রাইডশেয়ারিং খাতে নারী



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
রাইডশেয়ারিং খাতে নারী

রাইডশেয়ারিং খাতে নারী

  • Font increase
  • Font Decrease

নারী ও পুরুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার মাধ্যমেই আসে সমৃদ্ধি। কিন্তু অনেক কাজের ক্ষেত্রেই নারীদের ছোট করে দেখা হয় এবং পুরুষের চেয়ে কম দক্ষ বলে মনে করা হয়। অথচ সময়ের সাথে সাথে নারীরা প্রতিটি ক্ষেত্রেই তাদের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। সঠিক সুযোগ পেলে তারা যে পুরুষের সমান এবং কিছু ক্ষেত্রে পুরুষের চেয়ে দক্ষ, তা সময়ের সাথে সাথে বারবার প্রমাণিত হয়েছে। বিশেষ করে যেভাবে তারা একই সাথে অফিসের কাজ এবং ঘরের কাজ সামলে চলেছেন তা অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার।

অধিকাংশ ক্ষেত্রে কর্মজীবী নারীরা ঘরের কাজে পুরুষ সদস্যদের কাছে কোনরকম সাহায্য পান না। তাই যে কাজে একই সাথে নিরাপত্তা ও নিজের সুবিধামতো সময় বেছে নেয়ার স্বাধীনতা আছে, সে ধরণের কাজগুলো নারীদের জন্য উপার্জনের ভালো উপায়। এক্ষেত্রে রাইডশেয়ারিং-এর চেয়ে ভাল বিকল্প হতেই পারে না। কারণ এতে রয়েছে বেশ কয়েকটি সেফটি ফিচার যেমন - লাইভ জিপিএস ট্র্যাকিং, ৫ জন ট্রাস্টেড কন্টাক্টের সাথে “শেয়ার স্ট্যাটাস”, “ভেরিফাইড পার্টনার”, অ্যাপের মাধ্যমে ২৪ ঘন্টা সহায়তা প্রদান এবং “টু-ওয়ে ফিডব্যক” সুবিধা যা নারীদের একই সাথে নিরাপত্তা ও টেকসই উপার্জনের সুযোগ করে দিতে পারে।

বাংলাদেশে এখনও নারী চালকের সংখ্যা অনেক কম। অল্প সংখ্যক নারী আছেন যারা এ ব্যাপারে প্রচলিত ধারণাকে ভুল প্রমাণিত করে ড্রাইভিং-কে পেশা হিসাবে গ্রহণ করেছেন এবং তারা পুরুষ চালকদের চেয়ে কোন অংশে পিছিয়ে নেই। তাই যেসকল নারীরা চালক হিসেবে কাজ করতে আগ্রহী তাদের সাহায্য করতে রাইডশেয়ারিং কোম্পানি, উবার ‘বেটার ফিউচার ফর উইমেন’ –এর সাথে একটি যৌথ উদ্যোগ নিয়েছে।

এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে মার্চের শেষে একটি ‘অনবোর্ডিং মেলা’ অনুষ্ঠিত হবে, যেখানে আগ্রহী নারীরা উবার প্ল্যাটফর্মে চালক হিসেবে সাইন আপ করতে পারবেন। এর পাশাপাশি কাজ করার সময় নারী চালকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে উবার একটি স্বতন্ত্র হটলাইন নম্বরও চালু করবে।

যেসকল নারীরা সকল বাধা উপেক্ষা করে ড্রাইভিংকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন তাদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা এবং নারীদের উপার্জনের আরও একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দেয়ার জন্য উবারকে সাধুবাদ।