টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পেছাতে আইসিসি'কে অস্ট্রেলিয়ার চিঠি, আজ সিদ্ধান্ত

স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২১ সালে আয়োজন করতে চায় অস্ট্রেলিয়া

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২১ সালে আয়োজন করতে চায় অস্ট্রেলিয়া

  • Font increase
  • Font Decrease

আইসিসি এখনো নিজেদের সিদ্ধান্ত জানায়নি। তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজন নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত একপ্রকার জানিয়ে দিয়েছে। আইসিসি'র কাছে এক চিঠিতে সিএ অনুরোধের সুরে জানিয়েছে-তারা এই বছরের বিশ্বকাপ পরের বছর নিয়ে যেতে চায়। ২০২১ সালে এই বিশ্বকাপের আয়োজন করতে চায় তারা।

আইসিসি'র আর্থিক এবং বাণিজ্যিক বিষয়ক সম্পর্কিত কমিটির কাছে সিএ এই চিঠি পাঠিয়েছে। আইসিসি তাদের এই অনুরোধ রাখে কিনা তা জানা যাবে আজ বৃহস্পতিবার, ২৮ মে’র মধ্যে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আজই আইসিসি'র সদস্য দেশগুলো সিদ্ধান্তে পৌঁছাবে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এই বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন বড় সংশয়ে পড়ে গেছে। তবে বিশ্বকাপের আয়োজন করতে না পারলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে। সেই ক্ষতি এড়াতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এই বিশ্বকাপ পরের বছর আয়োজনের অনুরোধ করেছে। সমস্যা হলো পরের বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক তো ভারত। টি-টোয়েন্টির আরেকটি বিশ্বকাপও অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ সালে। নতুন সূচিতে অস্ট্রেলিয়া চাইছে ২০২১ সালের বিশ্বকাপের আয়োজন হোক অস্ট্রেলিয়ায়। আর ২০২২ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক বসুক ভারতে।

অর্থাৎ আইসিসি এবং ভারতের ক্রিকেট টেবিলে এখন ‘সূচি এজেন্ডা’। দেখা যাক আইসিসি কি সিদ্ধান্ত নেয়।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার যে সুসম্পর্ক তাতে এই সূচি বদলের বিষয়ে ভারত সম্ভবত সম্মতি দিতেও পারে। ২০২১ সালের পরিবর্তে ভারত ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজন করলে আর্থিকভাবে তাদের তেমন কোনো ক্ষতি হবে না। সমস্যা শুধু একটাই লাভটা একটু দেরিতে আসবে! আর অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের আয়োজনের জন্য সময়টা ২০২২ সাল পর্যন্ত নিয়ে গেলে দেশি-বিদেশি অনেক স্পন্সর হারাবে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, এই বিশ্বকাপ দুই বছর পিছিয়ে গেলে অস্ট্রেলিয়া সরকার পর্যটন স্বত্বের অংশীদার হিসেবে সাড়ে চার মিলিয়ন ডলার প্রদানের সিদ্ধান্ত থেকে সরেও দাঁড়াতে পারে। তাই ২০২১ সালের মধ্যেই যে এই বিশ্বকাপের আয়োজন করা যায়- সেই চেষ্টাই করবে অস্ট্রেলিয়া।

তবে একটা ব্যাপার স্পষ্ট যে আইসিসি'র কাছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই চিঠিই জানাচ্ছে স্বাগতিক হিসেবে চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের মতো আত্মবিশ্বাস তাদেরও নেই! যদিও আইসিসি বলছে- তারা অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এই বছর যথাসময়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের পূর্বনির্ধারিত পরিকল্পনা থেকে এখনো সরে আসেনি।

আপনার মতামত লিখুন :