির উত্তরে পরিষ্কার কোনো ধারণা পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, “গতকাল আমরা পুরোদমে অনুশীলন করিনি। মূলত আমরা অস্ট্রেলিয়া দলটাকে নিয়ে বিশ্লেষণ করেছি। আজ অনুশীলনের পর একটা পরিষ্কার ধারণা পাব। ডি মারিয়া ও অন্য ফুটবলারদের মূল্যায়ন করার পর সিদ্ধান্ত নেব। যদি ফিট থাকে, তাহলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে।”

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’

;

কাতার বিশ্বকাপ: দ্বিতীয় রাউন্ডে কে কার মুখোমুখি

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কাতার বিশ্বকাপের রোমাঞ্চকর প্রথম রাউন্ডের খেলা শুক্রবার রাতে শেষ হয়েছে। এরই মধ্যে নির্ধারণ হয়ে গেছে কোন ১৬টি দল দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলবে, আর কার মুখোমুখি হবে।

প্রথম রাউন্ডে বেশ কয়েকটি অঘটন, নাটকীয়তা আর রোমাঞ্চে ভরা ম্যাচ শেষে আজ শনিবার (৩ ডিসেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপের নকআউট পর্ব। প্রতিটি ম্যাচই একেকটি ফাইনাল, জিতলে পরের ধাপে আর হারলে বিদায়।

নকআউট পর্বে কোন দলের প্রতিপক্ষ কে, কখন তারা মুখোমুখি হবে এবার তা জেনে নিন-

নকআউট পর্বের সূচি

৩ ডিসেম্বর, শনিবার, নেদারল্যান্ডস–যুক্তরাষ্ট্র রাত ৯টা

৩ ডিসেম্বর, শনিবার, আর্জেন্টিনা–অস্ট্রেলিয়া রাত ১টা

৪ ডিসেম্বর, রোববার, ফ্রান্স–পোল্যান্ড রাত ৯টা

৪ ডিসেম্বর, রোববার, ইংল্যান্ড–সেনেগাল রাত ১টা

৫ ডিসেম্বর, সোমবার, জাপান–ক্রোয়েশিয়া রাত ৯টা

৫ ডিসেম্বর, সোমবার, ব্রাজিল–দক্ষিণ কোরিয়া রাত ১টা

৬ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার, মরক্কো–স্পেন রাত ৯টা

৬ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার, পর্তুগাল–সুইজারল্যান্ড রাত ১টা

এদের মধ্যে যে ৮ দল জিতবে তারা খেলবে কোয়ার্টার ফাইনালে।

  ‘মরুর বুকে বিশ্ব কাঁপে’

;