জর্জ ফ্লয়েড: ‘ব্ল্যাকআউট টুয়েসডে’র সমর্থনে ক্রীড়া তারকারা

স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
‘টুইয়েসডে ব্ল্যাকআউট’ এ সামিল হয়েছেন মার্কাস রাশফোর্ড ও লেব্রন জেমস

‘টুইয়েসডে ব্ল্যাকআউট’ এ সামিল হয়েছেন মার্কাস রাশফোর্ড ও লেব্রন জেমস

  • Font increase
  • Font Decrease

আমেরিকার মিনিয়াপোলিসে জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকান্ডে পৃথিবীর বিভিন্ন অংশ জুড়ে এখন চলছে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভের ঝড়। সেই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের অ্যাথলিট এবং খেলার দুনিয়ার তারকারাও। বাস্কেটবলের সুপারস্টার মাইকেল জর্ডান থেকে শুরু করে ক্রিকেটের ক্রিস গেইল, ড্যারেন স্যামি, ক্রিস ওকস, ফুটবলের সানচো, স্টিভেন জেরার্ড অনেকেই বর্ণবাদের বিরুদ্ধে নিজেদের স্থান স্পষ্ট করেছেন।

৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েডকে গত ২৫ মে মিনিয়াপোলিসে ডেরেক চাউভিন নামের এক পুলিশ কর্মকর্তা হাঁটু দিয়ে গলাচেপে ধরে তাকে হত্যা করে। জর্জ ফ্লয়েড এই সময় অনেক অনুনয় করার পরও তার ঘাড় থেকে হাঁটু সরাননি ডেরেক চাউভিন। আট মিনিটের সেই ভিডিও নেটে ছড়িয়ে পড়ার পর শুরু হয় প্রতিবাদের ঝড়। আমেরিকার বিভিন্ন শহরে এখন জর্জ হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে চলছে তুমুল বিক্ষোভ। পুলিশের সঙ্গে প্রতিবাদকারীদের দাঙ্গা-হাঙ্গামায় প্রতিদিনই ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ বাড়ছে। বিভিন্ন শহরে এই সুযোগে লুটপাট এবং বর্ণবাদী ঘটনাও ঘটেছে।

জর্জ ফ্লয়েডের এই হত্যাকান্ড এবং পুলিশের বর্ণবাদী আচরণের প্রতিবাদে খেলার দুনিয়ার তারকারাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। প্রতিবাদ হিসেবে গত মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের প্রোফাইল ছবির বদলে পুরোপুরি কালো একটা অবয়ব পোস্ট করার সিদ্ধান্ত হয়। সেই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন ক্রীড়া বিশ্বের তারকারাও। এই প্রতিবাদের নাম দেয়া হয়েছে ‘টুইয়েসডে ব্ল্যাকআউট’।

‘ব্ল্যাক লিভস ম্যাটার’ হ্যাসট্যাগে এই শব্দমালা জুড়ে ক্রীড়া তারকারাও বর্ণবাদীদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছেন। এই প্রতিবাদে ইউরোপের অনেক ফুটবল ক্লাবও যোগ দিয়েছে। লিডস ইউনাইটেড, এএফসি আয়াক্স তাদের ইনস্টাগ্রামের প্রোফাইল ছবি বদলে পুরো কালো একটা অবয়ব পোস্ট করেছে।

করোনাভাইরাস মহামারীর এই সময়টায় আমেরিকা জুড়ে চলছে লকডাউন। সেই অবরুদ্ধ অবস্থার মধ্যেও জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ করতে রাস্তায় নেমে এসেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। শহরে কারফিউ দিয়েও প্রতিবাদী জনতাকে থামিয়ে রাখা যাচ্ছে না।

আপনার মতামত লিখুন :