স্থগিত হতে পারে বিশ্ব ইজতেমা: ভারত যাবেন সরকারি প্রতিনিধি দল

সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈঠক, ছবি: সংগৃহীত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

তাবলিগ জামাতের চলমান সঙ্কট নিরসন না হওয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকতে পারে বিশ্ব ইজতেমা। তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের দ্বন্দ্বের কারণে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ইজতেমার পাশাপাশি কোনো পক্ষই কোনো ধরনের আয়োজন (জোড় ইজতেমা ও ওয়াজাহাতি জোড়) করতে পারবে না।

বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষকে নিয়ে বসা বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, তাবলিগ জামাতের চলমান সঙ্কট নিরসনে ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ যাবেন ৬ সদস্যের উচ্চপর্যায়ের সরকারি প্রতিনিধি দল। তারা দেওবন্দ মাদরাসার শীর্ষ আলেম কাছ থেকে মাওলানা সাদের বিষয়ে তাদের সিদ্ধান্ত জানবেন ও নিজামুদ্দিন যেয়ে মাওলানা সাদের বক্তব্য শুনবেন। এই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা আলাপ-আলোচনা করে উদ্ভুত সমস্যার সমাধান করবেন।

তাবলিগের চলমান সঙ্কট নিরসনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন আল্লামা মাহমুদুল হাসান, আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ, হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ যোবায়ের, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, ধর্ম সচিব মুহাম্মদ আনিছুর রহমান, আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহ, প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মো. জয়নাল আবেদিন ও পুলিশের আইজি মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

বৈঠকে আগামী বিশ্ব ইজতেমার বিষয়ে তারিখ পরিবর্তন হতে পারে এমন আলোচনা করা হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, ডিসেম্বর মাসে নির্বাচন হলে ইজতেমা করতে কোনো সমস্যা হবে না। তবে জানুয়ারিতে পেছানো হলে ইজতেমার তারিখ পেছানো হতে পারে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/15/1542301571399.jpg
বৈঠকে উপস্থিত আলেম ও তাবলিগের মুরুব্বি

 

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, নির্বাচনের আগে সব ধরনের জমায়েত নিষিদ্ধ। একইসঙ্গে তাবলিগ জামাতের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। এসব বিবেচনায় বিশ্ব ইজতেমার তারিখ আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে তাবলিগের দুই পক্ষের সব কার্যক্রম স্থগিত থাকবেও বলে জানান তিনি।

বৈঠকে মাওলানা সাদের অনুসারীদের নিয়ে আলাদাভাবে বিশ্ব ইজতেমা করার দাবি তুলেন সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম। যুক্তি হিসেবে দারুল উলুম দেওবন্দ মাওলানা সাদের ব্যাপারে আগের অবস্থান থেকে ফিরে এসে বলেও তিনি দাবি করেন।

এ সময় আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হয়, দারুল উলুম দেওবন্দের অবস্থান স্পষ্ট হতে প্রতিনিধি দল ভারত যাবে এবং দেওবন্দ অনুমোদন দিলে তারা আলাদা করে ইজতেমা করতে পারবেন।

সে সিদ্ধান্তের ভিত্তিতেই দারুল উলুম দেওবন্দ যাবে ৬ সদস্যের এ প্রতিনিধি দল। প্রতিনিধি দলে রয়েছেন- আল্লামা মাহমুদুল হাসান, আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ, হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ যোবায়ের, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, ধর্ম সচিব মুহাম্মদ আনিছুর রহমান এবং আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহ।

তবে প্রতিনিধি দলের ভারত সফরের তারিখ এখনও নির্ধারিত হয়নি।

উল্লেখ্য, বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব ১৮-২০ জানুয়ারি ও দ্বিতীয় পর্ব ২৫-২৭ জানুয়ারি হওয়ার কথা রয়েছে। এবারের ইজতেমায় দুই ভাগে ৩২ জেলা করে ৬৪ জেলার তাবলিগি সাথীরা অংশ নেবেন। কোনো জেলায় কোনো আঞ্চলিক ইজতেমা হবে না।

ইসলাম এর আরও খবর

হজ ও ওমরা নীতিমালা প্রকাশ

জাতীয় হজ ও ওমরা নীতি-২০১৯ ঘোষণা করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব আবদুল্লাহ আরিফ মোহা...

আখেরি মোনাজাত শুরু

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমা ময়দানে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়।