৫৩ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য হ্যাকিং সাইটে



মহিউদ্দিন আহমেদ, কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, বার্তা২৪.কম
৫৩ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য হ্যাকিং সাইটে

৫৩ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য হ্যাকিং সাইটে

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রায় ৫৩ কোটিরও বেশী ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁসের ঘটনা হজম হওয়ার আগেই নতুন আরেক তথ্য আশংকায় ফেলে দিয়েছে প্রযুক্তি দুনিয়ার মানুষজনকে। কারণ এসব তথ্য এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় বিনামূল্যে  হ্যাকিং ওয়েবসাইটে। প্রথম দিকে তথ্যগুলো অর্থের বিনিময়ে হাত বদল হলেও এখন এসব তথ্য বিনামূল্যে হস্তগত করার সুযোগ পাচ্ছে হ্যাকার, এমনটাই জানিয়েছে সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা।

ফেসবুক ব্যবহারকারী যেসব তথ্য পাওয়া যাচ্ছে তার মধ্যে রয়েছে ফেসবুক ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর, ফেসবুক আইডি, পুরো নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, প্রোফাইল এবং কিছু ক্ষেত্রে ই-মেইল ঠিকানা। আর যেসব ব্যক্তিদের তথ্য ফাঁস হয়েছে তার মধ্যে খোদ ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের নামও রয়েছে বলে জানা গেছে।

এ যাত্রায় ১০৬টি দেশের মধ্যে যাদের তথ্য সবচেয়ে বেশী ফাঁস হয়েছে তাদের মধ্যে সর্বাগ্রে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। কারন যুক্তরাষ্ট্রের ৩ কোটি ২০ লক্ষ ব্যবহারকারীর তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে । এর পরে রয়েছে যুক্তরাজ্য। তাদের ফাঁস হয়েছে ১ কোটি ১০ লক্ষ ব্যবহারকারীর তথ্য। এছাড়া ব্রাজিলের ৮০ লক্ষ, ভারতের ৬১ লক্ষ, অস্ট্রেলিয়ার ১২ লক্ষ এবং বাংলাদেশের ৩৮ লক্ষ ব্যবহারকারীর গোপনীয় তথ্য ফাঁস হয়েছে।

ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁসের বিষয়টি প্রথম প্রকাশ করে বিজনেস ইনসাইডার। যদিও গত শনিবার (৩ এপ্রিল) ফেসবুক মুখপাত্র এন্ডি স্টোন গণমাধ্যম সিএনএন কে জানিয়েছেন, ‘ এটা আসলে ২০১৯ সালে ফাঁস হওয়া পুরনো তথ্য ভান্ডার, যেটা আমরা ওই বছরের আগষ্টেই ঠিক করেছিলাম’। তিনি আরও বলেন. ওই সময় আমরা ব্যবহারকারীরা যেন ফেসবুক আর ইনস্ট্রাগ্রামে একজন আরেক জনের ফোন নাম্বার সরাসরি খুঁজে না পায় সে ব্যবস্থাও করেছিলাম।

এত কিছু সত্বেও আশংকা কিন্তু থেকেই যায়। কারন ব্যবহারকারীদের এসব তথ্য উপাত্ত এখনও হ্যাকারদের কাছে সমানভাবে প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ। সবচেয়ে বড় কথা এসব তথ্য এখন যেহেতু হ্যাকিং সাইটে ছেড়ে দেয়া হয়েছে, তাই যে কোন হ্যাকার এখন সহজেই এসব তথ্য ব্যবহার করে যে কোন ব্যবহারকারীকে সহজেই বিপদে ফেলতে পারবে। যেটা আসলে সবার জন্য এখন ব্যাপক উদ্বেগের বিষয়।