ইডেনে সাঈফের বদলি খেলছেন তাইজুল

স্পোর্টস এডিটর, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
তাইজুল ইসলাম, ছবি: সংগৃহীত

তাইজুল ইসলাম, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইডেন টেস্টে ইনজুরিও বেশ ভালোই পিছু নিয়েছে বাংলাদেশ দলের। লিটন দাসের পর সাঈফ হাসানের ইডেন টেস্ট প্রথম দিনেই শেষ। মাথায় চোট নিয়ে লিটন দাস সরে দাঁড়িয়েছেন এই টেস্ট থেকে। টেস্ট ক্রিকেটে নতুন নিয়ম অনুযায়ী তার বদলি হিসেবে খেলছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। খানিকবাদে জানা গেল স্পিনার সাঈফ হাসানের ইডেন টেস্ট শেষ। ব্যাটিংয়ের সময় কাঁধে বাউন্সারের চোট পেয়েছিলেন সাঈফ। তার আগে হেলমেটেও আঘাত করে বল। সেই চোটের যে অবস্থা তাতে তার এই টেস্টে আর খেলা হচ্ছে না। ম্যাচ রেফারির অনুমতি দিয়েছেন সাঈফের বদলি হিসেবে নতুন কাউকে একাদশে নামানোর। সেই অনুযায়ী স্পিনার তাইজুল ইসলামকে ইডেনের একাদশে জায়গা দিতে বাধ্য হয়েছে বাংলাদেশ।

বদলি খেলোয়াড় বিষয়ক নতুন নিয়মটা চলতি বছর টেস্ট ক্রিকেটে অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি। অস্ট্রেলিয়া তাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে ২০১৬-১৭ মৌসুম থেকে বদলি খেলোয়াড় বিষয়ক এই আইনের প্রচলন করেছে। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড নিয়মটির পালন করে আসছে ২০১৮ সাল থেকে।

টেস্ট ক্রিকেটের একাদশে প্রথম বদলি খেলোয়াড়ের সুযোগটা পায় অস্ট্রেলিয়া। চলতি বছরের আগস্টে লর্ডস টেস্টে স্টিফেন স্মিথের বদলি হিসেবে ম্যাচে খেলেন, ব্যাটিং করেন মার্নাস লাবুসানে। আগে বদলি খেলোয়াড়রা শুধুমাত্র ফিল্ডিং করতে নামতে পারতেন। কিন্তু কোন স্পেশাল দায়িত্ব যেমন ব্যাটিং, বোলিং বা উইকেটকিপিং করতে পারতেন না। বদলি খেলোয়াড়ের নতুন নিয়মটা এখন বাড়তি সেই সুবিধা দিয়েছে। তবে সবকিছু নির্ভর করে ম্যাচ রেফারির সিদ্ধান্তের ওপর।

ম্যাচে ইনজুরিতে পড়া কোনো খেলোয়াড় খেলাটা চালিয়ে গেলে ইনজুরির কারণে তার জীবন সংশয়ে পড়তে পারে-এমন কোনো সমস্যা দেখা গেলে সংশ্লিষ্ট দল সেই খেলোয়াড়ের বদলি হিসেবে একাদশে নতুন কাউকে খেলাতে পারে। তবে এক্ষেত্রে নিয়মটা হলো-ব্যাটসম্যানের বদলি হিসেবে ব্যাটসম্যান এবং বোলারের বদলি হিসেবে বোলার। কোনো ব্যাটসম্যানের বদলি হিসেবে সংশ্লিষ্ট দল কোনো অলরাউন্ডারকে নামালে বদলি সেই অলরাউন্ডার ম্যাচে শুধুমাত্র ব্যাটিং করতে পারবেন। বোলিং করতে পারবেন না। এই নিয়মের খাঁড়ায় পড়েই মেহেদি হাসান মিরাজ ইডেন টেস্টে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলবেন। বোলিং করার কোনো সুযোগ নেই তার।

তবে প্রশ্ন হলো বোলারের বদলি হিসেবে বোলার নামবেন কিন্তু তিনি কি ব্যাটিং করতে পারবেন?

উত্তর হলো-হ্যাঁ পারবেন।

ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে বদলি বিষয়ক এই নিয়মের ক্ষেত্রে খানিকটা প্রতিবন্ধকতা রাখা হলেও বোলারের বিষয়ে সেটা রাখা হয়নি। তাই টেস্ট ক্রিকেটের বদলি বিষয়ক এই আইনকে অনেকের কাছে ধোঁয়াশার মতো!

ইডেনের ধারাভাষ্যে সুনীল গাভাস্কার ও সঞ্জয় মাঞ্জেরেকারও এই নিয়মের সমালোচনা করেন।

কোনো দল খেলার মাঝে খেলোয়াড় বদলের আবেদন করলে ম্যাচ রেফারি প্রথমে তা পর্যবেক্ষণ করবেন। সত্যিকার অর্থেই পরিস্থিতি অনুযায়ী দলের বদলি খেলোয়াড়ের প্রয়োজন আছে কিনা- সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পুরো এখতিয়ার তার।

তবে বোলারের বদলে বোলার এবং ব্যাটসম্যানের বদলে ব্যাটসম্যান-বদলি বিষয়ে এই নিয়মটি প্রচলনের কারণ হলো খেলার মাঝপথে কোনো দল যাতে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বাড়তি সুবিধা নিতে না পারে, সেজন্যই এই সমতাসূচক অদল-বদল রাখা হয়েছে।

নতুন নিয়মের পর টেস্টে এখন পর্যন্ত বদলির তালিকা

আঘাতপ্রাপ্ত খেলোয়াড় বদলি খেলোয়াড় প্রতিপক্ষ ভেন্যু
নাঈম হাসান তাইজুল ইসলাম ভারত কলকাতা
লিটন দাস মেহেদি হাসান মিরাজ ভারত কলকাতা
ডিন এলগার টুনিস ডু ব্রুইন ভারত রাঁচি
ড্যারেন ব্রাভো জেরেমিন ব্ল্যাকউড ভারত কিংস্টন
স্টিভেন স্মিথ মার্নাস লাবুসানে ইংল্যান্ড লর্ডস

 

আপনার মতামত লিখুন :