জোড় ইজতেমা পেছাতে চিঠি দেবে নির্বাচন কমিশন

জোড় ইজতেমার দৃশ্য, ছবি: সংগৃহীত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

বিশ্ব ইজতেমার পূর্বে তাবলিগের পুরনো সাথীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত জোড় ইজতেমা পেছানোর জন্য তাবলিগের মুরুব্বি ‘আহলে শুরা’ সদস্যদের চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

বিশ্ব ইজতেমার আগে তিন চিল্লার সাথী ও আলেমদের সমন্বয়ে ৫ দিনের বিশেষ জোড় চলতি বছরের ৭ ডিসেম্বর শুরু ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হওয়ার কথা ছিলো। নির্বাচনের আগ মুহূর্তে ওই জোড় ইজতেমা পেছানোর জন্য তাবলিগের মুরুব্বিদের চিঠি দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, চিঠিতে আগামী ৩০ ডিসেম্বর পুনঃনির্ধারিত সময়সূচি অনুসারে একাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জেলা প্রসাশক গাজীপুর ও রির্টানিংঅফিসার কর্তৃক প্রদত্ত তথ্য অনুসারে পুনঃনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্যায় ১৮-২০ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে এবং ২য় পর্যায় ২৫-২৭ জানুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। এই প্রেক্ষিতে ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর ৬ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখের পরবর্তী সময়ে জোড় ইজতেমা আয়োজনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

চিঠির অনুলিপি মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইজিপি, ধর্ম সচিব ও র্যা বের ডিজিকে দেওয়া হবে বলেও সূত্র জানিয়েছে।

বেশ কয়েক বছর ধরে টঙ্গির বিশ্ব ইজতেমা দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দুই পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় ১৬ জেলা করে মোট ৩২ জেলার তাবলিগি সাথীরা অংশ নেন। বাকী ৩২ জেলায় আঞ্চলিক ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতো।

তাবলিগের কাজকে আরও বেশি গতিশীল করাসহ ইজতেমার মাঠে লোকের সঙ্কুলান না হওয়ার কারণে আঞ্চলিক ইজতেমা ও টঙ্গির দুই পর্বের ইজতেমা বেশ সমাদৃতও হয় সবার কাছে।

কিন্তু ২০১৯ সালের বিশ্ব ইজতেমার দুই পর্বে দেশের ৬৪ জেলা অংশগ্রহণ করবে। কোনো জেলায় আঞ্চলিক কোনো ইজতেমা হবে না।

ইসলাম এর আরও খবর

লাখোকণ্ঠে মোনাজাত

বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত শুরু হয়েছে। মোনাজাত পরিচালনা করছেন কাকরাইল মার্কাজের মুরব্বি ও শূরা সদস্য হাফেজ মা...