শক্ত পোক্ত নোকিয়া ৮০০ টাফ

টেক ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
নোকিয়া ৮০০ টাফ, ছবি: সংগৃহীত

নোকিয়া ৮০০ টাফ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মোবাইল ফোনের অ্যান্ড্রয়েড ফোন আসার আগ পর্যন্ত দাপটের সঙ্গে রাজত্ব করেছে ফিনল্যান্ডের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নোকিয়া। বর্তমানে এইচএমডি গ্লোবাল কোম্পানির আওতায় বেশকিছু স্মার্টফোন বাজারে ছেড়ে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তারই ধারাবাহিকতায় এবার শক্ত, পোক্ত এবং দীর্ঘসময় ব্যাটারি সাপোর্টের ফোন নিয়ে আসছে নোকিয়া।

সম্প্রতি এইএফএ সম্মেলনে এইচডিএম গ্লোবাল ‘নোকিয়া ৮০০ টাফ’ নামের একটি ফোনের ঘোষণা দিয়েছে। সেই সঙ্গে নোকিয়া ২৭২০ ফ্লিপ এবং ১১০ মডেলের দুটি ফোন অবমুক্ত করা হয়।

নোকিয়া ৮০০ টাফ নাম শুনেই এর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পাওয়া যায়। ইংরেজি টাফ শব্দের অর্থ শক্ত, শক্তিশালী, সহজে ভাঙা যায় না এমন ইত্যাদি। অর্থাৎ নোকিয়ার এই ফোন ব্যবহারে হাত থেকে পড়ে নষ্ট হয়ে যাওয়া, ধুলো-বালি এবং পানির সংস্পর্শে গেলেও কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা নেই।
ইউরোপের বাজারে ফোনটির বাজারমূল্য বাংলাদেশি টাকায় ১১ হাজার ১৭৩ টাকা।



তবে স্মার্টফোনের যুগে প্রায় ১১,২০০ টাকা খরচ করে নরমাল ফোন কিনবেন কিনা তার সিধান্ত ক্রেতাদের উপর। কিন্তু এখন একটি স্মার্টফোন থাকা স্বত্বতেও আরেকটি নরমাল ফোনের দরকার হয়। সেজন্য সবরকম ফিচার এবং এর দীর্ঘসময় ব্যাটারি লাইফ কেনার আগে বিবেচনায় থাকতে পারে।

তাহলে কেন কিনবেন?

শক্ত পোক্ত ‘নোকিয়া ৮০০’

নোকিয়া এই ডিভাইসটি ১.৮ মিটার উচ্চতা থেকে মাটিতে পড়ে গেলেও কোনো ক্ষতি হবে না। ফোনটিকে পানি নিরোধক নিরাপত্তায় আইপি৬৮ ওয়াটারপ্রুফ এবং ডাস্টপ্রুফ রেটিং দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অতিরিক্ত আর্দ্র এবং উষ্ণ তাপমাত্রায় ফোনটি সচল থাকবে।

এতে ২.৪ ইঞ্চির কিউভিজিএ ডিসপ্লে এবং ভেতরে স্ন্যাপড্রাগন ২০৫ প্রসেসর রয়েছে। আর ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার সঙ্গে থাকছে একটি ব্রাইট ফ্ল্যাশলাইট সুবিধা। এছাড়া ৫১২ জিবি র‍্যাম এবং ৪জিবি বিল্ট ইন স্টোরেজ রয়েছে।

লং লাইফ ব্যাটারি

ফোনটিতে ২,১০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। যা ৪০ দিন স্ট্যান্ডবাই এবং টানা ৯ ঘণ্টা ৪জি নেটওয়ার্কে কথা বলা যাবে। এছাড়া জিপিএস, ব্লুটুথ, ওয়াইফাই এবং গুগল ভয়েজ অ্যাসিস্টেন্ট সুবিধা রয়েছে।

সূত্র: জিসমোচীনা

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর