Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

বিপর্যয়ের মুখে ভারতের জেট এয়ারওয়েজ

বিপর্যয়ের মুখে ভারতের জেট এয়ারওয়েজ
ছবি: সংগৃহীত
কলকাতা ডেস্ক


  • Font increase
  • Font Decrease

আগামী ১ এপ্রিল থেকে কর্ম বিরতিতে চলে যেতে পারেন ভারতীয় বিমান সংস্থা জেট এয়ারওয়েজের পাইলট এবং বিমান কর্মীরা। এর ফলে চূড়ান্ত সমস্যার মুখে পড়বেন জেট এয়ারওয়েজের যাত্রীরা।

যদি ৩১ মার্চের মধ্যে সংস্থাটি বকেয়া বেতন না মেটায় এবং আর্থিক সংকট সুরাহা না হয়, তাহলে ১ এপ্রিল থেকে কর্মীরা আর বিমান চালাবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

এমনই জটিলতার ফলে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের আগেই বেকার হতে পারেন জেট এয়ারওয়েজের প্রায় তেইশ হাজার কর্মী।

সমস্যার মূল কারণ কর্মীদের বকেয়া বেতন। তিন মাস ধরে কর্মীদের বেতন নিয়ে সমস্যার মুখে পড়েছে ভারতের অন্যতম অসামরিক বিমান পরিষেবা সংস্থাটি।

শুধু পাইলট বা বিমান কর্মীরা নয়, সংস্থাটির প্রকৌশলী ইউনিয়নও, দেশের বিমান পরিবহন নিয়ামক ডাইরেক্টর জেনারেল অফ সিভিল অ্যায়ভিয়েশন (ডিজিসিএ)-কে এক চিঠিতে জানিয়েছেন, বেতন না পেয়ে সংস্থার কর্মীদের মনোবল এতোটাই ভেঙে গিয়েছে যে তার প্রভাব পড়তে পারে উড়ানের সুরক্ষার উপরও।

এহেন সমস্যার ফলে অগ্রিম টিকিত কেটে রাখা যাত্রীদের যাত্রা অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়বে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে চূড়ান্ত রাজনৈতিক তৎপরতা।

কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রকের সচিবকে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে জরুরি বৈঠক ডাকতে নির্দেশ দিয়েছেন মন্ত্রী সুরেশ প্রভু। সমস্যা চূড়ান্ত রূপ নেওয়ায় বিষয়টি গড়িয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দরজায়। ভারতের লোকসভা ভোটের আগে এই সমস্যা নিয়ে আক্রমণ শানিয়েছে বিরোধী শিবির।

মূলত ঋণ ভারে জর্জরিত হয়েই কঠিন সমস্যার মুখে পড়েছে ভারতে বিমান সংস্থাটি। জানা যাচ্ছে কম দামে টিকিট বিক্রির প্রতিযোগিতা এবং জ্বালানির দাম বৃদ্ধির ফলেই সংস্থাটির আর্থিক অবস্থা এই প্রকার দুর্বল হয়ে পড়েছে।

এর আগে ভারতের আরেক বিমান সংস্থা কিংফিশার এয়ারলায়েন্স ঋণের জালে জর্জরিত হয়ে বন্ধ হয়ে যায়। ভারতের অসামরিক বিমান পরিবহন নিয়ামক ডিজিসিএক জানিয়েছে, মানসিক ভাবে চাপের কথা জানালে যেন কর্মচারীদের কাজ করতে বাধ্য না করে জেট এয়ারওয়েজ।

অপর আর এক খবর অনুযায়ী, জেট এয়ারওয়েজের অন্যতম শরিক এত্তিহাদ এয়ারওয়েজ ব্যবসা থেকে সরে যাওয়ার কথা ভাবছে। যদি এই সম্ভাবনা সত্যি হয় তবে জেট এয়ারওয়েজের পুনর্জীবন আরও কঠিন হবে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে জেট এয়ারওয়েজের প্রায় ২৩,০০০ কর্মী কাজ হারালে ভোটের মুখে চাপ বাড়বে শাসক দল বিজেপির।

আপনার মতামত লিখুন :

এরশাদের মৃত্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতার শোকবার্তা

এরশাদের মৃত্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতার শোকবার্তা
এরশাদের মৃত্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতার শোক

সাবেক রাষ্ট্রপতি  ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

রোববার (১৪ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোকবার্তায় তিনি এ শোক প্রকাশ করেন।

শোকবার্তায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। আজ সকাল পৌনে ৮টায় ঢাকার হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর৷ কোচবিহারের বাসিন্দা মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গে আমার অত্যন্ত সুসম্পর্ক ছিল।

প্রয়াত এরশাদ বাংলাদেশের জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ছিলেন ৷  তাঁর প্রয়াণে রাজনৈতিক জগতে অপূরণীয় শূন্যতার সৃষ্টি হয়।

শোকবার্তায় মূখ্যমন্ত্রী এরশাদের পরিবার-পরিজন ও  অনুরাগীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছেন।

 

শেকড়ের টানে পর্যটন মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে ভিড়

শেকড়ের টানে পর্যটন মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে ভিড়
বাংলাদেশ সরকারের ট্যুরিজম বোর্ড সহ ১২টি স্টল দেয়া হয় এই মেলায়, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কলকাতায় সম্পন্ন হলো তিন দিনব্যাপী ৩১তম ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ফেয়ার।

রোববার (১৪ জুলাই) সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত মেলায় ভিন্ন স্বাদের পর্যটনের সম্ভার নিয়ে হাজির হয়েছিলো বাংলাদেশ।   

দেশটির মিনিস্ট্রি অফ সিভিল এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজমের ডেপুটি সেক্রেটারি অঞ্জনা খান মজলিস বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, এখানকার বেশিরভাগ মানুষ বাংলাদেশ সম্বন্ধে সেভাবে জানেন না। বাংলাদেশে দর্শনীয় স্থান কি কি আছে বা কোথায় কোথায় ঘোরা যায়, সেই বিষয়গুলো আমারা জানাচ্ছি। পাশাপাশি আমাদের কালচার যেমন ভাষা আন্দোলন, নববর্ষ উদযাপন এমনকি আমাদের ইলিশ এসব বিষয়ে কলকাতার মানুষ আগ্রহ বোধ করছে। জানার পর প্ল্যানিং করছে কি ভাবে আসবে বাংলাদেশে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/14/1563102301190.jpg
বাংলাদেশকে আরও কাছে থেকে জানতে অনেকে ঘুরতে আসতে চেয়েছেন 

 

এখানে ১২ জন ট্যুর অপারেটর এসেছে আমরা তাদের কাছে পাঠিয়ে দিচ্ছি। পাশাপাশি এখানকার বেশিরভাগ মানুষের শেকড় বাংলাদেশে, ফলে অনেকের পৈতৃক ভিটে আছে দেশে। তারা বাংলাদেশকে যেমন দেখতে চায় সঙ্গে নিজেদের জন্মস্থানও দেখতে চায়। সেই ভাবেই আমাদের প্যাকেজগুলো করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছে অনেকে। ভালো লাগছে, বেশ সাড়া পাচ্ছি। পশ্চিমবঙ্গের মানুষের বাংলাদেশের প্রতি আলাদা আকর্ষণ রয়েছে, তা বেশ বোঝা যাচ্ছে।

মেলায় বাংলাদেশের প্যাভিলিয়ন সাজানো হয়েছিল দিনাজপুরের বিখ্যাত কান্তজীর মন্দিরের আদলে। প্যাভিলিয়নে ১১টি বেসরকারি স্টল ছাড়াও বাংলাদেশ সরকারের ট্যুরিজম বোর্ড সহ ১২টি স্টল স্থান পেয়েছিল। পর্যটন মেলায় কলকাতাবাসীর কাছে আকর্ষণীয় বিষয় হলো একই ভাষায়, একই গন্ধে বিদেশ ভ্রমণ। বুকিংও পেয়েছে প্রচুর। পূর্বপুরুষের ভিটেমাটি ছেড়ে ভারতে আসার পর  নতুন প্রজন্মকে সেই স্বাদ পাওয়ানোর ইচ্ছা অনেকের থাকলেও, সহযোগিতা পাচ্ছিলো না। সেই সুবিধা করে দিল বাংলাদেশ থেকে আসা ট্যুর কোম্পানিগুলো।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/14/1563102319331.jpg
বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে তুলে ধরা হয় কলকাতাবাসীর কাছে 

 

শুক্রবার (১২ জুলাই) মেলা শুরু হয়ে শেষ হয় রোববার (১৪ জুলাই)। এবারের মেলায় ৪৩০টি স্টলে ভারতের ২৮টি রাজ্য এবং ১৪টি দেশ অংশগ্রহণ করেছিল। কলকাতাবাসীর কাছে বাংলাদেশ এক আবেগের বিষয়। সে কারণেই বাংলাদেশ সম্বন্ধে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে খোজ খবর নিচ্ছেন অনেকেই। অনেকে প্লানও করে নিয়েছে এবার পুজোর ছুটির ডেসটিনেশন বাংলাদেশ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র