ভয়ানক দিন পেছনে ফেলতে পারবে বাংলাদেশ?

আপন তারিক, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
দিবারাত্রির টেস্টের প্রথম দিনে ভারতের দুর্দান্ত বোলিং স্পেলে এভাবে হার মানতে হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের

দিবারাত্রির টেস্টের প্রথম দিনে ভারতের দুর্দান্ত বোলিং স্পেলে এভাবে হার মানতে হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের

  • Font increase
  • Font Decrease

কলকাতা (ভারত) থেকে: গ্যালারি কানায় কানায় পূর্ণ। হাজির প্রায় ৬০ হাজার দর্শক! মাঠে শচীন টেন্ডুলকার-রাহুল দ্রাবিড়ের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা। সঙ্গে  বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক টেস্ট খেলা ক্রিকেটাররা। ছিলেন ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও। টেস্টের অভিজাত ময়দানে নিজেদের মেলে ধরার এরচেয়ে বড় মঞ্চ বুঝি আর হতেই পারতো না! কিন্তু সেই একই দৃশ্যপট! ব্যাট হাতে শুধু ব্যর্থতারই বৃত্তবন্দি দল।

গোলাপি বল ক্রিকেটের প্রথম দিনটা ভুলে যেতে চাইবে বাংলাদেশ। শুক্রবার দিনটাতে যে টস জয় ছাড়া কিছুই করে দেখানো হয়নি। ৩০.৩  ওভারে ১ম ইনিংসে মাত্র ১০৬ রানে অলআউট বাংলাদেশ। তারপর বল হাতেও তেমন সফলতা কোথায়? ১ম দিন শেষে ভারত তুলল ৩ উইকেটে ১৭৪।

সাজঘরে ফিরছেন মমিনুল

দিন শেষে ইডেনের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে কিছুটা ক্লান্তই দেখাল রাসেল ডমিঙ্গোকে। টাইগার কোচ বলছিলেন, 'এটি অবশ্যই আমাদের জন্য ভয়ানক এক দিন। আমরা মনে করি, ভারতে টেস্ট জেতার সবচেয়ে ভালো কৌশল আগে ব্যাটিং করা। উপমহাদেশে ৯৯ ভাগ ভালো উইকেটে দলগুলো আগে ব্যাট করে। আমরাও তাই করেছি।'

যদিও শুরুতে ব্যাটিং কৌশলটা কাজে লাগেনি দিন-রাতের টেস্টে। প্রথমবারের মতো পিঙ্ক বলের অভিজ্ঞতাটাও তেমন ভাল হলো না। ইন্দোর টেস্টের মতো এখানেও ব্যর্থ ব্যাটসম্যানরা।

রাসেল ডমিঙ্গো বলছিলেন, 'দেখুন, মুশফিক, রিয়াদ, ইমরুল হয়তো অভিজ্ঞ কিন্তু সাদমান, মিঠুনরা মাত্র কয়েকটি টেস্ট খেলেছে। ওদের শেখার অনেক কিছু আছে। ভারতের অসাধারণ একটা বোলিং ইউনিট আছে। তারা এই মুহূর্তে নিজেদের ফর্মের শীর্ষে আছে। ওরা আমাদের চেয়ে ভালো, এনিয়ে সন্দেহ নেই।'

মাঠে উপস্থিত ছিলেন শচীন টেন্ডুলকার-রাহুল দ্রাবিড়ের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা

কেন টেস্ট ফরম্যাটে এভাবে হোঁচট খাচ্ছে বাংলাদেশ। সেই হিসাব-নিকাশটাও সেরে ফেলেছেন রাসেল ডমিঙ্গো। টাইগারদের কোচ জানাচ্ছিলেন, ‘দেখুন, স্কিল ও আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি দুটোই আছে আমাদের। আত্মবিশ্বাসের ঘাটতিটাই বেশি ভোগাচ্ছে। এমন বোলিং লাইনআপের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতাও খুব বেশি নেই দলের। আমাদের ক্রিকেটাররা ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খুব একটা এ ধরনের ভালো মানের বোলারদের খেলে না। সত্যি এই মুহূর্তে দুর্দান্ত বিশ্বমানের বোলারদের খেলছি। আমাদের অনেক কঠিন বিষয় সামলাতে হচ্ছে।’

সেই কঠিন ব্যাপার সামলাতে গিয়েই আয়নায় নিজের চেহারাটাও দেখে নিচ্ছে টাইগার ক্রিকেট। বিশেষ করে টেস্টে এখনো সেই তিমিরেই যেন আছে দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১০৬/১০ (৩০.৩ ওভারে, সাদমান ২৯, ইমরুল ৪, মুমিনুল ০, মিঠুন ০, মুশফিক ০, মাহমুদউল্লাহ ৬, লিটন দাস ২৪ রিটায়ার্ড হার্ট, নাঈম হাসান ১৯, এবাদত ১, মেহেদি ৮, আল আমিন ১, আবু জায়েদ ০, অতিরিক্ত ১৪; ইশান্ত ৫/২২, উমেশ ৩/২৯ ও শামি ২/৫)।

ভারত প্রথম ইনিংস: ১৭৪/৩ (৪৬ ওভারে, আগারওয়াল ১৪, রোহিত ২১, চেতেশ্বর ৫৫, কোহলি ৫৯*, রাহানে ২৩*, এবাদত ২/৬১ ও আল আমিন ১/৪৯)।

# প্রথম দিন শেষে

আপনার মতামত লিখুন :